টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

গণমাধ্যমের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন এমপি রনি: কাশিমপুর কারাগারে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৩
  • ১৮৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

top_81432013-অবশেষে গণমাধ্যম ও সংবাদকর্মীদের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি। সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় গ্রেফতার হবার আগে দেওয়া একটি বিবৃতিতে রনি এই ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

তবে বিবৃতিটি আগে দেওয়া হলেও এটি গণমাধ্যমে পাঠানো হয় বৃহস্পতিবার। আর তা  গণমাধ্যমে পাঠিয়েছেন তার স্ত্রী কামরুন্নাহার রুনু।

সেদিনের ঘটনার জন্য দু:খ প্রকাশ করে ক্ষমা চাইলেও বিবৃতিতে তিনি দাবি করেছেন তিনি আসলে এ ঘটনায় ‘পরিস্থিতির শিকার’। এর মধ্য দিয়ে গোলাম মাওলা রনি বিবৃতিতে নিজের স্ববিরোধী মনোভাবেরই প্রমাণ দিলেন।

এক জায়গায় তিনি বলছেন, ঘটনার দায় পুরোপুরি তার। আবার অন্য জায়গায় বলছেন তিনি পরিস্থিতির শিকার।

বিবৃতিতে রনি বলেন, ‘এই ঘটনায় সাংবাদিক বন্ধুদের সঙ্গে অসংযত আচরণের দায় পুরোপুরি আমার। গণমাধ্যমে যুক্ত/কর্মরত যেসব সাংবাদিক বন্ধু এ আচরণে ক্ষুব্ধ আমি তাদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। এর মাধ্যমে এই অধ্যায়ের অবসান ঘটবে বলে আশা করছি।’

নিজেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শে বিশ্বাসী, অনুগত ও নিবেদিত প্রাণ এক কর্মী হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতেও আমি কখনও এ থেকে বিচ্যুত হব না। আমার রাজনৈতিক শিক্ষা এবং অনুপ্রেরণার উৎস জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাঁর স্পষ্টবাদিতা এবং সাহস আমার পাথেয়। আর রাজনীতিতে বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে আরও গতিশীল এবং নিরাপদ করাই আমার লক্ষ্য।’

নিজের লেখালেখির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে রনি বলেন, শিক্ষাজীবন শেষে আমি গণমাধ্যমে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হই। কিছু সময় প্রবাসে এবং রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ায় লেখালেখিতে ছেদ পড়ে। পরিচিতিজনদের আগ্রহ, উৎসাহ ও সহযোগিতায় বেশ কিছুদিন হলো আবারও লেখালেখি শুরু করেছি। টেলিভিশন অনুষ্ঠান বিশেষ করে টক শোতেও নিয়মিত অংশ নিচ্ছি।

সাংবাদিক মারধরের মামলায় সরকার দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনিকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার ২ এ স্থানান্তর করা হয়েছে। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র শীর্ষ নিউজকে এ সংবাদ নিশ্চিত করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭.২০ টায় তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে  কাশিমপুরের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়। রাত ৮.৩২ টায় রনিকে কাশিমপুর কারাকর্তৃপক্ষ বুঝে নেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম এস এম আশিকুর রহমান উভয় পক্ষের শুনানি শেষে রনির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১২ টার দিকে রনিকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয় থেকে আদালতে আনা হয়। বেলা ১ টার দিকে তাকে আদালতে নেয়া হয়। ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের দুই সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় শাহবাগ থানায় দায়ের হওয়া মামলায় এর আগে বুধবার একটি আদালত তার জামিন বাতিল করে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশের পর পরই ওইদিন বিকেলে রনিকে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। রাতে তাকে ৩৬ মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে রাখা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ২০ জুলাই দুপুরে রাজধানীর তোপখানা রোডের মেহেরবা প্লাজায় এমপি গোলাম মওলা রনির অফিসে ইনডিপেনডেন্ট টিভির সাংবাদিক ইমতিয়াজ মমিন সনি ও ক্যামেরাম্যান মহসিন মুকুলকে মারধর করা হয়।

সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় ওইদিনই টেলিভিশনটির সহকারী ব্যবস্থাপক ইউনুছ আলী বাদী হয়ে মামলা করেন। অন্যদিকে এমপি রনিও পাল্টা অভিযোগ এনে ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের অন্যতম মালিক ব্যবসায়ী সালমান এফ রহমানের বিরুদ্ধে মামলা করেন। নিজের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলায় রনি সোমবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন। পরের দিনই তার জামিন বাতিলের আবেদন করেন বাদী।

 

 

রাজনৈতিক সংস্কৃতির পরিবর্তন প্রয়োজন বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনেকের মতো আমিও এটা মনে করি।এই সমাজে স্পষ্ট কথা বলা/লেখার লোকের সংখ্যা দ্রুত কমছে। এ অবস্থায় আমার লেখায়/ আলোচনায়/ বক্তব্যে প্রশংসা ও তিরস্কার দুটোই জুটেছে। নানা বিষয়ে মতপার্থক্য এবং দৃষ্ঠিভঙ্গির ভিন্নতার কারণে সম্প্রতি আমি এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার মুখোমুখি হই।

নিজেকে ‘পরিস্থিতির শিকার’ বলে দাবি করে তিনি বলেন, সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ঘটনার পূর্বাপর বিশ্লেষণে বোঝা যাবে আমি মূলত: পরিস্থিতির শিকার। বেশ কিছুদিন ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির সঙ্গে সম্পৃক্ততা নিয়ে লেখালেখি হচ্ছে। আমি আবারও এ বিষয়ে পরিষ্কার বলতে চাই যে, আমার বিরুদ্ধে উত্থাপিত এসব অভিযোগের একটিরও সত্যতা মিললে আমি তাৎক্ষণিকভাবে রাজনীতি থেকে চিরদিনের মতো দূরে সরে দাঁড়াবো।

সবার সহযোগিতা এবং দোয়ায় ভবিষ্যতেও বরাবরের মতো দুর্নীতি, অপশাসনের বিরুদ্ধে লেখালেখি/ আলোচনা চালিয়ে যাবেন বলেও বিবৃতিতে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT