টেকনাফ পৌর যানজটমুক্ত কমিটির নামে চাঁদাবাজি শীর্ষক সংবাদের একাংশের বিবৃত

প্রকাশ: ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৩৬ : পূর্বাহ্ণ

গত ১২ এপ্রিল ২০১৯ইং ক্রাইম ওয়াচ, ক্রাইম নিউজসহ বেশ কয়েকটি অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে টেকনাফ পৌর যানজট নির্মূল কমিটির নামে বেপরোয়া চাঁদাবাজি শীর্ষক সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। উক্ত সংবাদের একাংশে আমাকে জড়িয়ে চাঁদাবাজিতে জড়িত বলে উল্লেখ করা হয়েছে।আমি উক্ত সংবাদের একাংশের বিবৃতি প্রদান করছি। মূল বিষয় হলো টেকনাফ পৌরসভার যানজট নির্মূলে পৌর মেয়র হাজ্বী মোহাম্মদ ইসলাম পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি জিয়াউর রহমান কে ডেকে কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক যোগাড় করে দিতে বললে পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি জিয়াউর রহমান ১০ জন লোক জোগাড় করেদিয়ে আমাকে বিষয়টি অবগত করে। টেকনাফ বাস টার্মিনাল এলাকায় উক্ত লোক গুলো পৌর সভার যাজট নিরসনে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে আমার এবং জিয়াউর রহমানের তদারকিতে কাজ করে। দায়িত্ব পালনের কয়েকদিনের মাথায় অনাখাংকিত ভাবে আমি অসুস্থ হয়ে উক্ত কাজে অনুপস্থিত কালীন আমাকে না জানিয়ে পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে অবৈধ ভাবে জানজট নির্মূল কমিটির নামে রশিদ ছাপিয়ে চাঁদা আদায় শুরু করে। আমি সুস্থ হয়ে উঠার পর উক্ত বিষয়ে প্রতিবাদ করলে একপর্যায়ে পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি জিয়াউর রহমানের সাথে আমার বাকবিতন্ডা লেগে যায়। এসব চাঁদাবাজির বিষয়ে অমি কখনো জড়িত ছিলাম না। তাই উক্ত সংবাদে আমার বিষয়ে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সম্মানিত পাঠকদের প্রতি বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি।

ফরিদ আলম।
সাধারন সম্পাদক,
টেকনাফ পৌর শ্রমিক লীগ।


সর্বশেষ সংবাদ