হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফপ্রচ্ছদবিশেষ সংবাদ

টেকনাফ-উখিয়াকে ইয়াবা মুক্ত করতে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন বদি

 

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … ইয়াবার গজব থেকে টেকনাফ-উখিয়াকে মুক্ত করতে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন উখিয়া-টেকনাফ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদি সিআইপি। শনিবার ২৬ জানুয়ারি দুপুর ২টায় টেকনাফ পৌরসভার উপজেলা আদর্শ কমপ্লেক্স মাঠে আয়োজিত মাহফিল ও শুকরিয়া সভায় তিনি একথা বলেন। বদির নিজ উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়ার উদ্দেশ্যে ওই মাহফিল ও শুকরিয়া সভার আয়োজন করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন টেকনাফ আল জামিয়া আল ইসলামিয়ার (প্রকাশ টেকনাফ মাদ্রাসা) প্রধান পরিচালক আল্লামা মুফতি কিফায়ত উল্লাহ শফীক্ব।
এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাওঃ রফিক উদ্দীন, সাবরাং নয়াপাড়া জামিয়া ফারুকিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্টাতা পরিচালক (মুহতমিম) আলহাজ্ব মাওঃ মাহবুবুর রহমান, টেকনাফ পৌর মেয়র হাজী মোহাম্মদ ইসলাম, মাওঃ ক্বারী ফরিদুল আলম। এতে বিভিন্ন মাদ্রাসার পরিচালকবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মাহফিল শেষে প্রধান বক্তা আল্লামা হাফিজুর রহমান ছিদ্দীকী (কুয়াকাটা) প্রধানমন্ত্রীসহ দেশ ও জাতীর কল্যাণ এবং টেকনাফকে ইয়াবামুক্ত করার জন্য আবেগঘন দীর্ঘ দোয়া করেন।
সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদি সিআইপি বলেন, ‘কক্সবাজার বা অন্য কোথাও গেলে ইয়াবার বদনাম নিয়ে লজ্জায় মাথা নিচু করে থাকতে হয়। আমরা এ বদনামের ভাগী হচ্ছি। ইয়াবা যুব সমাজকে নষ্ট করছে, দেশ ও জাতীকে ধ্বংস করছে। ইয়াবার কারণে অনেক পরিবারের মা, বাবা, স্ত্রী, সন্তান শান্তিতে ঘুমাতে পারছে না। অনেক তাজাপ্রাণ বিসর্জন দিতে হচ্ছে। ইয়াবা নিয়ে সরকার হাড লাইনে আছে। টেকনাফকে ইয়াবামুক্ত করার জন্য আমরাও আপ্রাণ চেষ্টা করছি। সরকার ও প্রশাসন চেষ্টা করছে। কিন্তু কী কারণে সম্পূর্ণভাবে ইয়াবা বন্ধ হচ্ছে না, তা জানিনা। তাই টেকনাফকে ইয়াবামুক্ত করতে আলেম সমাজের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে দোয়া কামনা করছি। আমাদের একটিমাত্র কলঙ্ক সেটা হচ্ছে ইয়াবা। এ ইয়াবার কারণে এতো বদনাম। এই বদনাম মুছতে সকলকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। যারা এখনও ইয়াবা চোরাচালানের সঙ্গে সম্পৃক্ত তাদের অনুরোধ করছি, এটি বন্ধ করে সরকারের কাছে আত্মসর্পণ করুন। কোনও ইয়াবা চোরাচালানকারী যদি দ্বীনি মাহফিলে গরু, ছাগল ও অনুদান দেয় সেটি গ্রহণ করবেননা। ইয়াবা পাচারকারীকে সমাজ থেকে ধিক্কার জানান। প্রত্যেক মসজিদ ও মাদ্রাসায় ইয়াবা প্রতিরোধের কথা বলি। ইয়াবা থেকে মুক্ত করতে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি। গ্রামে গ্রামে যেসব ইয়াবা পাচারকারী রয়েছে, তাদের তালিকা করে প্রশাসনকে দেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। আজ আমরা শপথ নেবো টেকনাফকে ইয়াবামুক্ত করতে। আমি ইয়াবামুক্ত টেকনাফ করতে চাই। প্রশাসনকে সহযোগিতা করতে চাই। তবে আমার পক্ষে একা সহযোগিতা করা সম্ভব নয়, তাই সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে চাই। আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন যাতে উখিয়া-টেকনাফকে ইয়াবামুক্ত করতে পারি’। ##

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.