টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে সিএনজি চালক খুন তালিকা দিন, আমি তাঁদের নিয়ে জেলে চলে যাব: একজন পুলিশও পাঠাতে হবে না: বাবুনগরী টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উদ্যোগে মানসিক রোগিদের মধ্যে খাবার বিতরণ বাংলাদেশে নারীর গড় আয়ু ৭৫, পুরুষের ৭১: ইউএনএফপিএ ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার দেশের ৮০ ভাগ পুরুষ স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার’ এ বছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা, সর্বোচ্চ ২৩১০ হেফাজতের বর্তমান কমিটি ভেঙে দিতে পারে: মামলায় গ্রেফতার ৪৭০ জন মৃত্যু রহস্য : তিমি দুটি স্বামী – স্ত্রী : শোকে স্ত্রী তিমির আত্মহত্যাঃ ধারণা বিজ্ঞানীর দেশে নতুন করে দরিদ্র হয়েছে ২ কোটি ৪৫ লাখ মানুষ

টেকনাফে তিন গ্রামের মানুষ বাশেঁর সাকো দিয়ে ঝুকিপূর্ন চলাচল

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৩
  • ১২২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

teknaf pic (s) 20-7-13 (shfjshfjdsনুর হাকিম আনোয়ার,টেকনাফ:::::টেকনাফে তিন গ্রামের মানুষ বাশেঁর সাকো দিয়ে ঝুকিপূর্নভাবে চলাচল করছে হাজার হাজার মানুষ । চলতি বর্ষা মৌসুমের আগেও নির্মাণ হয়নি একটি ব্রীজ। সরজমিন খাল ঘুরে দেখা যায়- ৩নং টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পূর্বগোদার বিল ও পৌরসভার পশ্চিম অলিয়াবাদের মাঝখানে খালের উপরে ৩ টি বাশঁ দিয়ে তৈরী করা হয়েছে একটি বাশেঁর সাকো । দীর্ঘদিন ধরে গ্রামের হাজার হাজার মানুষ জীবনের ঝুকি নিয়ে বাশেঁর উপর দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে শতাধিক শিশু, মহিলা ও পুরুষ পা পিছলে পানিতে পড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটে প্রতিনিয়ত । তবুও জীবনের ঝুকি নিয়ে এ বাঁশের তৈরী সাকো দিয়ে আসা-যাওয়া করছে বিভিন্ন গ্রামের মানুষ। তিন গ্রামবাসী বাজারে প্রয়োজনীয় কাজে ও বিভিন্ন প্রয়োজনে আসা যাওয়ার একটিমাত্র  রাস্তা রয়েছে। এছাড়া বিকল্প কোন সড়ক না থাকায় এপথটি ব্যবহার করছে লোকজন।খালটির এপাড় ওপাড়ে যারা বসবাস করে তাদের চলাচলের জন্য একটি ব্রিজ গ্রামবাসীদের প্রানের দাবী হয়ে উঠেছে এখন । দীর্ঘদিন ধরে গ্রাম বাসী এ দাবী করে আসলেও কেউ গ্রামবাসীর স্বপ্নের আশা পূরনের এগিয়ে আসছেনা প্রায় ১ যুগ ধরে। তাছাড়া বহু দুরদুরান্ত থেকে আগত লোকজন ও স্কুল ছাত্রছাত্রী বাঁশের তৈরী সাকো দিয়ে চলাচল করে কখনো পানিতে আবার কখনো সাকোর বাঁশ ভেঙ্গে চলাচল করে পঙ্গুত্ব ধারণ করছে। খালের এ সাকোঁর পশ্চিম পাশে রয়েছে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পূর্বগোদার বিল ও পশ্চিম গোদারবিল ও ধুমপাড়াং বিল । আর পূর্বে দিকে রয়েছে টেকনাফ পৌরসভার অলিয়াবাদ ও সাইট্যংখিল নামক জায়গা। খালের দু পাশে ৩ টি গ্রাম থাকলেও অন্যান্য গ্রামের লোকজন ও চলাচল করছে। এছাড়া পৌরসভার পশ্চিম অলিয়াবাদ সাইট্যংখিল ও গোদার বিলের যে দুটি মাদ্রাসা রয়েছে, সে দুটি মাদ্রাসায় বাশেঁর এ সাকোঁর উপর দিয়ে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা স্কুল-মাদ্রাসায় আসা-যাওয়া করে আসছে । বােেশঁর এ সাকোঁর উপর দিয়ে মাদ্রাসায় আসা-যাওয়া করতে অনেক ছাত্রদের কিতাব,বই,খাতা ও নিজেরা নীচে পানিতে পড়ে যাওয়ার ঘটনা অব্যহত রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানায়। শুধু শিার্থী নয়,অনেক মহিলা ও বৃদ্ধলোক পড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে প্রতিনিয়ত । বছরের পর বছর গ্রাম বাসী ও মাদ্রাসার এবং স্কুলের শত শত ছেলে মেয়েরা ঝুকিপূর্ন বাশেঁর উপর দিয়ে স্কুল মাদ্রাসায় আসা-যাওয়া করলেও কেউ উদ্দেগ নেয়নি একটি ব্রিজ করে দিতে । বর্ষা মৌসুমে এই বাশেঁর সাকোঁ দিয়ে পারাপার করা আরো বেশী ঝুকি হয়ে যায় । তবুও নিরূপায় গ্রামের মানুষের এই বাশেঁর সাকেঁর উপর দিয়ে চলাচল করতে হয় ।  এ ব্যাপারে গোদার বিল গ্রামের হোছন আহাম্মদ জানায়,দীর্ঘ ৪০বছর ধরে তিনি এভাবে কষ্ট করে এ পথ দিয়ে আসাযাওয়া করছে । প্রশ্চিম অলিয়াবাদের খতিজা বেগম জানায়,বাশেঁর উপর দিয়ে পার হওয়ার সময় বহু মহিলাকে পানিতে পরে যেতে দেখেছে । কাউন্সিলর নুরুল বশর জানায়- মানুষের কষ্ট দেখে এখানে একটি ব্রিজ দেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে । সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আলম জানায়- গ্রাম বাসীদের চলাচলের জন্য এখানে একটি ব্রিজ অবশ্যই প্রয়োজন । তাই একটি ব্রিজ দেওয়ার জন্য চিন্তা ভাবনা করছি ।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT