টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

জামায়াতনেতা আবদুল কাদের মোল্লাসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১৫১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

৪৮ ঘণ্টা হরতাল সফল করায় জেলাবাসীকে জামায়াতের কৃতজ্ঞতা নির্দোষ  জামায়াতে ইসলামী আহুত টানা ৪৮ঘন্টার হরতাল সফল করায় জেলাবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান জামায়াতে ইসলামী কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও জেলা আমীর মু.শাহজাহান। বিবৃতিতে তিনি বলেন, জামায়াতে ইসলামীর প্রতি সরকারের প্রতিহিংসার সর্বশেষ নজির নির্দোষ জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লাকে মৃত্যুদন্ড দেয়া। দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও ইসলামী তাহজীব-তামাদ্দুন সংরক্ষণে জামায়াত নেতৃবৃন্দের আপোষহীন ভূমিকার কারণে ব্রাক্ষণ্যবাদী ভারতের পদলেহী আ’লীগ সরকার জামায়াতে ইসলামী ও তার নেতৃবৃন্দের প্রতি জিঘাংসামূলক আচরণ করছে। দেশ পরিচালনায় আ’লীগের সীমাহীন ব্যর্থতা জনগণের আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। ইসলাম ও ইসলামী নেতৃত্বকে সরিয়ে দেয়ার জন্যে সরকার আদালতের ঘাড়ে বন্দুক রেখে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। দশটাকার চাল, বিনামূল্যে সার ও ঘরে ঘরে চাকুরি দেয়ার মিথ্যা প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় জনগণকে দমিয়ে রাখার জন্যে জামায়াতসহ বিরোধীদলের উপর রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস চালিয়ে ব্যর্থতা আড়াল করার চক্রান্ত করছে। তিনি বলেন, দেশের এমনিতর মূর্হুতে জনগণ যখন জালিম আওয়ামীলীগ সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার অপেক্ষায় তখনিই কারারুদ্ধ জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি নির্দোষ আবদুল কাদের মোল্লা আওয়ামী রাজনীতির প্রতিহিংসার শিকার হয়েছে।  ্ তিনি বলেন, আগামীদিনে ব্যর্থ ফ্যাসিবাদী  আ’লীগ সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে সর্বাতœক আন্দোলন চালিয়ে যেতে জনগণকে সোচ্চার হওয়ার আহবান জানান। তিনি ৪৮ ঘন্টার হরতাল সফল করায় জেলাবাসীর  প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

টানা ৪৮ ঘণ্টা হরতালের ২য় দিনে জেলার বিভিন্নস্থানে জামায়াত-শিবিরের পিকেটিং, মিছিল ও সমাবেশ নির্দোষ জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লাসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে জামায়াতে ইসলামী  আহুত টানা দুই দিনের হরতালের শেষ দিনে জেলার বিভিন্নস্থানে পিকেটিং, মিছিল ও সমাবেশ করেছে জামায়াত-শিবির নেতাকর্মীরা। এসময় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, আ’লীগের ফ্যাসিবাদী ও বাকশালী রাজনীতির শিকার জামায়াতনেতা আবদুল কাদের মোল্লা। জামায়াত নেতৃবৃন্দকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার ষড়যন্ত্র বাংলাদেশের তৌহিদী  ও মুক্তিকামী জনতা বানচাল করে দিবে। ইসলাম বিদ্বেষী ও নাস্তিকদের পৃষ্ঠপোষক আ’লীগ সরকার জনমানুষের আশা-আকাংখার প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে বাকশালি কায়দায় দেশ পরিচালনা করছে। আ’লীগ যখনই ক্ষমতাসীন হয়েছে তখনিই ইসলাম ও ইসলামী সংগঠনের উপর আঘাত হেনেছে। ইসলামী চেতনা  ও  রীতিনীতির প্রতি বিদ্বেষের কারণেই ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে ইসলামী তাহজিব-তামাদ্দনের উপর আঘাত হেনেছে। যার সর্বশেষ নজির নির্দোষ নিরপরাধ জামায়াতের সহকারি সেক্রেটারি আবদুল কাদের মোল্লা। আ’লীগের এ সকল চক্রান্ত নস্যাৎ করে দিতে লক্ষ-কোটি জামায়াত-শিবির কর্মী প্রস্তুত । বক্তারা আগামী দিনে আ’লীগের বিরুদ্ধে সর্বাতœক আন্দোলনে শরিক হওয়ার জন্য জেলাবাসীর প্রতি আহবান জানান।

কক্সবাজার: কক্সবাজার শহরে সেক্রেটারি সাইদুল আলমের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ মিছিলোত্তর সমাবেশে বক্তব্য রাখেন শহর জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি আবদুল্লাহ আল ফারুক ও শহর ছাত্রশিবিরের সভাপতি আ.ন.ম হারুন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহ-সেক্রেটারি জাহেদুল ইসলাম, জেলা ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি মাহফুজুল করিম, শহর সেক্রেটারি জাহেদুল ইসলাম নোমান প্রমুখ। চকরিয়া: চকরিয়ায় পৌর জামায়াতের সেক্রেটারি আরিফুল কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা দক্ষিণের আমীর হেদায়াত উল্লাহ, সেক্রেটারি মোজাম্মেল হক, উপজেলা ছাত্রশিবির সভাপতি আজিজুর রহমান, পৌর সভাপতি শাহেদ উদ্দিন প্রমুখ। পেকুয়া: পেকুয়ায় সদর, রাজাখালী ও মগনামায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারি মাওলানা ইমতিয়াজ উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রশিবির সভাপতি আজহারুল ইসলাম, জামায়াত নেতা আবদুর রহিম, মনজুর আলম, শওকত আলম প্রমুখ। টেকনাফ: সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের হ্নীলা ষ্টেশনে উপজেলা আমীর অধ্যক্ষ নুর হোসাইন সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিলোত্তর সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী, জামায়াত নেতা সাইয়েদ আহমদ তারেক, মুহিবুর রহমান, উপজেলা ছাত্রশিবির সভাপতি রবিউল আলম প্রমুখ। ঈদগাঁও: বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের সদর এবং বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন জামায়াত নেতা মাষ্টার নজির আহমদ, মোহাম্মদ ইউসুফ, আজগর আলী, এমদাদ উল্লাহ, ছাত্রশিবির সভাপতি লায়েক বিন ফাজেল প্রমুখ। মহেশখালী: দ্বীপাঞ্চলীয় মহেশখালী উপজেলার হোয়ানকে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন জামায়াত নেতা আমিনুল হক, মোঃ সোহেল, মাওলানা মুজিবুল হক প্রমুখ।

কক্সবাজারে  জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মাওলানা নূর আহমদ আনোয়ারী  ও উপজেলা জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ নুর হোছাইন সিদ্দিকীসহ নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং অবিলম্বে মুক্তি দাবি। —জেলা জামায়াত। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় সহকারী সেক্রেটারি আবদুল কাদের মোল্লাসহ শীর্ষ জামায়াত নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আহূত টেকনাফ উপজেলা জামায়াতের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল থেকে জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী ও উপজেলা জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ নুর হোছাইন সিদ্দিকীসহ কক্্সবাজার শহরে শান্তিপূর্ণ মিছিল শেষে বাড়ি ফেরার পথে ৫শিবির কর্মীকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং অবিলম্বে মুক্তি দাবি করে বিবৃতি প্রদান করেন জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও জেলা জামায়াতের আমীর মু. শাহজাহান, নায়েবে আমীর মাওলানা মুস্তাফিজুর রহমান, সেক্রেটারি জিএম রহীমুল্লাহ। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আওয়ামী ফ্যাসিবাদী রাজনীতির প্রতিহিংসার শিকার নিদোর্ষ জামায়াতের শীর্ষ নেতৃবৃ›দের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ জামায়াতের সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার।শীর্ষ নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে টেকনাফ ও কক্সবাজার শহরে আহুত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ ছিল সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ। পুুলিশ বিনা উষ্কানিতে গণতান্ত্রিক রীতিনীতি ও মৌলিক অধিকার উপেক্ষা করে মিছিল শেষে বাড়ি ফেরার পথে জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারী ও টেকনাফ উপজেলা আমীর অধ্যক্ষ নুর হোছাইন ছিদ্দিকী এবং কক্সবাজার শহর শিবিরের ৫জন কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকারের শেষ মুহুর্তে পুলিশ প্রশাসনকে দলীয় কর্মীরমত ব্যবহার করছে আ’লীগ সরকার। দেশ থেকে ইসলাম ও ইসলামী নেতৃত্বকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার এজেন্ডা নিয়ে ক্ষমতায় আসা আ’লীগ ব্যর্থতার ভারে ন্যুব্জ হয়ে পড়েছে। তাই জামায়াত শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে গ্রেফতার করে প্রহসনের বিচার আয়োজন করে জনগণের দৃষ্টি ভিন্নদিকে আবদ্ধ রাখতে চায়। মুক্তিকামী জনতা যখনই আওয়ামী ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে রাজপথে নেমেছে তখনই সরকার পুলিশ লেলিয়ে দিয়ে জনগণকে দমন করেছে। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশে কোন ভূঁইফোড় সংগঠন নয় যে গ্রেফতার, নির্যাতন, মামলা-হামলা করে দমন করা যাবে। আ’লীগ যতই দমন-নিপীড়ন চালাবে জামায়াত শিবিরের ভিত্তি ততই মজবুত হবে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে জামায়াতের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ও কক্সবাজার জেলা জামায়াতের সহ-সেক্রেটারি মাওলানা নুর আহমদ আনোয়ারি এবং উপজেলা আমীর অধ্যক্ষ নুর হোছাইন ছিদ্দিকীসহ গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি দাবি করেন। অন্যথায় জনতার সম্মিলিত আন্দোলনের মাধ্যমে নেতৃবৃন্দকে মুক্তি দিতে বাধ্য করা হবে। নেতৃবৃন্দ জামায়াতের আহূত দু’দিনের ৪৮ঘণ্টার হরতাল সফল করে আওয়ামী প্রতিহিংসার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়ার জন্য জেলাবাসীর প্রতি আহবান জানান।

 

আবুহেনা মোস্তফা কামাল জেলা প্রচার সেক্রেটারি তারিখ: ১৭-০৯-১৩ইং

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT