টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে ইয়াবার গডফাদারেরা বস্তা-বস্তা ইয়াবার চালান নিয়ে আসছে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১৩৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

টেকনাফ প্রতিনিধি;;;মিয়ানমার থেকে ইয়াবা গডফাদারের বস্তা বস্তা ইয়াবার চালান নিয়ে আসছে, টেকনাফ সীমান্তের চিহ্নিত চোরাইপয়েন্ট দিয়ে। প্রতিনিয়তই ইয়াবার চালান বিজিবি ও পুলিশের হাতে ধরা পড়লে ও ইয়াবার মূল হোতারা ধরাছোয়ার বাহিরে থেকে যাচ্ছে। ধরা পড়ছে মাত্র ভাড়াটে পাচারকারী নারী ও পুরুষ। হ্নীলা ওয়াব্রাং, লেদা, জাদিমুড়া, টেকনাফ সদর নাজির পাড়া, সাবরাং, নয়াপাড়া, ও শাহপরীরদ্বীপের জালিয়া পাড়া, সীমান্তের পয়েন্ট দিয়ে ইয়াবার চালান মিয়ানমার থেকে আসছে অব্যাহত ভাবে। এর মধ্যে নাজির পাড়া, লেদা, জাদিমুড়া, সবার শীর্ষে রয়েছে। মিয়ানমার থেকে ইয়াবার আসার প্রেেিত টেকনাফ সীমান্তের নিরহ লোকজন বিজিবিও পুলিশের হয়রানীর শিকার হয়ে আসছে। ইয়াবাকে পুঁজি করে প্রেতিপকে ঘায়েল করার উদ্দেশ্যে একশ্রেণী মামলাবাজ লোক ইয়াবা দিয়ে মামলা সাজাচ্ছে। টেকনাফ মিয়ানমার সড়কে বিজিবিও পুলিশের বিভিন্ন চেকপোষ্ঠ যাত্রীবাহী বাস তল্লাশীর নামে সাধারণ ভদ্রনারী পুরুষ যাত্রীদের দেহ তল্লাশীর নামে হয়রানীর শিকার হচ্ছে। সীমান্তের ইয়াবা ব্যবসায়ীর কারনে আজ এ দৃশ্য ভয়াবহরূপ ধারন করছে। প্রাপ্ত বিভিন্ন অভিযোগের প্রেেিত ইয়াবা জব্দ হলেও অনেক সময় পাচারকারী বা গডফাদার ধরাপড়ে না। অথচঃ মামলায় উল্লেখ করা হয় পলাতক আসামী হিসাবে নিরীহ লোকজনকে। ইয়াবার আটক ঘঠনাস্থল ইয়াবা পরিবত্যাক্ত অবস্থায় পাওয়ার পর পরনে অদৃশ্যের ইশারায় হয়ে  যায় মালিকসহ পলাতক অবস্থায়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে টেকনাফ থানার ২/৩ জন পুলিশ অফিসার ইয়াবার সাথে জড়িত আছে মর্মে ইয়াবা মামলায় জড়িত করার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে মোটা অংক আদায় করার ও গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। আরো জানা যায় ঐসব আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির যোগসাজশে এসব অনৈতিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছে, অব্যাহত ভাবে। ওরা পুলিশের উধর্তন কর্তৃপরে নাম ভাংগিয়ে এ মিশনে কোমর বেঁধে নেমেছে বলে একাদিক সূত্র থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। টেকনাফ সদর নাজির পাড়া, মৌলবী পাড়া ও হাবীরপাড়া, ইয়াবা পাড়া হিসাবে ব্যাপক জনশ্র“তি থাকলেও ওরা পুলিশের ধরাছোয়ার বাইরে থেকে যায়। টেকনাফ পৌর এলাকার পুরাতন পল্লানপাড়া ও নাইথং পাড়ায় ইয়াবা ব্যবসায়ীর নাম তালিকা করে কতিপয় পুলিশ অফিসার দফায় দফায় মোটা অংক আদায় করে চলে যায়। টাকা না দিলে ইয়াবা মামলা দিয়ে জড়ানো হবে মর্মে হুমকি দেয়। ঐ এলাকার নীরিহ লোকজন এ নিয়ে আতংকের মধ্যে ভোগছেন। এমন অভিযোগ আজ সবার কাছে। পুলিশ নীরবে ইয়াবার মামলা দেয়ার নামে হাতিয়ে নিয়ে গেছে প্রায় ৩ লাখ টাকা। এছাড়া টেকনাফ থানায় চলছে আটক বাণিজ্য। ৫৪ ধারায় অপ-প্রয়োগ এবং আটক দেখিয়ে পরে থানা থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। ########

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT