হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

ধর্ম ও দর্শনপ্রচ্ছদ

‘মাদকসেবী ও ব্যবসায়ীদের যেভাবে শাস্তি দিতে বলেছে ইসলাম’

আবদুল্লাহ তামিম:: গত ১৫ দিনে দেশজুড়ে ১০৫ জন মাদক ব্যবসায়ী ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত হয়েছেন। মাদক নির্মুল না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চালানোর ঘোষণা দিয়েছে সরকার। তবে অনেকেই তাদের ‘ক্রসফায়ারে’ নিহতের সমালোচনা করেছেন।

ইসলাম মাদক সম্পর্কে কী বলে এ বিষয়ে আওয়ার ইসলামের সঙ্গে কথা বলেছেন বহু গন্থ প্রণেতা, জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া সাত মসজিদ মুহাম্মদপুর মাদরাসার প্রধান মুফতি, মুফতি হিফজুর রহমান।

তিনি বলেন, ইসলাম কখনো সমর্থন করে না নেশা করাকে, মাদককে বা মদকে। ইসলামের প্রাথমিক যুগে মদ হারাম ছিল না। তবে তা ক্রমান্বয়ে অবৈধ ঘোষণা করা হয়।

এখন এটাকে বৈধ করার কোনো সুযোগ নেই। মদ শরিয়তে হারাম, খাওয়া ও বেচা-কেনা সবকিছুই জঘন্যতম অপরাধ।

আল্লাহ তায়ালা বলেন, হে ঈমানদারগণ! তোমরা মাতাল অবস্থায় নামাজের নিকটবর্তী হয়ো না। যতক্ষণ না তোমরা বুঝতে সক্ষম হও যা তোমরা বলছ’- (সুরা আন নিসা: ৪৩)।

অন্য আয়াতে আছে হে ঈমানদারগণ! নিশ্চয়ই মদ, জুয়া, স্থাপনকৃত মূর্তি ও ভাগ্য নির্ধারক তীর অপবিত্র ও শয়তানের কাজ। সুতরাং তোমরা তা থেকে দূরে থাক। যেন তোমরা সফলকাম হতে পার’- (সুরা আল মায়িদা: ৯০)।

দেশে চলমান বন্দুকযুদ্ধে যারা নিহত হচ্ছেন এটাও ইসলাম সমর্থন করে না। কারণ ইসলাম মাদকসেবী মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের শরিয়ত শাস্তি নির্ধারিত করে দিয়েছে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে আশি দোররা বা বেত্রাঘাত করতে হবে।

যেহেতু ইসলাম তাদের শাস্তি নির্ধারণ করে দিয়েছে তাই তাদের অভিযানে মৃত্যুর মুখোমুখি না করে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করেো উচিত। এরপর কারাদণ্ড বা অন্য কোনো শাস্তির আওতায় এনে মাদক নির্মূলের পদক্ষেপ নিয়ে তা শতভাগ প্রশ্নহীন হবে ইনশাল্লাহ।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.