টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের রোহিঙ্গাদের এনআইডি কেলেঙ্কারি : নির্বাচন কমিশনের পরিচালকের বিরুদ্ধে দুপুরে মামলা, বিকালে দুদক কর্মকর্তা বদলি সড়কের কাজ শেষ হতে না হতেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং! আপনি বুদ্ধিমান কি না জেনে নিন ৫ লক্ষণে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি ভোটার: নিবন্ধিত রোহিঙ্গাও ভোটার! ইসি পরিচালকসহ ১১ জন আসামি হ’ত্যার পর মায়ের মাংস খায় ছেলে

টেকনাফে ইয়াবার দূর্গে টাস্কফোর্সের চিরুনী অভিযান

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১৪৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

নুর হাকিম আনোয়ার,টেকনাফ :::::ইয়াবার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছে জেলা প্রশাসন। গত ২৩ সেপ্টেম্বর জেলা আইন শৃংখলা বিষয়ক সভায় মাদক ও ইয়াবার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক মোঃ রুহুল আমিন এ ঘোষনা দেন। ইয়াবা মাদকের কারনে ঐশী তার বাবা-মাকে খুন করেছে। যাতে এ ধরনের ঘটনা আর পূণরাবৃতি না ঘটে সে লক্ষ্যে এখন থেকেই মাদক ট্যাবলেট ইয়াবার আগ্রাসন রুখতে হবে এবং সমাজ ও দেশকে মাদক মূক্ত করতে হবে।  এ যুদ্ধ প্রশাসন একার পক্ষে সম্ভব নয় এতে সাধারন জনগনের স্বতস্ফুর্ত সহযোগীতা ও সোর্স হিসেবে কাজ করতে হবে। তবেই এ যুদ্ধে সফল হবে বলে তিনি জেলা আইন শৃংখলা বিষয়ক সভায় আশা ব্যক্ত করেছেন। এ নিয়ে সীমান্ত শহর টেকনাফবাসীদের মধ্যে কৌতুহলের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে গত ২১ সেপ্টেম্বর থেকে মাদক ট্যাবলেট ইয়াবার সন্ধানে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরসহ টাস্কফোর্সের টিম টেকনাফের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও গডফাদারদের আলোচিত কয়েক বিলাস বহুল বাড়ীতে হানা দিচ্ছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক খুশী মোহন বিশ্বাসের নেতৃত্বে ৬৩ সদস্যের দলের সাথে বিজিবি ও পুলিশ সদস্যরা এ টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনা করছেন। টীমের সাথে রয়েছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মিজানুর রহমান ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মুকুল জ্যোতি চাকমা ও ফজলুর রহমান। এমন সাহসী অভিযান পরিচালিত হওয়ায় সর্বত্র আলোচনার ঝড় উঠেছে। অভিযানের অংশ হিসেবে ২৫ সেপ্টেম্বর দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টিম লেদা এলাকার বহুল আলোচিত ইয়াবা গডফাদার নুরুল হুদার বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করেছেন। এসময় নুরুল হুদাকে পাওয়া না গেলেও এলাকাবাসী রাস্তায় দাড়িয়ে যৌথ অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। এছাড়া টেকনাফের ৩৫ টি সম্ভাব্য ইয়াবা স্পট ও ১২ টি গ্রামে অভিযান চালিয়েছে। তম্মধ্যে লেঙ্গুরবিল, পুরাতন পল্লান পাড়া, দক্ষিন জালিয়া পাড়া, কুলালপাড়া, মৌলভী পাড়া, হাবিব পাড়া, নয়াপাড়া, শিলবনিয়া পাড়া, মহেশখালীয়া পাড়া, অলিয়াবাদ ও লেদা এলাকায় টাস্কফোর্স টিম ইতিমধ্যে হানা দিয়েছে।  টেকনাফের সর্বত্র আলোচনায় আসছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টিম এর এ অভিযানের সাহসীকতা, কৌশল। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টিমের এ অভিযান অব্যাহত রেখে ভদ্র ও সম্মানি জনসাধারণ তথা টেকনাফকে ইয়াবা মাদক কলংক মুক্ত করতে সকলকে ঐক্যদ্ধভাবে সহযোগিতা করার আহবান জানিয়েছেন সচেতন মহল। এদিকে গত ২৪ সেপ্টেম্বর টেকনাফের শীলবুনিয়া পাড়া এলাকা থেকে মোঃ ফারুক নামে এক ব্যবসায়ীকে ৫৩০পিচ(৫৮ গ্রাম) ইয়াবা সহ আটক করে মাদক আইনে মামলা রুজু করে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এছাড়া সদর ইউনিয়নের মহেষখালীয়া পাড়া এলাকা থেকে মোহিত কামাল নামে অপর এক মাদক ব্যবসায়ীকে ৮ ক্যান বিয়ারসহ আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ১ মাসের সাঁজা প্রদান করা হয়েছে। ২১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ অভিযানে ইতিমধ্যে ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে। তৎমধ্যে ২ জনকে নিয়মিত মামলায় অপর ১৩ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে সাঁজা প্রদানের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। ২৩ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত টেকনাফ পৌরসভার জালিয়াপাড়া ও সাবরাং ইউনিয়নের ঝিনাপাড়ায় এলাকার বিভিন্ন বসত ঘরে অভিযান চালিয়ে ৬ জনকে আটক করা হয়। ধৃত ব্যক্তিদের কাছ থেকে ৫৮১ টি ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। ধৃতরা হচ্ছে- সাবরাং ঝিনাপাড়া আবদুল মতলবের স্ত্রী  নুর নাহার (৪৩), জালিয়াপাড়ার মৃত শামসুল আলমে পুত্র ছৈয়দ জামাল (২৬), মোঃ আলমের পুত্র মোঃ শাকের (২১),  কবির আহমদের পুত্র মোঃ জাবেদ (২১) ছৈয়দ হোছনের পুত্র মো শমসু (৩২), মৃত আবদুলের মতলবের পুত্র আলী জোহার (৫৩)। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মিজানুর রহমান তাদের প্রত্যেককে ৬ মাস করে সাজা প্রদান করেন এবং জালিয়াপাড়ার মৃত আবদুলের পুত্র আলী জোহারকে মাদকের নিয়মিত মামলায় থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।  এছাড়া রবিবার রাতে আটক ৫ জনের মধ্যে ব্যবসায়ী টেকনাফ পৌরসভার দক্ষিণ জালিয়া পাড়ার মৃত আলী আকবরের ছেলে সাকের(৪০)কে ১ বছর ও একিই এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে শাহজাহান(২৬), মোঃ কামালের ছেলে আবু তাহের(২৫), উত্তর জালিয়াপাড়ার আব্দুসালামের ছেলে লুলু(৩৮) ও কুলাল পাড়ার মৃত কালা মিয়ার ছেলে খুরশেদ আলম(২৪)কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শাহ মুজাহিদ উদ্দিনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে মাদক সেবনের দায়ে ৬ মাসের বিনাশ্রম সাজা প্রদান করেন। অবশেষে ইয়াবা মাদক পাচারকারীদের বিরুদ্ধে এধরনের অভিযান পরিচালিত হওয়ায় জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত রেখে টেকনাফবাসীকে কলঙ্কমূক্ত ও স্বাধীন ভাবে চলাফেরার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার সহযোগীতা কামনা করেছেন সচেতনমহল। ###

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT