টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
৪০ টাকার কমে নেই সবজি, লাগামছাড়া পেঁয়াজ-মুরগি ভাসানচর থেকে পালাতে গিয়ে ১৮ রোহিঙ্গা আটক রোহিঙ্গাদের ফেরাতে মিয়ানমারের সামরিক সরকারের সঙ্গে এখনও যোগাযোগ হয়নি: মোমেন টেকনাফ স্থলবন্দরে আসার পথে মিয়ানমারের মালবাহী জাহাজ ডুবিতে কয়েক কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতি ব্যাটারিচালিত রিকশা বাদ দিয়ে ‘ইলেকট্রিক মোটরযান’ নীতিমালা টেকনাফ হাসপাতালের পিয়ন ২০ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার : সকল শিক্ষার্থীকে ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ভ্যাক্সিনের জন্য নিবন্ধনের নির্দেশ চট্টগ্রামে প্রতি ঘণ্টায় ভাঙছে তিনটি সংসার বাহারছরার কচ্ছপিয়া থেকে অজ্ঞাতনামা লাশ উদ্ধার আইস ও ইয়াবাসহ গোদারবিলের মোঃ উল্লাহ গ্রেপ্তার, পলাতক আসামী আবদুল্লাহ

কম দামে ইলিশ: মাইকিং করে বিক্রি

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৮৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মাইকিং করে বিক্রি হচ্ছে ইলিশ। তাও আবার রাতে। দাম কম থাকায় কিনছেনও অনেকে।

সোমবার (৩০ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১টার দিকে দেখা যায়, বরগুনা পৌর শহরের মাছ বাজারের সামনের রাস্তার পাশে মাইকিং করে ইলিশ বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা। কম দামে ইলিশ পেয়ে মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে নিম্ন আয়ের লোকজন সবাই কিনছেন।

ইলিশ বিক্রেতা শাহ আলম বলেন, কুয়াকা’টা মহিপুর থেকে এই মাছ এনেছি। মাছ বেশি থাকার কারণে দাম আগের তুলনায় অনেক কম। ক্রেতারা খুশিতে মাছ নিচ্ছে। প্রায় চার মণ মাছ এনেছি মহিপুর থেকে। আমি নিজের জন্যও সাত কেজি মাছ রেখেছি। সবগুলো ইলিশ বিক্রি হওয়ার আগ পর্যন্ত এভাবেই মাইকিং করে বিক্রি করব।

মোশাররফ ফরাজী নামে এক ক্রেতা বলেন, বাজারে এক কেজি ছোট ইলিশ কিনতে গেলেও কমপক্ষে ৪০০-৫০০ টাকা লাগে। সেখানে ৬৫০ টাকায় ৫০০ গ্রাম বা তার বেশি ওজনের ইলিশ পাচ্ছি। এটাই তো ভালো। তবে ইলিশগুলো বেশ শক্ত, মনে হয় অনেকদিন ধরে কোল্ড স্টোরেজে থাকার কারণে এমনটা হয়েছে।

অ’পর আরেক ক্রেতা নির্মাণ শ্রমিক রশিদ মিয়া বলেন, ইলিশ হচ্ছে বড়লোকের খাবার। আমা’র ছে’লেমে’য়েরা ইলিশ মাছ খেতে চায়। দাম নাগালের বাইরে থাকায় এতদিন কিনতে পারিনি। আজ শুনলাম মাইকিং করে ইলিশ বিক্রি হচ্ছে। তাই এই সুযোগে ইলিশ কিনতে চলে আসলাম।

তবে একটি মহল বলছে, বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী ৬৫০ টাকা কেজি দরে ইলিশ মাছ বিক্রির প্রশ্নই ওঠে না। কেন এত কম দামে এই ইলিশ বিক্রি করছে বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা উচিৎ। কোনো অসাধু চক্র অসৎ উদ্দেশ্যেও পচা অস্বাস্থ্যকর ইলিশ কম দামে বাজারে আনতে পারে। এ বিষয়ে প্রশাসন ও যথাযথ কর্তৃপক্ষের যাচাই করে দেখা দরকার।

বরগুনার পাথরঘাটা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের পরিচালক বলছেন, গত চার বছর ধরে মাত্রাতিরিক্ত হারে ইলিশের পরিমাণ কমে এসেছে। সাগরে মাছের পরিমাণ কমে যাওয়ায় বেহালদশা মাছ ব্যবসায়ীদের।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT