হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফপর্যটনপ্রচ্ছদ

দুটি জাহাজে সেন্টমার্টিন গেল ৪৪১ জন পর্যটক

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ …দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে আবারও পর্যটকদের প্রাণ চাঞ্চল্য চলছে। স্থানীয় প্রশাসন ও জেলা প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার কারণে ১৭১ দিন জাহাজ চলাচল বন্দ থাকার পর টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-পথে শুক্রবার ২৬ অক্টোবর থেকে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় প্রশাসন সাগর উত্তাল থাকায় গত ৮ মে থেকে এই নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দিয়েছিল।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের(বিআইডব্লিউটিএ) টেকনাফের সমন্বয় কর্মকর্তা মোহাম্মদ হোসেন বলেন, ‘চলতি মৌসুমে এ নৌ-পথে চলাচলের জন্য তিনটি পর্যটকবাহী জাহাজকে ২০১৯ সালের ৩০ মার্চ পর্যন্ত চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। জাহাজগুলো হচ্ছে কেয়ারি সিন্দাবাদ, কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন ও বে-ক্রুজ। পর্যটকবাহী জাহাজ কেয়ারি ক্রুজ অ্যান্ড ডাইন ও বে-ক্রুজ শুক্রবার ২৬ অক্টোবর সেন্টমার্টিনের উদ্দেশে টেকনাফ থেকে ছেড়ে যায়। উদ্বোধনী দিনে কেয়ারি ক্রুজ এন্ড ডাইন জাহাজে ২৭৪ জন ও বে-ক্রুজ জাহাজে ২৩৫ জন যাত্রী নিয়ে সেন্টমার্টিন পাড়ি দেয় বলে জানা যায়। এছাড়া কয়েকদিন পর কেয়ারি সিন্দাবাদ জাহাজও চলাচল করবে’।
কেয়ারি সিন্দাবাদ জাহাজের টেকনাফ পরিচালক আজিজুর রহমান বলেন, ‘গত ৮ মে থেকে এ নৌ-পথে সাগর উত্তাল থাকায় স্থানীয় প্রশাসন ও জেলা প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞার কারণে ১৭১ দিন ধরে জাহাজ চলাচল বন্ধ ছিল। বর্তমানে সাগর শান্ত ও পর্যটকদের কথা চিন্তা করে আবারও পর্যটক পারাপারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে’। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রবিউল হাসান বলেন, ‘বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের(বিআইডব্লিউটিএ) অনুমতি সাপেক্ষে এই নৌপথে শুক্রবার ২৬ অক্টোবর থেকে জাহাজ চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সেন্টমার্টিনে হোটেল, কটেজসহ প্রতিটি আবাসিক ও খাবার হোটেলে মূল্য তালিকা টাঙানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি জাহাজ কর্তৃপক্ষ যাতে কোনো ধরনের অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন না করে এবং ভাড়ার তালিকা টাঙানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। ভাটার সময় কোনো পর্যটক যাতে সেন্টমার্টিন সৈকতের পানিতে না নামেন, সে ব্যাপারে প্রচারণা চালানোর জন্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে’। ##

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.