টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফ সমিতি ইউএই’র নতুন কমিটি গঠিতঃ ড. সালাম সভাপতি -শাহ জাহান সম্পাদক বৌ পেটানো ঠিক মনে করেন এখানকার ৮৩ শতাংশ নারী ইউপি চেয়ারম্যান হলেন তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু টেকনাফে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৭ পরিবারের আর্তনাদ: সওতুলহেরা সোসাইটির ত্রান বিতরণ করোনা: শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কঠোর বিধি, জনসমাবেশ সীমিত করার সুপারিশ হেফাজত মহাসচিব লাইফ সাপোর্টে জাদিমোরার রফিক ৫ কোটি টাকার আইসসহ গ্রেপ্তার মিয়ানমার থেকে দীর্ঘদিন ধরে গবাদিপশু আমদানি বন্ধ: বিপাকে করিডোর ব্যবসায়ীরা টেকনাফ পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন যাঁরা বাহারছরা ইউপি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন যাঁরা

গেল বছরের যত বিদঘুটে প্রযুক্তিপণ্য

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ৪ জানুয়ারি, ২০১৭
  • ৩৯৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

টেকনাফ নিউজ ডেক্স:::  প্রযুক্তি দারুণ কাজের হয়ে ওঠে। এগুলো অনেক সুন্দরও বটে।

কিন্তু যত কাজেরই হোক, প্রযুক্তি কিন্তু বিদঘুটে হয়ে উঠতে পারে। গত বছর কিছু প্রযুক্তি পণ্যের এমন চেহারাই তুলে ধরেছেন বিশেষজ্ঞরা। বেশ ভালো মানের পণ্য। কিন্তু অনেকের চোখে বিদঘুটে আর কদর্য চেহারা এদের। এগুলো দেখে ভালোলাগার চেয়ে ভয় বেশি কাজ করে। দেখে নিন এমন কয়েকটি পণ্যের খবর।

১. এমএসআই এইজিস: এলিয়েনওয়্যার সব সময়ই কদর্য সব ডেস্কটপ তৈরি করে। কিন্তু এমএসআই এখন এ কাজে শীর্ষে চলে এসেছে। ডেস্কটপের যে ইউপিএস বানিয়েছে তাকে তারা বলছে, এক সত্যিকার অস্ত্র যেন। এটাকে বানানো হয়েছে আত্মরক্ষামূলক এবং আক্রমণাত্মক প্লাটফর্ম দিয়ে। এটাকে দেখে এও মনে হবে যে, কম্পিউটার যেন কোনো দানবের সঙ্গে সেক্স করেছে। ভীতি সৃষ্টিকারী সব ডিজাইন নিয়ে এমএসআই বাজারে ছাড়ছে তাদের ডেস্কটপ।

২. ভার্চু সিগনেচার টাচ: বিশ্বের সবচেয়ে অভিজাত স্মার্টফোন ব্র্যান্ডের নামটি হলো ভার্চু। এর মোবাইলগুলোর দাম শুরু হয়েছে ৮৪০০ ডলার থেকে। এই মোবাইলগুলো হাতে থাকার অর্থ আপনি দারুণ ধনী ব্যক্তি এবং এই মোবাইল হাতে নিয়ে ফেরারি থেকে নামছেন। এদের মোবাইলগুলোর চেহারাও ভিন্ন। কিন্তু সাম্প্রতিক মডেলে রয়েছে ইংলিশ শিল্পীর নিপুন কারুকাজ, কাটিং-এজ টেকনলজি এবং দারুণ সব সেরা। কিন্তু নতুন মডেলগুলো বিদঘুটে সব নাম ও চেহারা নিয়ে এসেছে। এদের নাম গার্নেট কাফ, গ্রেপ রিজার্ড এবং ক্লাউস ডে প্যারিস অ্যালিগেটর। সবগুলোর ব্যাক কভারে প্রাণীর চামড়া দেওয়া হয়েছে। দুটো সিম এবং একটি মাইক্রোএসডি কার্ডের স্লটগুলো যেন আত্মহত্যার একেকটি পথ।

৩. এসার প্রিডেটর ২১এক্স: ইতিমধ্যে এই রাক্ষস সমৃশ যন্ত্রটিকে নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। এর মতো ভয়ানক যন্ত্র খুব কমই চোখে পড়বে। এসার প্রিডেটর ২১এক্স ল্যাপটটি গেমিংয়ের কাজে বানানো হয়েছে। নামের সঙ্গে চেহারার মিল রয়েছে। এর কার্ভড স্ক্রিন এবং মেকানিক্যাল কি-বোর্ড দেখলে মনে হবে অশুভ কোনো শক্তির যন্ত্র এটি। এ ছাড়া এর ভেতরে ও বাইরে যে লেড লাইটের বিস্তার ঘটানো হয়েছে তা দেখলেই ভয় লাগে।

৪. প্যারোট জিক ৩: হেডফোন এটি। এই তালিকার সবগুলোর থেকে আলাদা চেহারা পেয়েছে এটি। প্যারোট জিক ৩ মূলত অনন্য এবং অভিজাত ডিজাইন আনার চেষ্টা করেছে এই হেডফোনে। কিন্তু তা হয়েছে ভয়ানক কিছু। ফক্স লেদার প্যাটার্ন খুব বাজেভাবে যুক্ত করা হয়েছে এতে। কানে লাগালে বিদঘুটে লাগে।

 

৫. আইফোন ৭ হেডফোন অ্যাডাপ্টার: গতানুগতিক ধারায় একে কদর্য বলা যায় না। কিন্তু বিষয়টি যখন অ্যাপলের ক্যাবল, তখন তা আরো সুন্দর হওয়া প্রয়োজন। অ্যাপলের পণ্যের তালিকায় একে সবচেয়ে বাজে বলে বিবেচনা করা যায়। সূত্র: নেক্সট ওয়েব

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT