টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

কলেজে ছাত্রীকে নিয়ে উধাও অধ্যক্ষ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৭ আগস্ট, ২০১৩
  • ১৫৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

bogra-pic-নানান অপকর্মের হোতা বগুড়া পুলিশ লাইন্স হাইস্কুল এন্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ রোটারিয়ান আব্দুস সাত্তার এবার নিজ কলেজের ছাত্রীকে নিয়ে উধাও হয়েছে। একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী মোছাঃ আসমাউল হুসনা আখি (১৭) কে ফুঁসলিয়ে বিয়ে করে দীর্ঘদিন লোকচক্ষুর আড়ালে অবস্থান করছিল।

ছাত্রীর অভিভাবক বিষয়টি টের পেয়ে অনেক খোঁজাখুজির পর কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ্যের নামে মেয়ে অপহরন করে গুম করার অভিযোগ এনে থানায় মামলা দায়ের করে। মামলার ১৫ দিন পর বগুড়া সদর থানা পুলিশ আসামী আব্দুস সাত্তারসহ আখিকে গাজিপুর থেকে উদ্ধার করে রবিবার বগুড়ায় নিয়ে আসে।

ছাত্রীর মা রুপালী ব্যাংকের অফিসার নিলুফা ইয়াসমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লম্পট সাত্তার নাবালিকা মেয়েকে নোট প্রদান, পরীক্ষায় ভাল নাম্বার দেয়া, ক্লাস না করে উপস্থিত দেখানোসহ বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে আসছিল। বিষয়টি আচঁ করতে পেরে অভিভাবক মহল থেকে বিভিন্ন সময় মেয়েকে সতর্ক করে দেয়া হয়। কিন্তু চতুর শিক্ষকের নজর থেকে এড়িয়ে যেতে পারেনি কোমলমতি মেধাবী কলেজ ছাত্রী আখি।

এরই এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শিক্ষক তার নিজ কলেজের ছাত্রী আঁিখকে বগুড়া থেকে পালিয়ে নিয়ে গাজিপুর যায়। এদিকে, ছাত্রীটির অভিভাবক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মেয়ের অবস্থান জানতে পেরে বগুড়া সদর থানায় শিক্ষক সাত্তারের নামে মেয়ে অপহরনের মামলার দায়ের করে।

বগুড়া সদর থানা সুত্রে জানা যায়, বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হোসেন পিপিএম এর সার্বিক তত্তাবধানে এক অভিযান চালিয়ে গাজিপুর থেকে শিক্ষক সাত্তার এবং ছাত্রী আখিকে উদ্ধার করা হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এব ভিকটিম আখি বগুড়া সদর থানাতেই অবস্থান করছিল।

এদিকে, বগুড়া পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্রছাত্রী, অভিভাবক ও শহরের অভিজাত এলাকার একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর থেকে জানা যায়, এর আগেও পুলিশ লাইন স্কুলের সাবেক অধ্যক্ষ অভিযুক্ত সাত্তার চুরি, স্কুলের ছাত্রীর মাকে নিয়ে কক্সবাজারে প্রমোদ ভ্রমন, স্কুল ও কলেজের ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করাসহ নানান অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে।

এর জন্য শিক্ষক রোটারিয়ান আব্দুস সাত্তারকে সাময়িক বরখাস্ত করে একটি মামলা দায়েরও করা হয়। মামলাটি বর্তমানে বিচারধীন। জানা গেছে, লম্পট আঃ সাত্তারের স্ত্রী ও দুটি সন্তান রয়েছে।         in Share   Pin It

Tag

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT