টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের রোহিঙ্গাদের এনআইডি কেলেঙ্কারি : নির্বাচন কমিশনের পরিচালকের বিরুদ্ধে দুপুরে মামলা, বিকালে দুদক কর্মকর্তা বদলি সড়কের কাজ শেষ হতে না হতেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং! আপনি বুদ্ধিমান কি না জেনে নিন ৫ লক্ষণে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি ভোটার: নিবন্ধিত রোহিঙ্গাও ভোটার! ইসি পরিচালকসহ ১১ জন আসামি হ’ত্যার পর মায়ের মাংস খায় ছেলে

কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমীর অনুষ্ঠানে বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের কর্ণধার প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১২১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বার্তা পরিবেশক::::Prof Abdullah Abu Syed delivered his speceh at Acadamy meeting দেশের নষ্ট  রাজনীতি দেশকে সামনে থেকে পিছেয়ে দিচ্ছে দেশের বরেণ্য শিক্ষাবিদ, বুদ্ধিজীবী, আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর, বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের কর্ণধার প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদ বলেছেন, আমরা বর্তমানে অসম্ভব নিরাপত্তাহীন অবস্থায় দেশে বসবাস করছি। বাংলাদেশের স্বাধীনতা প্রাপ্তির অনেকদিন অতিবাহিত হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে আমাদের প্রাপ্তি কিন্তু কম নয়। বিভিন্ন সেক্টরে দেশ এগিয়ে গেছে কিন্তু দেশের নষ্ট রাজনীতির কারণে আমরা ক্রমে পিছিয়ে যাচ্ছি। দেশ সামনে এগিয়ে গেলেও নষ্ট রাজনীতি তাকে আবার পেছনে নিয়ে আসছে। গ্রাম থেকে খোদ রাজধানী পর্যন্ত কোথাও কোনো সুস্থ, রুচীশীল, বিবেকবান, মেধাবী মানুষ রাজনীতির সাথে জড়িত নয়। কারণ দেশের মানুষ তাদের চায় না। এটি দেশের প্রতিটি রাজনৈতিক দলের চরিত্র। তিনি বলেন, সমগ্র জাতি সামনে যাওয়ার জন্য সংগ্রাম করছে, ঝাপিয়ে পড়ছে। এগিয়ে যেতে চায়, চায় বড় হতে। কিন্তু রাজনীতি সেখানে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমাদের সবচেয়ে দুর্বল জায়গা হচ্ছে রাজনীতি। তিনি প্রশ্ন করেন, আমাদের দেশের রাজনীতির অগ্রগতি কোথায়? গত ১৮ সেপ্টম্বর (বুধবার) সন্ধ্যা কক্সবাজার প্রেসকাবে কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী কর্তৃক তাঁর সম্মানে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সাহিত্য একাডেমীর সভাপতি গবেষক মুহম্মদ নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কবি দিলওয়ার চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সাহিত্য সভায় কক্সবাজার প্রেসকাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাক্তন সভাপতি বদিউল আলম অতিথির  বক্তব্য পেশ করেন। শুরুতে একাডেমীর প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক ও বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের প্রাক্তন সচিব কবি রুহুল কাদের বাবুল শুভেচ্ছা বক্তব্যে প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরেন। দীর্ঘদিনের শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা নিয়ে আলোকিত মানুষ গড়ার ব্রত নিয়ে এগিয়ে আসা প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদ বলেন, রাষ্ট্র হচ্ছে সুশাসনের একটি নিশ্চিদ্র জাল। রাষ্ট্র মানে কল্যাণ, রাষ্ট্র মানে আইনের শাসন। কিন্তু দেশে এখন কী আইনের শাসন আছে? এভাবে দেশকে চলতে এবং গড়ে উঠতে দেয়া যায় না। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। প্রফেসর আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ আরো বলেন, সাহিত্য রাষ্ট্রের সাথে যুক্ত। একটি জাতি যখন সুস্থির থাকে তখন গড়ে উঠে সৃজনশীল সাহিত্য-সংস্কৃতি। আর যখন অসুস্থ রাজনীতির প্রতিযোগীতা চলে তখন সৃজনশীল সাহিত্য সৃষ্টি হয় না। তখন সৃষ্টি হয় নতজানু সাহিত্য।  এ প্রসঙ্গে তিনি ব্রিটিশ শাসনামলের উদ্বৃতি দিয়ে বলেন, ব্রিটিশরা দীর্ঘ দুশত বছর এদেশ শাসন-শোষন করেছে ঠিক তবে তাদের নৈতিক মূল্যবোধ আমোদের চেয়ে উর্ধে ছিল। ব্রিটিশ  শাসনামলে এদেশে আইনের শাসন ছিল, ছিল ন্যায়-নীতি ও উন্নত মূল্যবোধ। একারণেই সে সময়ে সৃজনশীল সাহিত্য চর্চা হয়েছে। প্রফেসর আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, দেশের মধ্যে নীতিহীনতা, মূল্যবোধের অবক্ষয় অব্যাহত থাকলে তার প্রভাব সর্বত্র পড়ে। কবি-সাহিত্যিকরাও এদেশের রমানুষ। তারাও দেশের বাইরে নয়। এর প্রভাব তাদের উপরেও পড়ছে। ফলে স্বাধীনতা পূর্ববর্তী যে সাহিত্য চর্চা হয়েছে, সৃষ্টি হয়েছে এখন তা হচ্ছে না। তিনি বলেন, এর প্রভাবে সাহিত্যের মধ্যে চলে এসেছে বিশৃংখলা, নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি। সাহিত্যে দেখা দিয়েছে কনফিউশন। মানুষ হয়ে পড়ে আত্মমর্যাদাবোধহীন এবং ভেতরে ভেতরে হয়ে পড়ে নতশির। প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদ বলেন, দেশের প্রতিটি সেক্টরে ঘুষ, দুর্নীতি এত বেশি বেড়ে গেছে তা কল্পনাকেও ছাড়িয়ে গেছে। ৭১-এর যুদ্ধ ছিল বহিঃশত্রুর বিরুদ্ধে। এখন যুদ্ধ করতে হবে নিজেদের বিরুদ্ধে। নিজেদের পাপের বিরুদ্ধে, নিজেদের নৈতিকতার বিরুদ্ধে, দীনতার বিরুদ্ধে, ষষ্ট ইন্দ্রিয়ের বিরুদ্ধে। দেশের কবি-সাহিত্যিক, লেখক-বুদ্ধিজীবীদের এই যুদ্ধে নেতৃত্ব দিতে হবে। দেশের মানুষের মধ্যে নৈতিকতা, মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা করতে হবে। পরিবর্তনের মাধ্যমে আমাদেরকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে।      সভার শুরুতেই একাডেমীর স্থায়ী পরিষদের সদস্য ও কক্সবাজার কেজি মডেল হাইস্কুলের সিনিয়র শিক্ষক, গবেষক নূরুল আজিজ চৌধুরী এবং একাডেমীর নির্বাহী সদস্য ও কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিশিষ্ট ছড়াকার মোঃ নাছির উদ্দ্নি যৌথভাবে আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদকে ফুল দিয়ে বরণ করেন। পরে ইঞ্জিনিয়ার সঞ্চয় কুমার দাশ, কবি হাসিনা চৌধুরী লিলি, কবি তৌহিদা আজিম ও আবৃত্তিকার শারমীন শওকত চৌধুরী কবিতা আবৃত্তি করেন। এর আগে একাডেমীর প্রকাশিত বিভিন্ন গ্রন্থ ও একাডেমীর মুখপত্র সমুদ্র সংলাপের কয়েকটি সংখ্যা প্রফেসর আবদুল্লাহ্ আবু সায়ীদের হাতে তুলে দেন একাডেমীর সভাপতি মুহম্মদ নূরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কবি-সাহিত্যিক, সাংবাদিক, গবেষক, বুদ্ধিজীবীসহ বিশিষ্টব্যক্তিদের মধ্যে কক্সবাজার পিটিআই’র প্রাক্তন সুপার একাডেমীর নির্বাহী রাজ বিহারী চৌধুরী, সাংবাদিক মমতাজ উদ্দিন বাহারী, কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যাপক সরওয়ার কামাল ও শহিদুল ইসলাম, একাডেমীর অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ আমীর উদ্দিন, একাডেমীর সহকারী সাধারণ সম্পাদক ছড়াকার জহিরুল ইসলাম,  একাডেমীর সদস্য ও মহেশখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নাজেম উদ্দিন, একাডেমীর সদস্য ও কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্বাচ আহমদ, শহীদ হোছাইন মোর্শেদ, আবু তুরাব মুহাম্মদ মসরূহ ও মোৎ আবু তৈয়ব, হাশেমিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক অধ্যাপক জি এম সামদানী, মোঃ কামরুল হাসান খান, বিশ্বমিত্র দাশ, মুহম্মদ আনছারুল হক চৌধুরী, দৈনিক হিমছড়ির নিজস্ব প্রতিবেদক ইমাম খাইর, বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের আবুল কালাম আজাদ, কক্সবাজার কেজি মডেল হাইস্কুলের শিক্ষক, অংকনশিল্পী কবি অরণ্য শর্মা, হুমায়ুন আজম রেওয়াজ ও দৈনিক আজকের দেশবিদেশ-এর চীফ রিপোর্টার এম আর মাহবুব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বার্তা প্রেরক অধ্যাপক দিলওয়ার চৌধুরী সাধারণ সম্পাদক কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী। ০১৭১১ ৭৮ ০৬ ৭৮

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT