হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফপরিবেশ

টেকনাফের উপকূলে ৭১ টি মৃত কচ্ছপ..পাথর উত্তোল চলছেই

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ  – টেকনাফের উপকূলে ডিমওয়ালা মৃত মা কচ্ছপ আর কচ্ছপ। ৩ ফেব্রæয়ারী শামলাপুর থেকে সমূদ্র সৈকত দিয়ে টেকনাফ আসার পথে সাংবাদিক দল প্রত্যÿ করেছেন সৈকতে ৭১ টি মৃত ডিমওয়ালা মা কচ্ছপ। তাছাড়া একটি মৃত ডলফিন ও দেখা গেছে। উপরন্তÍু কচ্ছপিয়া সৈকতে দেখা গেছে একদল নারী-পূরুষ সৈকত থেকে ব্যাপক হারে পাথর উত্তোলন করছে। সাংবাদিকদের নিয়ে নেকম কর্তৃক আয়োজিত মতবিনিময় সভা ও প্রকল্প পরিদর্শণে একদল সাংবাদিক টেকনাফ থেকে এলজিইডি সড়ক দিয়ে শামলাপুর গিয়েছিলেন। তাঁরা সাগর সৈকত দিয়ে টেকনাফ ফেরার পথে শামলাপুর থেকে মহেশখালীয়া পাড়া ঘাট পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার সৈকতে ৭১ টি মৃত কচ্ছপ ও ১ টি মৃত ডলফিন দেখতে পান। এই স্বল্প আয়তনের মধ্যে এতবেশি মৃত কচ্ছপ অস্বাভাবিক ঘটনা বিষয়ে জানতে চাইলে পরিবেশ অধিদপ্তর টেকনাফ লিয়াঁজো অফিসের ন্যাচারাল রির্সোস ম্যানেজমেন্ট অফিসার হাসিবুর রহমান জানান, বিভিন্ন কারণে বছরের এই সময়ে সৈকতে মরা কচ্ছপ দেখা যায়। মূলতঃ এসব কচ্ছপ ডিম পাড়ার জন্য উপকূলের কাছাকাছি এসে মারা যায়। সাগরে জেলেদের জালে আটকা পড়ে, সৈকতে কুকুর শিয়ালের কবলে পড়ে এসব কচ্ছপ মারা যায়। তাছাড়া সাগরের সৈকতে মানুষের বেশী আনাগোনা, লাইটিং ইত্যাদী কারণে যথা সময়ে ডিম পাড়তে বিঘœ সৃষ্টি হলেও মারা যেতে পারে। উপরন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টিও রয়েছে। সাংবাদিক প্রতিনিধি দল ফেরার সময় কচ্ছপিয়া এলাকায় দেখতে পান একদল নারী-পুরুষ সৈকত থেকে ব্যাপক হারে পাথর উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছে। এ বিষয়ে তাঁর বক্তব্য হচ্ছে ঃ এভাবে পাথর উত্তোলনের বিষয় সম্পর্কে তারা মোটেও অবহিত নন। মরা কচ্ছপের বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত থাকলেও এত ব্যাপক হারে কচ্ছপ মারা যাওয়ার বিষয়টি সম্পর্কে তারা অবহিত নন বলেও দাবী করেছেন। বিষয়গুলো নিয়ে অতি সত্ত¡র অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে তিনি জানান। ##