টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা কন্যাশিশুদের বোঝা মনে করে অধিকতর বন্যার ঝূঁকিপূর্ণ জেলা হচ্ছে কক্সবাজার টেকনাফে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ৩০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর হস্তান্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দায়িত্ব নিয়ে ডিসিদের চিঠি আগামীকাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (তালিকা) বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান টেকনাফ উপজেলা কমিটি গঠিত: সভাপতি, সালাম: সা: সম্পাদক: ইসমাইল আজ বিশ্ব শরণার্থী দিবস মিয়ানমারে ফেরা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রোহিঙ্গারা ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন আছে, ততদিন ক্ষমতায় আছি: হানিফ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ

টেকনাফে যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত,স্বামী আটক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১১৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

তাহেরা আক্তার মিলি,টেকনাফ ::::টেকনাফে যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করেছে স্বামী। পুলিশ স্বামীকে আটক করেছে। টেকনাফের রাজারছড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘঠেছে ।
জানা যায়, গত ১০ বছর পূর্বে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়া এলাকার মৃত নজির আহমদের ছেলে মো. ফিরোজের সাথে একই এলাকার মৃত আবদুল হাকিমের কন্যা আরফা বেগমের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের কিছু দিন যেতে না যেতেই ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবী করে তার স্বামী ফিরোজ। স্ত্রী আরফা যৌতুক দিবেনা বলে সাফ জানিয়ে দিলে তার উপর নেমে আসে অমানবিক ও অমানসিক নির্যাতন। শারিরীক ও মানসিক ভাবে আরফাকে নির্যাতন করে। গত ৩০ জুন আরফাকে ঘর থেকে বের করে দেয় তার স্বামি। আরফা নিরুপায় হয়ে তার চাচা শামশুদ্দিনের বাড়ীতে আশ্রয় নেয় । পরে ফিরোজের আত্মীয় স্বজনের সহিত গত ৩ জুলাই ঘরোয়া বৈঠকে মিলিত হলে যৌতুক দাবী ও নির্যাতন না করবে বলে ফিরোজ মুছলেকা দিয়ে আরফাকে ফের ঘরে নিয়ে যায়। ঐ দিন ঘরে নিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে আবারো যৌতুকের দাবী করলে আরফা যৌতুক দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় ফিরোজের হাতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে আরফার শরীরে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম করে। পরে তার আত্মীয় স্বজনরা কক্সবাজার সদর ও চমেক হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসা করেন। আর্থিক অভাবে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৩১ আগষ্ট বাড়ী ফিরে আসে। খবর পেয়ে ফিরোজ ওই দিন রাতে পূণঃরায় আরফাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো ছুরি নিয়ে চাচা শামশুদ্দিনের বাড়ীতে গিয়ে আরফাকে খুঁজাখুঁজি করলে স্থানীয়রা ধরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। এব্যাপারে আরফা বেগম বাদী টেকনাফ মডেল থানায় এজাহার দাযের করলে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফরহাদ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত/২০০৩) এর ১১ (খ) মতে অন্তর্ভূক্ত করে। যার মামলা নং- ৬৯/৪৭৫। বর্তমানে অসহায় গরীব আরফা বেগম চিকিৎসার অভাবে ২ ছেলে-মেয়ে নিয়ে অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT