টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

কাঁচাবাজারে বেশিরভাগ সবজির দাম বেড়েছে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১৫৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে


বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কাঁচাবাজারে বেশিরভাগ সবজির দাম বেড়েছে
ছবি:বাংলানিউজ (ফাইল ফটো)

রাজধানীর বাজারগুলোতে পেঁয়াজের দামে ক্রেতাদের যে হাহাকার শুরু হয়েছিল তা কমতে শুরু করলেও বেশিরভাগ সবজির দাম বেড়েছে। সবজিগুলোতে কেজি প্রতি ৮ থেকে ১০ টাকা বেশি দাম লক্ষ্য করা গেছে।
রোববার রাজধানীর শান্তিনগর কাঁচাবাজার, মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট, পুরান ঢাকার সূত্রাপুর ও রায় সাহেব বাজার ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।
বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত সপ্তাহের গোড়ার দিকে প্রতি কেজি বেগুণ ও বরবটি ৩০ থেকে ৩২ টাকায় পাওয়া যেত, এই সপ্তাহে তা ৪০ থেকে ৪২ টাকা। ৩০ টাকা কেজির ঝিঙে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা, ২০ থেকে ২২ টাকার ঝিঙে, ২৮ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বাজারগুলোতে।  প্রতি কেজি ঢেড়স ও আনাজ বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩২ টাকায়।
শসা ও পুঁইশাক ৮ থেকে ১০ টাকা বেড়ে ৩০ থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আবার এক কেজি টমেটো ৬০ থেকে ৬৫ টাকার স্থলে বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকার মধ্যে।
প্রতি কেজি কাঁচকলা বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকার মধ্যেই। আবার আগের মতোই প্রতি কেজি শিম  ৬০ থেকে ৭০ টাকা, আলু ১৫ থেকে ১৮ টাকা আর পেপে ১৮ থেকে ২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহের ৪০ টাকা কেজির করল্লা বিক্রি হচ্ছে ৩২ থেকে ৩৬ টাকার মধ্যে।
প্রতি কেজি পেঁয়াজ মিলছে ৬৫ টাকায় আর কাচামরিচ ৫৫ থেকে ৬০ টাকা কেজিতে। প্রতি কেজি রসুন ৭০ থেকে ৮০ আর আদা পাওয়া যাচ্ছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায়।
সবজি ব্যবসায়ী খলিলুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, এই সপ্তাহে সবজির দাম কিছুটা বাড়তি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পুরো সপ্তাহে এই অবস্থার পরিবর্তনের সম্ভাবনা কম।
বাজার ঘুরে দেখা যায়, মুগডাল ১৩০ টাকা, দেশি মসুর ডাল ১০৫ টাকা থেকে দোকান ভেদে ১১৫ টাকা। আবার মোটা মসুর ডাল মিলবে ৮০ থেকে ৯০ টাকার মধ্যেই। অ্যাংকর ডাল ৬০-৭০, খেসারি ৫৫-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খোলা সয়াবিন তেল ১১৫-১২০, ৫ লিটার তীর সয়াবিন তেলের বোতল ৬১০ টাকা, রুপচাঁদা ৬৩৫  টাকা হলেও সঙ্গে একই কোম্পানির ১শ’ গ্রাম সরিষার তেল ফ্রি পাওয়া যাচ্ছে।
মাছের বাজারে  ইলিশের সরবরাহ চোখে পড়ার মতো। আর এ কারণে অন্যান্য মাছের দরে কিছুটা নরম সুরেই কথা বলছেন মাছের বিক্রেতারা। বাজারে প্রতি কেজি মুরগীর ডিম (ফার্ম) ৩০ থেকে ৩২ টাকা হালি। হাঁসের ডিম মিলবে ৩৪ থেকে ৩৬ টাকায় কিন্তু দেশি মুরগীর ডিমের জন্য হালিতে পাক্কা ৪৫ টাকা গুণতে হবে।
একই রকম সুর মাংসের বাজারেও। প্রতি কেজি গরুর মাংস  ২৮০-২৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে খাসির মাংসের দাম কেজি কতো জিজ্ঞাসা করলে বিক্রেতা  ৪শ’ থেকে সাড়ে ৪শ’ টাকা দর হাঁকালেও শেষ বেলায় ৪শ’ ২৫ টাকায়ও কেনা যাবে।
বাজারভেদে পণ্যে দরদামে কিছুটা ফারাক রয়েছে। ছোট্ট কাঁচাবাজারের তুলনায় একটু বড় কোন বাজারে গেলে হাজার টাকার বাজারে অনায়েশেই ক্রেতা এক থেকে দেড়শ টাকা সাশ্রয় করতে পারবেন। অবশ্য এজন্য তাকে কিছু বাড়তি রিক্সা ভাড়া আর একটু বেশি সময় দিতে হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT