টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে বিজিবি কর্তৃক ৪ নিরীহকে…

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১২
  • ১২১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

শামসুল আলম শারেক,..টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ে বিজিবি কর্তৃক প্রকৃত আসামীদের বাদ দিয়ে নিরীহ ৪ ব্যক্তিকে চোরাচালান মামলায় জড়ানোর অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।
অভিযোগে জানা যায়, ১ সেপ্টেম্বর হোয়াইক্যং ঝিমংখালী বিজিবি বিওপি’র নায়েক পিযুষ বাদী হয়ে হ্নীলা মৌলভীবাজার এলাকার মৃত ইসলাম মিয়ার পুত্র নুরুল ইসলাম, মোঃ হোছনের পুত্র জানে আলম, ইসলাম মিয়ার পুত্র নুরুল হোছাইন ও মোঃ ইসমাইলের পুত্র মোঃ জোহারকে পলাতক আসামী দেখিয়ে একটি চোরাচালান মামলা দায়ের করে। কিন্ত আসামীরা দাবী করছে তারা উক্ত পাচারের সাথে জড়িত নন। এলাকার কিছু বিজিবি’র সোর্স নামধারী ব্যক্তির ইশারায় হয়রানী মূলকভাবে তাদের মামলায় জড়ানো হয়েছে।
বিজিবি সূত্র জানায়, ৩১ আগষ্ট রাত ৯টার দিকে মৌলভী বাজার ও ঝিমংখালীর মধ্যবর্তী নাফ নাদীর ৩ নং ¯¬ইশ গেইট এলাকা দিয়ে রাতের আঁধারে একদল চোরাকারবারী মিয়ানমারের পাচারের উদ্দেশ্যে ৩ কনটেইনারে ১০৪ লিটার জ্বালানী তেল নিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় ঝিমংখালী বিওপি’র নায়েক পিযুষের নেতৃত্বে বিজিবি জওয়ানরা ধাওয়া করলে ওই জ্বালানী তেলগুলো ফেলে চোরাকারবারীরা পালিয়ে যায়। পরে বিজিবি সদস্যরা জলানি তৈলগুলো জব্দ করে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দেয়। এদিকে আসামী পক্ষ দাবী করছে, প্রকৃতপক্ষে ওই পাচারের সাথে জড়িত ছিল জাহেদ, আনোয়ার ও মাজেদ। কিন্তু বিজিবি তাদের আসামী না করে সোর্স নামধারী নুরুল আলম, চোরাচালান সিন্ডিকেটের অন্যতম ক্যাশিয়ার ফরিদুল আলম ও জাহেদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ইন্দনে তাদেরকে পলাতক আসামী দেখানো হয়েছে। এ ব্যাপারে ঝিমংখালী বিজিবি’র নায়েক সুবেদার শাখাওয়াতের সাথে যোগাযোগ করা হলে প্রথমে তিনি মামলায় কোন আসামী করা হয়নি বলে জানান। তাঁকে কাস্টমস অফিসে জমা দেয়া সিজার লিস্টে ৪ জনকে আসামী করা হয়েছে জানানো হলে তিনি বলেন, যারাই অভিযানে ছিলেন এ ব্যাপারে তারাই ভাল জানবেন। এ ব্যাপারে হ্নীলা কাস্টমসে সিজার লিস্ট জমা দিতে আসা ওই অভিযানে নেতৃত্বদানকারী ও মামলার বাদী নায়েক পিযুষের সাথে কথা বললে তিনি জানান, রাতের অন্ধকারে কারা তেল পাচার করছে আমরা দেখিনি। মাল সিজ করার সময় স্বাক্ষী জাহেদ ও ফারি আলমের দেয়া তথ্যমতে তাদেরকে আসামী করা হয়েছে। এ বিষয়ে ৪২ ব্যাটালিয়ান বিজিবি’র অধিনায়ক ও উপাধিনায়কের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাদের ফোনে পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT