টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
হ্নীলার বিশিষ্ট সমাজসেবক মৌলভী ফরিদ আহমদ আর নেই, বাদে আছর জানাযা রোহিঙ্গার ঘরে মিলল ৫৭ লাখ দেশি-বিদেশি টাকা ও ৭০ ভরি সোনা রোহিঙ্গারা কন্যাশিশুদের বোঝা মনে করে অধিকতর বন্যার ঝূঁকিপূর্ণ জেলা হচ্ছে কক্সবাজার টেকনাফে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ৩০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর হস্তান্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দায়িত্ব নিয়ে ডিসিদের চিঠি আগামীকাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (তালিকা) বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান টেকনাফ উপজেলা কমিটি গঠিত: সভাপতি, সালাম: সা: সম্পাদক: ইসমাইল আজ বিশ্ব শরণার্থী দিবস মিয়ানমারে ফেরা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রোহিঙ্গারা ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঘেরে উৎপন্ন রকমারী মাছে সয়লাব জেলার হাটবাজার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৩
  • ২৩৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

Image-Eidgah.Ajpgআতিকুর রহমান মানিক, ঈদগাঁও:::লবণাক্ত পানির রকমারী প্রজাতির মাছ জেলাব্যাপী বাজারে উঠতে শুরু করেছে। কক্সবাজার বড়বাজার, সদরের ঈদগাঁও বাজারসহ অন্যান্য উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজার চিংড়ি ঘেরে উৎপাদিত বিভিন্ন প্রজাতির মাছের সয়লাব হয়ে গেছে। চলতি বছর চিংড়ি উৎপাদন মৌসুমের মাঝপ্রান্তে বাজারে আসছে চিংড়ি ঘেরে চিংড়ির পাশাপাশি সাথীফসল হিসেবে উৎপাদিত এসব মাছ। কক্সবাজার ফিসারীঘাট, টেকনাফ শাহপরীরদ্বীপ জেটিঘাট, মহেষখালীর গুরকঘাটা ও কুতুবদিয়া উপজেলার গভীর সমূদ্রগামী ফিশিংট্রলার গুলো সামুদ্রে মাছ না থাকায় অলস বসে থাকার ফলে মাস দু’য়েক ধরে জেলা ব্যাপী মাসুদ্রিক মাছের অকাল সৃষ্টি হয়েছিল। বিগত ৭/৮ দিন ধরে জেলার চিংড়ি ঘের সমূহ থেকে আহরণকৃত বিভিন্ন প্রজাতীর সুস্বাদু মাছ বাজারে বিক্রির জন্য তুলছেন ব্যবসায়ীরা। ফলে মাছের অকাল অনেকাংশেই কেটে গেছে। দ্বীপ উপজেলা মহেষখালী, কুতুবদিয়াসহ উপকূলীয় পেকুয়া, চকরিয়া, উখিয়া, টেকনাফ ও সদর উপজেলার বিস্তির্ণ এলাকার চিংড়ি ঘেরে চিংড়ির পাশাপাশি এখন ধরা পড়ছে তাইল্যা, বাটা, দাতিনা, গুইল্যা, ঘঘ, ভেটকি (কোরাল), কেছকি ও লইল্যাসহ বিভিন্ন প্রজাতির লবনাক্ত পানির সু-স্বাদু মাছ। তাজা এসব মাছ ভোক্তাদের চাহিদা মিঠিয়ে পাঠানো হচ্ছে জেলার বাইরের বিভিন্ন এলাকার হাটবাজারে। পবিত্র রমজান মাসে রোজাদারদের প্রয়োজনীয় আমিষের চাহিদা যোগানে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে এসব মাছ। কক্সবাজার সদরের অন্যতম বাণিজ্যকেন্দ্র ঈদগাঁও বাজারের কাঁচাবাজারস্থ মাছ বাজার এলাকায় শুক্রবার বিকালে গিয়ে দেখা যায়, চিংড়ি প্রজেক্ট থেকে আহরিত রকমারী প্রজাতির বিপুল পরিমাণ মাছের সমারোহ। বাজারে উঠা মাছের মধ্যে তাইল্যা মাছ প্রতি কেজি ৩৫০, বাটা ৩৯০, গুইল্যা ৩৫০, দাতিলা ২৫০, বিভিন্ন সাইজের কোরাল মাছ ২০০-৪০০, ঘঘ মাছ ১৫০-২০০, কেছকি ১৫০-২০০, লইল্যা চিংড়ি ৩২০-৩৫০, চাগা চিংড়ি (ভানামী) ৪০০-৫০০ ও বাগদা চিংড়ি ৬০০-১০০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হাতের কাছে টাটকা এসব মাছ পেয়ে ক্রেতারা আগ্রহ ভরে কিনে নিচ্ছেন। সদরের জালালাবাদ খামার পাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাও. শামশুল হক বলেন, পবিত্র রমজান মাসে মহান আল্লাহতায়ালা বিভিন্ন ভাবে তাঁর রহমতের বহিপ্রকাশ ঘটিয়ে থাকেন।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT