টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে ডাকাতির কবলে মাছসহ ট্রলারলুট

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১২১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

sayed alam teknaf 27-9-13নুরুল আলম,টেকনাফ::::টেকনাফে এক ব্যক্তির মাছসহ ফিশিং ট্রলার লুট হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গতকাল ২৭ সেপ্টেম্বর তথ্যনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে এ চাঞ্চল্যকর তথ্য। স্থানীয় আবদুর রাজ্জাক মেম্বারের মালিকাধীন একটি ট্রলার মাছ ধরার জন্য বঙ্গোপসাগরে যায়। ট্রলারটি স্থানীয় ডাকাত দলের কবলে পড়ে। ট্রলার মালিক আবদুর রাজ্জাক মেম্বারের দাবী সাড়ে ৭ ল ট্রলার মূল্যের প্রায় ৬ ল টাকার মাছ ছিল। জানা যায়- টেকনাফ উপজেলার শাহপরীরদ্বীপ এলাকার মোজাহার মিয়া কোম্পানীর জামাই ছৈয়দ আলম ওরফে গিরা ছৈয়দের নেতৃত্বে অস্ত্রসস্ত্র সজ্জিত হয়ে জালিয়পাড়ার নুরুল ইসলামের প্রকাশ মগু পুত্র বাট্রা শমসু, চ্যানেল গফুর, ইসমাইল, লম্বা কাসিম, মোঃ শাকের লুলুসহ ২০-২৫ সন্ত্রাসী নিয়ে এ ট্রলার ও মাছ লুট করে। এছাড়া একই এলাকার মোক্তার আহমদের পুত্র ছৈয়দ আলমের ফিশিংকলে ও  লামার বাজারে আবদুর রাজ্জাকের উপর হামলা চালায়। উক্ত ডাকাতদল মাছ লুট করার পর ঘটনা জানাজানি হলে ট্রলারটি ফেরত দেয় ।পরবর্তীতে আবদুর রাজ্জাকের মলিকাধীন ট্রলারটি  মোঃ ইলিয়াছকে ভাড়া দেয়। ইলিয়াছ ভাড়া নেওয়া বোট বাট্টা শমসুর ভাই মগুর পুত্র জাফরের নিকট বিক্রি করেছে। এদিকে ট্রলার মালিক জাফর জানিয়েছেন-  বৈধ কোন কাগজ পত্র নাই বিধায় নামমাত্র পৌরসভার লাইন্সেসটি রয়েছে। যাদের বিবরণে জানা যায়- মেশিন ২৩-২৫,গিয়ার ৩ -১,পাখা -২১ ইঞ্জি। জেলেদের সাথে কথা বলে জানা যায়- ছৈয়দ আলমের বিরুদ্ধে বিজিবির চিংড়ি মাছ ডাকাতির মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। তার নিয়ন্ত্রণে ছিল কেকে পাড়া ট্রলারঘাট। এব্যাপারে স্থানীয় গোয়েন্দা সংস্থা কর্তৃক অনুসন্ধান চালালে বেরিয়ে আসবে থলের বিড়াল।এছাড়া টেকনাফ মৎস্য ফিশিং মালিক সমিতির সভাপতির পদ ব্যবহার করে মাছভর্তি গাড়ি থেকে চাঁদাবাজিসহ মতার অপব্যবহার ডাকাতির কাজ অব্যহত রেখেছে।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT