টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফের সমূদ্রতীরের ৩ পয়েন্ট দিয়ে মালয়েশিয়ায় মানব পাচার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৬ নভেম্বর, ২০১২
  • ১৬২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সীমান্ত উপজেলা টেনাফের সাবরাং সমুদ্র উপকুলবর্তী ৩টি চোরাই পয়েন্ট দিয়ে বার বার পাচার হচ্ছে মালয়েশিয়ায় আদম পাচার। এ পয়েন্ট গুলো সাম্প্রতিক সময়ে পাচারকারী চক্রের কাছে নিরাপদ নৌরুটে পরিনত হয়েছে। চোরাইপয়েন্টগুলো হচ্ছে, বাহারছড়া, মুন্ডার ডেইল ও কচুবনিয়া ঘাট। শাহপরীরদ্বীপ পশ্চিম পাড়া থেকে টেকনাফ সদর মহেশখালীয়া পর্যন্ত বিস্তীর্ন সমূদ্র উপকূলীয় এলাকায় সরকারী কোন ধরনের এজেন্সী নেই। এ সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছে, মানব পাচারকারী, বর্তমান মহাজোট সরকার মতায় আসার পর দীর্ঘ ৪ বছর ধরে এ ৩টি চোরাইপয়েন্ট দিয়ে মানব পাচার মহাধুমে চলছে। এদিকে গত শনিবার শাহপরীরদ্বীপ বোট মালিক সমিতির সভাপতি দিল মোঃ কে ননজুডিশিয়াল স্টাম্পে মালয়েশিয়া আদম পাচারের বোট বিক্রি না করার জন্য প্রদান করলেও তা অমান্য করে সৌদি প্রাবাসি আলি আহমদের পুত্র আলম ও তার সহযোগি লাল মাহাম্মদের পুত্র নুর বশর, দুদু মিয়ার পুত্র শুক্কুর, মৃত লাল মোহাম্মদের পুত্র নুর মোহাম্মদ, মৃত মাহাম্মদ হোছেনের পুত্র মনজুর আলম মিলে ৮৭ জন মালয়েশিয়াগামী যাত্রীদিয়ে মালয়েশিয়া আদম পাচারের উদ্দেশ্যে ফাঁড়ি দেয়। বর্তমানে এ বোটটি মিয়ানমার ইয়াংগুন শহরস্থ সাগর থেকে মিয়ানমারের নৌ বাহিনীকৃত আটক হয়। এ ৮৭ জন যাত্রী মিয়ানমারের কারাগাড়ে মানবেতর জীবন জাপন করছে। থাইল্যন্ড এর আদম পাচারকারীর গডফাদার ছালেহ আহাম্মদের পুত্র হোছন এ তথ্যটি শাহপরীরদ্বীপের বশির আহম্মদের মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন বলে জানানএবং এ ব্যাপারে বোট মালিক সমিতির সভাপতি দিল মোহাম্মদ অভিযুক্ত জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন। স্থানীয় মতাসীনদলের চিহ্নিত নেতারা দলের প্রভাব ঘাটিয়ে মালয়েশিয়ায় মানব পাচার এর পাশাপাশি ইয়াবা ব্যবসার সাথে লিপ্ত থাকার ব্যাপক জনশ্র“তি রয়েছে। এ অবস্থায় সাবরাং এর এ ৩টি চোরাইপয়েন্ট এখন অঘোশিতভাবে মালয়েশিয়ায় আদম পাচারের একটি এ্যারপোর্টে পরিনত হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছক সাবরাং এর কচুবনিয়া মুন্ডার ডেইল ও বাহারছড়া এলাকার মানব পাচার চক্রের সাথে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যের মধ্যে যোগসাজশ থকার এলাকায় ব্যাপক জনশ্র“ত রয়েছে। যার ফলে এ ৩টি পয়েন্ট মানব পাচারের একমাত্র নিরাপদ নৌরুট হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। প্রতিবছর শীতকালীন মওসূম আসার সাথে সাথে শুরু হয় মালয়েশিয়ায় আদম পাচারের প্রক্রিয়া। সাবরাং এর নয়াপাড়া, কচুবনিয়া, মুন্ডার ডেইল, চান্দলী পাড়া ও শাহপরীরদ্বীপের দণি পাড়া, মাঝের পাড়া, উত্তর পাড়া, ও পশ্চিম পাড়া এখন প্রায় যুবক শুন্য হয়ে পড়েছে। সাগর পথে মালয়েশিয়ায় গমনের ফলে এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। মানব পাচারকারী দলের হোতারা বলেছেন, দলের প্রভাবশালী নেতা ও পুলিশকে আমরা ম্যানেইজ করেই মালয়েশিয়ায় আদম পাচার কাজে নেসেছি। মানব পাচারকারী চক্রের হাতে অনেকেই প্রতারনার শিকার হয়ে ফুতুবে পরিনত হয়েছে। মালয়েশিয়া নিয়ে যাবার প্রলোবন দিয়ে জনপ্রতি ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা। বাকী ১ লাখ টাকা মালয়েশিয়ায় পৌছার পর সেখানে দালালের হাতে দিতে হবে। নচেৎ তাদের ভাগ্যে নেমে আসবে আমানিশা। সূত্রে জানা যায়, মানব পাচারকারী গড ফাদারেরা মালয়েশিয়ায় আদম পাচারের জন্য অসংখ্য এজেন্ট নিয়োগ করেছে। সে যত মালয়েশিয়াগামী লোক টিক করবে তার জন্য রয়েছে অতিরিক্ত আর্থিক সুবিধা। গভীর সাগরে কার্গোবোট অথবা জাহাজ অপো করছে এমন আশ্বাস প্রদান করে দালালেরা মালয়েশিয়াগামী লোকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। ছোট ছোট ফিসিংবোট যোগে যাত্রীদের নিয়ে যাচ্ছে গভীর সাগরে অপোরত কার্গোবোট ও জাহাজে বোঝাই হবার পর মালয়েশিয়ায় ফাঁড়ি জমায়। এরা কি আদৌ পৌছে যাচ্ছে না মাঝপথে শলিন সমাধী হচ্ছে তা নিয়ে অনেকেই সন্ধিখান। গত ২৭ অক্টোবর (অর্থাৎ ঈদুল আজাহার) দিনের সময় প্রকাশ্য দিবালোকে সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে সাবরাং কচুবনিয়া ঘাট থেকে স্থানীয় মিয়ানমার নাগরিকসহ ১২৮ মালয়েশিয়াগামী লোক যাত্রী হয়ে সাগর পথে মালয়েশিয়ায় উদ্দেশ্যে যাত্রার সময় সেন্টমার্টিন দ্বীপের অদুরে ঝুকিপূর্ণ ট্রালারে অতিরিক্ত যাত্রী বহনের ফলে ট্রলারটি বাইন ফেটে সাগরে ডুবে যায়। এতে টেকনাফের সাবরাং এর ডেইল পাড়ার আবুবকর ও মহেশখালী ও মিয়ানমারে ৩ জন যাত্রী প্রাণে বেঁচে গেলেও অপর ১২২ যাত্রীর এখনো হদিস মিলেনী। তারা কি আদৌ বেচে আছেন না সাগরে শলিল সমাধী হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় বিরাজ করছে চাপা ােভ।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

২ responses to “টেকনাফের সমূদ্রতীরের ৩ পয়েন্ট দিয়ে মালয়েশিয়ায় মানব পাচার”

  1. মোঃইউনুছ আজগরী says:

    অসংখ্য বানানের ভুল থাকা সত্বেও সংবাদটা পড়ে ভাল লাগল।সত্য প্রকাশের জন্য টেকনাফ নিউজ ডট কম কে ধন্যবাদ।
    ….যারা নিখোঁজ ও সলিল সমাধী হয়েছেন তাদের পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই।সে সাথে আদম পাচারকারী সিন্ডিটেক সদস্যদের গ্রেফতার পূর্বক দৃস্টান্ত মূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।আমার মতে এরা প্রশাসনের অজানা কোন পাচারকারী নন।এদেরকে একবার গ্রেফতার করে আবার জামিন নিয়ে ছাড়িয়ে আনার মদদ পুস্টদের চিহ্নীত করার ও দাবি জানাচ্ছি।সে সাথে এলাকার জনসাধারণকে সচেতন করার জন্য জনপ্রতিনিধীদেরকে এগিয়ে আসার উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।

  2. সাদেক says:

    মালেশিয়া আদম পাচার যদি রুকতে হলে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে , কারণ এটা নিয়ে অল্প সংখক মানুষ জরিত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT