টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা কন্যাশিশুদের বোঝা মনে করে অধিকতর বন্যার ঝূঁকিপূর্ণ জেলা হচ্ছে কক্সবাজার টেকনাফে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ৩০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর হস্তান্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দায়িত্ব নিয়ে ডিসিদের চিঠি আগামীকাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (তালিকা) বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান টেকনাফ উপজেলা কমিটি গঠিত: সভাপতি, সালাম: সা: সম্পাদক: ইসমাইল আজ বিশ্ব শরণার্থী দিবস মিয়ানমারে ফেরা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রোহিঙ্গারা ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন আছে, ততদিন ক্ষমতায় আছি: হানিফ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ

ঘুমন্ত টিসিবি, পকেটমার পেঁয়াজ ব্যবসায়ী!

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৩
  • ১০৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ইমাম খাইর, কক্সবাজার  ::: Onionট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)’র অলস ভূমিকায় কক্সবাজারে পেঁয়াজের দাম অপরিবর্তিত রয়ে গেছে। এ সুযোগে অসাধূ সিন্ডিকেট ব্যসায়ীরা সাধারণ জনগণের পকেট খুঁইয়ে নিচ্ছে।

পেঁয়াজের দামের উর্ধগতি ঠেকাতে সারাদেশে ৪৭ টাকা কেজি দরে খোলা ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এ লক্ষে গত সপ্তাহে পাঁচ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত নেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। আর এ দায়িত্ব দেওয়া হয় রাষ্ট্রায়ত্ত্ব প্রতিষ্ঠান টিসিবিকে। বুধবার আমদানি করা পেঁয়াজের প্রথম চালান দেশে পৌঁছেছে বলে জানা গেছে।

টিসিবি’র সিদ্ধান্তনুযায়ী, ঢাকা বিভাগে ৩৫টি ট্রাক, চট্টগ্রামে ১০টি, অন্যান্য বিভাগীয় শহরে ৫টি এবং জেলা শহরগুলোতে ২টি করে ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রির কথা। ইতিমধ্যে রাজধানীসহ অনেক জেলা শহরে টিসিবি’র তৎপরতা দেখা গেলেও কক্সবাজারে এর কোন প্রভাব নেই। যে কারণে ভোক্তাদের অসাধূ ব্যবসায়ীদের কাছে হয়রানি ও অতিরিক্ত পেঁয়াজের দাম গুনতে হচ্ছে।

শহরের বাজার ঘুরে দেখা গেছে, এখানে অন্তত ২০ টি গোদামে পেঁয়াজ মজুদ করে রাখা হয়েছে। দেশী-বিদেশী দুই ধরণের পেঁয়াজ সেখানে রয়েছে। যে কারণে বাজারে পেঁয়াজের সংকট বলতে নেই। এর পরও সিন্ডিকেটের নিকট জিম্মি হয়ে পড়েছে ভোক্তারা। অতিরিক্ত অর্থ গুনতে হচ্ছে তাদেরকে।

কক্সবাজার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা হুমায়ূন কবির সিকদার জানান,  ব্যবসায়ীরা এ সপ্তাহে মিয়ানমার থেকে কয়েক হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি করেছে। অথচ এসব পেঁয়াজ সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মজুদ করে রেখেছে অবৈধ মজুদদারেরা। যে কারণে পেঁয়াজের দাম অপরিবর্তিত রয়ে গেছে। এ বিষয়ে প্রশাসনের জরুরী অভিযানের দাবী জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, রমজানের আগে পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৩০/৪০ টাকা বিক্রি হলেও ঈদের পরের দিন থেকে ৯০/১০০ টাকায় বিক্রি করে ব্যবসায়ীরা। বর্তমানে ৭০-৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

 

ইমাম খাইর, কক্সবাজার। ০১৮১৫৪৭১৪০০

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT