টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

আপডেট :টেকনাফে নাফনদীতে রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা ডুবি : ১ লাশ উদ্ধার : নিখোঁজ ১০

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৩
  • ১৩৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সাইফুল ইসলাম চৌধুরী, টেকনাফ ###নাফ নদীতে রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা ডুবির  ঘটনায় একজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরায় ঘটেছে মর্মান্তিক এঘটনা। দুর্ঘটনা কবলিত নৌকায় ২১ জন মিয়ানমার নাগরিক রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু ছিল । এরা বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমার যাচ্ছিল । স্থানীয় ইউপি মেম্বার মোঃ আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিখোঁজ রোহিঙ্গাদের লাশ উদ্ধারে আতœীয়-স্বজনরা নাফ নদীতে অনুসন্ধান চালাচ্ছে। নৌকা ডুবির ঘটনায় উদ্ধার প্রাপ্ত মিয়ানমার বুচিদং চৌপ্রাং গ্রামের আবদুর রহমানের স্ত্রী আকলিমা খাতুন (৩৫) জানান- বৃহস্পতিবার রাতে জাদিমুরা স্কুলের পুর্বে ঘাট দিয়ে একটি নৌকা যোগে ২১জন রোহিঙ্গা মিয়ানমারের মংডু যাচ্ছিল। তম্মধ্যে ৯জন বিভিন্ন বয়সের শিশু এবং ১৩জন বয়স্ক নারী-পুরুষ। ছোট নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী বহন করায় নাফ নদীর মাঝ বরাবর গিয়ে স্রোতের কবলে পড়ে ডুবে যায়। এসময় তার সাথে ৮বছরের শিশু কন্যা পারভিন আক্তারও ছিল। সেও নিখোঁজ রয়েছে। তা ছাড়া একই পরিবারের ইয়াছিনের ৩জন শিশু কন্যা মেয়ে সেতারা বেগম (১০), আসমিদা বেগম (৬), রশিদা বেগম (৪), নুরুল আমিনের ২শিশু সূত্র রুহুল আমিন (১০) ও মোঃ ফুরকান (৭), আর একটি পরিবারের ১ শিশু কন্যাসহ স্বামী-স্ত্রী যথাক্রমে আবুল কাশেমের পুত্র ছৈয়দ আহমদ (৪৫), তার স্ত্রী নুরু (৪০), শিশু কন্যা মনোয়ারা বেগম (১০) ও ছৈয়দ আলমের শিশু কন্যা মুন্নি (৫)। এরা সকলের বাড়ি মিয়ানমারের বুচিদং চৌপ্রাং গ্রামে। নিখোঁজ আর ১জনের নাম ঠিকানা সে জানাতে পারেনি। তার দাবি মতে এই নৌকা ডুবির ঘটনায় ৯জন শিশু এবং ১জন বয়স্ক নারী-পুরুষ নিখোঁজ বা সলিল সমাধি হয়েছে তবে এক বৃদ্ধের লাশ পাওয়া গেছে। আকলিমা আরও জানান- জাদিমুরা ঘাটে দালাল ওমর, আমির হামজা, নুরুল ইসলাম, জামাল, আবুল হাসিম, আব্দু শুক্কুর, আলী হোছন, মোঃ শফি ও হামিদসহ একটি সিন্ডিকেট  জনপ্রতি ৮০০ বাংলাদেশি টাকা নিয়ে  ২১ যাত্রীকে মিয়ানমারের উদ্দেশ্য নিয়ে যাচ্চিল। তম্মধ্যে জাদিমুরার আবদু শুক্কুর নামে এক জেলে ৬ জনকে উদ্ধার করে কূলে নিয়ে আসে। দমদমিয়া বিওপির কোম্পানী কমান্ডার জানান- জাদিমুরা দমমিয়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকা। তবে নাফ নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনার বিষয়ে তিনি অবহিত নয় বলে দাবি করেন। এব্যাপারে জানতে চাইলে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ ফরহাদ বলেন- জাদিমুরায় নাফ নদীতে রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা ডুবির ঘটনা সর্ম্পকে কেউ তাকে অবহিত করেনি বলে জানায়নি তবে এসআই লিমন অঞ্জাত একজনের লাশ সন্ধ্যায় কেয়ারী ঘাট এলাকা থেকে উদ্ধার করে । এসআই লিমন জানায়- অঞ্জাতনামা লাশটি স্থানীয় ভাবে দাফন করা হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT