টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফ সড়কে ইয়াবা তল্লাশী:অনেক নিরীহ নারী অপমানিত ও লাঞ্চনার শিকার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ আগস্ট, ২০১৩
  • ১১২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হুমায়ূন রশিদ,টেকনাফ।::::কক্সবাজারের দণিাঞ্চলে ইয়াবা চোরাই ব্যবসার পাশাপাশি এখন অপরকে ফাঁসানো এবং হেয় করার অস্ত্র বিশেষ হিসেবেও ব্যবহৃত হচ্ছে। প্রকৃত ইয়াবা ব্যবসায়ীরা জামাই আদরে থাকায় এই ইয়াবা পাচারের নিরাপদ বাহন হিসেবে নারীরাও জড়িয়ে পড়ায় অনেক নিরীহ ও ভদ্র ঘরের মেয়েরা হাসপাতাল, প্রতিবেশীসহ বিভিন্ন স্থানে গমনকালে আইন-শৃংখলা বাহিনীর তল্লাশীর নামে শ্লীলতাহানি ও যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার অভিযোগ উঠছে।
খোঁজ নিয়ে জানাযায়-টেকনাফ-উখিয়ার শত শত ইয়াবা গডফাদার কৌশল হিসেবে দরিদ্র পরিবার, কলেজ পড়–য়া শিার্থী এবং মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজনকে ইয়াবা বহনে ব্যবহার করায়
কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে সাধারন যাত্রীদের ভোগান্তি চরমে পৌঁেছ। পবিত্র রমজান মাসে ইয়াবা পাচার বেড়ে যাওয়ায় টেকনাফ থেকে কক্সবাজার যেতে দমদমিয়া বিজিবি চেকপোস্ট, হোয়াইক্যং চেকপোস্ট, বালুখালী কাস্টম্স চেকপোস্ট এবং মরিচ্যা যৌথ চেক পোস্ট ছাড়া ও বিভিন্ন স্থানে ডিবি পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার আরো ৩টি চেকপোস্টে তল্লাশীর শিকার হতে হয় যাত্রী সাধারনকে। উপরোক্ত নব প্রতিষ্ঠিত ৩টি চেকপোস্টে নারী দিয়ে নারীদের তল্লাশী চালানোর নামে কনডমের সহায়তায় যুবতি, মধ্যবয়স্ক ও বৃদ্ধাদের গোপনাঙ্গ ও স্পঁশকাতর জায়গায় তল্লাশী চালানো হয়। যাদের কাছে ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়না অথচ শারীরিকভাবে অপমানিত ও লাঞ্চনার শিকার হয় তারাই লজ্জা-শরমে অন্য সহকর্মী যাত্রীদের সঙ্গে যাত্রা করতে ইতস্থবোধ করে। নিরুপায় হয়ে মাথা হেট করে বাধ্য হয়ে তাদের যেতে হচ্ছে। ইয়াবা বড়ির জন্য যানবাহনে সাধারন যাত্রীদের মানবাধিকার হরণ করা হচ্ছে বলে ভূক্তভোগী কয়েকজন অভিযোগ করেন। যারা ইয়াবাসহ যানবাহনে হাতে-নাতে আটক হচ্ছে তাদের কঠোর শাস্থির ব্যবস্থার পাশাপাশি গডফাদারদের সনাক্ত করে পদপে জরুরী বলে সচেতনমহল মনে করেন। একটি সুত্র দাবী করছে কতিপয় মহলের বাণিজ্যিক মনোভাবের কারনে প্রকৃত ইয়াবা বহনকারীরা ধরা পড়ার পরও কৌশলে পার পেয়ে যায়। এদের কারনে সাধারন হাসপাতালগামী রোগী এবং প্রতিবেশীদের নিকট বেড়াতে যাওয়া পর্যন্ত বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটি সুত্র দাবী করছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কতিপয় সদস্যের সঙ্গে চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ীদের যোগ-সাজশ থাকায় অনেকে আতœগোপনে জামাই আদরে থেকেও ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।
ভূক্তভোগী লোকজন ইয়াবা তল্লাশীর নামে সাধারন যাত্রী যাতে মানবাধিকার লঙ্গন জনিত সমস্যার সম্মুখীন না হয় সে ব্যাপারে জেলা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার উর্ধ্বতন কর্তৃপরে আন্তরিক সহায়তা কামনা করেছেন। #################################

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT