টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

খুরুস্কুল-চৌফলদন্ডী-ঈদগাঁও সংযোগ সেতুর মাধ্যমে উপকৃত হবে ৮ ইউনিয়নের ৪ লাখ জনগণ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৩
  • ১১৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

Koroskul Bridge ইমাম খাইর, কক্সবাজার। অবশেষে খুরুস্কুল-চৌফলদন্ডী-ঈদগাঁও সংযোগ সেতু উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। আগামী ৩ সেপ্টেম্বর সেতুটির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে করে বৃহত্তর ঈদগাঁও’র ৮ ইউনিয়নের অন্তত ৪লাখ জনগণ এর সুফল ভোগ করবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

সুত্র জানায়, ২০০৪ সালের ১১ মে সেতুটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। কিন্তু ৬টি পিয়ার ও ১টি এ্যাবাবমেন্ট নির্মাণের পর ২০০৭ সালে সেতুর কাজ বন্ধ হয়ে যায়। পরে সরকার জনদাবী বিবেচনায় ২০১০ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর এটির কাজ পূনরায় শুরু করেন। কাজ শেষ হয় চলতি সনের ২৮ জুন। প্রায় ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত দীর্ঘ প্রায় ৩৪৮মিটার এ সেতুটির বাস্তবায়ন করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এর ফলে কক্সবাজার সদরের খুরুস্কুল, ভারুয়াখালী, পোকখালী, ইসলামাবাদ, ইসলামপুর, ঈদগাঁও, চৌফলদন্ডী ও জালালাবাদসহ ০৮ ইউনিয়নের সাথে কক্সবাজার জেলা ও থানা সদরের সাথে ১৫ কিলোমিটার দূরত্ব কমে আসবে। এতেকরে এ সেতু দিয়ে চলাচলকারী জনগণের সময় বাঁচার পাশাপাশি অর্থনৈতিকভাবেও লাভবান হবে তারা।

জানা যায়, জেলা পরিষদের প্রশাসক মোস্তাক আহামদ চৌধুরী ১৯৯৬ সালে তৎকালীন স্থানীয় সরকারের মন্ত্রী (সদ্য পরলোকগত রাষ্ট্রপতি) জিলুর রহমানের বরাবরে আবেদন করেন। কিন্তু এটি বিশাল ব্যয় সাপে হওয়ায় বিষয়টি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় হতে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়। যোগাযোগ মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সম্ভাব্যতা যাচাই শেষে সেতুটির নির্মাণে উদ্যোগ নেন। পরিশেষে দীর্ঘদিন পর মোস্তাক আহামদ চৌধুরীর আন্তরিক চেষ্টায় নির্মাণ কাজ শুরু হয় বলে জানা গেছে।

খুরুস্কুলের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সমাজ সেবক জাহাঙ্গীর কাসেম জানান, সেতুর কারণে স্থানীয় লাধিক জনতার সাথে কক্সবাজার জেলা সদরের যোগাযোগের সুবিধা বেড়েছে। এ কারণে সরকারের নিকট তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাষ্টার আব্দুল কাদের জানান, এলাকাবাসির দীর্ঘ দিনের দাবীর প্রেক্ষিতে এ সেতুর বাস্তবায়ন সরকারের জন্য মাইল ফলক হয়ে থাকবে। শুধু সেতুটির কারণে এ অঞ্চলের উৎপাদিত লবন শিল্প ও মৎস্য শিল্প পরিবহন ও বাজারজাত করণে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

ঈদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল জাহান চৌধুরী জানান, খুরুস্কুল-চৌফলদন্ডী-ঈদগাঁও সংযোগ সেতু উদ্বোধনের মাধ্যমে বৃহত্তর ঈদগাঁও’র অবহেলিত এলাকার উন্নয়ন বাড়বে। এ জন্য তিনি সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান। তবে এ সেতুর প্রকৃত সুফল পেতে খুরুস্কুলের অবহেলিত সড়কগুলোর সংস্কার প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

কক্সবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান,এ সেতু নির্মাণের ফলে পর্যটন সুবিধা আরো বাড়বে এবং সারাদেশসহ এ অঞ্চলের মানুষের সাথে কক্সবাজার শহরে যাতায়াত সহজ হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT