হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয়প্রচ্ছদ

খালেদা জিয়ার ইফতারে বরাদ্দ মাত্র ৩০ টাকা! ৩০ টাকায় ইফতার করবে বিএনপি

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক ::

বিএনপির নেতাকর্মীরা এবার ৩০ টাকায় ইফতার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দলীয় একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, কারাগারে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ইফতারির জন্য বরাদ্দ মাত্র ৩০ টাকা। বিএনপির নেতাদের দাবি, সাবেক প্রধানমন্ত্রী, প্রচন্ড অসুস্থ দেশের বর্ষীয়ান একজন নেতার ইফতারির জন্য মাত্র ৩০ টাকা বরাদ্দ অমানবিক। এর প্রতিবাদে বিএনপির নেতাকর্মীরা ৩০ টাকায় ইফতার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
বিএনপির দলীয় সূত্র জানায়, কারাগারে চেয়ারপার্সন মাত্র ৩০ টাকায় ইফতার করছেন। এটা জানার পর তারাও এবার ৩০ টাকায় ইফতার করবেন। বিএনপি আগামী ২৮ মে রাজনীতিবিদদের সম্মানে এক ইফতার মাহফিলের আয়োজন করতে যাচ্ছে। রাজধানীর বেইলী রোডের অফিসার্স ক্লাবে এই ইফতার অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। সূত্র জানায়, এই ইফতার মাহফিলে আমন্ত্রিদের জন্য ইফতারের পুরোপুরি আয়োজন থাকবে। তবে ওই দিন বিএনপির সকল নেতাকর্মী ৩০ টাকার মধ্যে ইফতার করবে। দলের চেয়ারপার্সনের প্রতি সম্মান দেখানো এবং সরকারের এই অমানবিক কাজের প্রতিবাদ জানাতে বিএনপি এই আয়োজন করছে। এ বিষয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ গতকাল ইনকিলাবকে বলেন, কারাকর্তৃপক্ষ বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ইফতারির জন্য মাত্র ৩০ টাকা বরাদ্দ রেখেছে বলে আমরা জেনেছি। তিন তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং সত্তর ঊর্ধ্ব বয়সের একজন মহিলার জন্য ৩০ টাকার ইফতার বরাদ্দ চরম অমানবিক। এটা এক ধরনের নিষ্ঠুর রসিকতা। এটার নিন্দা বা ধিক্কার জানানোর ভাষা কি হতে পারে জানি না। বর্তমান সময়ে ৩০ টাকায় দুটো খেজুর আর সামান্য ছোলা-মুড়িও হয় না। এর প্রতিবাদ আমরা আমাদের মতো করছি। আমাদের নেতাকর্মীরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি ৩০ টাকার মধ্যে ইফতার করে এর প্রতিবাদ জানানোর।
প্রতিবছর রমজানে ইফতার-রাজনীতি নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা যায়। তবে বিএনপির ক্ষেত্রে এবার সেটা দেখা যাচ্ছে না। দলটির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া কারাবন্দি থাকায় তার অনুপস্থিতিতে রমজান মাসকে ঘিরে বিএনপির ইফতার রাজনীতিতে এবার তেমন উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ করা যাচ্ছে না।
রমজানের প্রথমদিন বরাবরই এতিম ও আলেমদের সম্মানে ইফতার আয়োজন করে বিএনপি। এবারো তার ব্যতিক্রম হয়নি। তবে তাতে দলের নেতাদের উপস্থিতি ছিল অনেক কম। এরপর নিয়ম রক্ষর্থে ঢাকায় নিযুক্ত কূটনীতিকদের সম্মানে ও পেশাজীবীদের সম্মানেও দলটির পক্ষ থেকে ইফতারের আয়োজন করা হয়েছে। তবে এসব আয়োজন নিষ্প্রাণ ছিল বলে বিএনপির অনেক নেতা দাবি করেন।
বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে খুবই অসুস্থ। গত শনিবার এক সংবাদ সম্মেলন করে দলের পক্ষ থেকে বলা হয়, খালেদা জিয়া জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। তিনি স্বাভাবিক খাওয়া-দাওয়া করতে পারছেন না। ডায়াবেটিস বিপজ্জনক মাত্রায় অবস্থান করছে। ইনসুলিন ব্যবহারের পরও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে না। এরই মধ্যে তার মুখে ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। এজন্য মুখে প্রচন্ড ব্যথা হয়, যার কারণে তিনি স্বাভাবিক খাওয়া-দাওয়া করতে পারছেন না। জাউ খেয়ে কোনোরকমে জীবনধারণ করছেন।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার এ বিষয়ে ইনকিলাবকে বলেন, দেশের একজন বর্ষীয়ান ও জনপ্রিয় রাজনীতিবিদের অসুস্থতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী যে ধরনের বিদ্রুপ ও রসিকতা করে আসছেন, তা নজিরবিহীন। এ ধরনের দৃষ্টান্ত সভ্য দেশ ও সমাজে বিরল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, খালেদা জিয়ার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ বক্তব্য একজন বন্দির মানবাধিকার অবজ্ঞার শামিল এবং এ বক্তব্য কেবলমাত্র প্রধানমন্ত্রীকে খুশি করার জন্য। সরকার বিএনপি চেয়ারপার্সনকে বিনা চিকিৎসায় মেরে ফেলার ষড়যন্ত্র করছে। তার মতো একজন অসুস্থ মানুষের ইফতারির জন্য ৩০ টাকা বরাদ্দ করা অমানবিক।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.