হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফপ্রচ্ছদ

টেকনাফে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে হুয়াইক্যং এর মুফিদ নিহত

প্রেস বিজ্ঞপ্তি::   ১৩/০৭/২০১৯ তারিখ ২০.৩০ ঘটিকার সময় এএসআই/(নিরস্ত্র) ওহিদ সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ থানা এলাকায় মাদক উদ্ধার অভিযান ডিউটি করা কালীন ইয়াবা কারবারি মুফিদ আলম (৩৯), পিতা- মৃত নজির আহাম্মদ , সাং- নয়া পাড়া, হুয়াইক্যং থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজারকে নয়াপাড়া বাজার হইতে গ্রেফতার করেন। পরবতীতে আটককৃত আসামি মুফিদকে (৩৮) ব্যাপক জিজ্ঞেসাবাদে জানায় যে, ইয়াবার একটি বড় চালান নয়াপাড়া বালিকা মাদ্রাসার পিছনে নাফ নদীর পাশে মজুদ করিয়াছে। তাৎক্ষণিক আমার নেতৃত্বে থানা হইতে অতিরিক্ত অফিসার ফোর্স সহ তাহার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ইয়াবা উদ্ধারের জন্য ১৪/০৭/২০১৯খ্রিঃ তারিখ রাত ১২.৪০ ঘটিকার সময় বর্ণিত স্থানে পৌঁছেলে পুলিশের উপস্থিতি টের পাইয়া তাহার অপরাপর সহযোগী অস্ত্রধারী ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এতে ঘটনাস্থলে এএসআই/অহিদ কং/১৩৪৬ আঃরুবেল মিয়া/কং১১৬৩ মনির হোসেন র আহত হয়। তাৎক্ষণিক আমার নির্দেশে নিজেদের জীবন সরকারী সম্পত্তি রক্ষার্থে পুলিশ ৩৮ রাউন্ড গুলি করে। এক পর্যায়ে আটককৃত মুহিদ আলম (৩৯) গুলিবিদ্ধ হয়। গোলাগুলির শব্দ শুনে ঘটনাস্থলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসতে থাকলে আমরা গুলি করা বন্ধ করি এবং ঘটনাস্থল হইতে অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি করিতে করিতে দ্রুত পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলের আশপাশ এলাকায় ব্যাপক তল্লাশী করে আসামীদের বিক্ষিপ্ত ভাবে ফেলে যাওয়া ১। ০২ (দুই) টি এলজি (আগ্নেয়াস্ত্র) ২। ১০ রাউন্ড শর্টগানের তাজা কার্তুজ, এবং ৫,০০০ (পাঁচ হাজার) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাইয়া ঘটনাস্থলে জব্দ তালিকা মূলে জব্দ করা হয়। পরবর্তীতে গুরুতর আহত গুলিবিদ্ধ মুফিদ আলম (৩৮) কে এসআই/(নিঃ) জামশেদ এর মাধ্যমে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়া গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাহাকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করিয়া উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরন করেন। পরবর্তীতে তাহাকে এসআই/মোঃ জামশেদ দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়া গেলে তথায় কর্তব্যরত ডাক্তার তাহাকে মৃত ঘোষনা করেন। উল্লেখ্য যে, থানা রেকর্ড পত্র সিডিএমএস পর্যালোচনা করিয়া ।

মুফিদ আলম (৩৯) এর বিরুদ্ধে ১। কক্সবাজার এর টেকনাফ থানার এফ আই আর নং-১৪/৪০২, তারিখ- ০৫ আগষ্ট, ২০১৮; ধারা- ১৯(১) এর ৯(খ) ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২। কক্সবাজার এর টেকনাফ থানার এফ আই আর নং-৩১/৫০২, তারিখ- ০৯ জুন, ২০১৭;ধারা- ১৯(১) এর ৯(ক) ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ৩। কক্সবাজার এর টেকনাফ থানার এফ আই আর নং-৬/১৩৫, তারিখ- ০১ মার্চ, ২০১৯; ধারা- ১৮৬/৩৩২/৩৩৩/৩৫৩/৩০২/৩৪ পেনাল কোড-১৮৬০ ৪। কক্সবাজার এর টেকনাফ থানার এফ আই আর নং-৫/১৩৪, তারিখ- ০১ মার্চ, ২০১৯; ধারা- ৩৬(১) এর ১০(গ)/৪১ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ ৫। কক্সবাজার এর টেকনাফ থানার এফ আই আর নং-৪/১৩৩, তারিখ- ০১ মার্চ, ২০১৯; ধারা- ১৯-ধ/১৯(ভ) ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইন এর এজাহারে অভিযুক্ত এবং ৬। ডিএমপি এর বিমান বন্দর থানার মামলা নং- ৭,তারিখ ১০/০৭/২০১৯খ্রিঃ, ধারা- ৩৬(১) এর ১০(খ) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮; মামলা পাওয়া যায়।
বর্ণিত ঘটনা সংক্রান্তে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা/মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন। এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি::  টেকনাফ মডেল থানা

 

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.