হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজারপ্রচ্ছদ

কক্সবাজার ট্যুরিজম ভিলেজ নির্মাণ কার্যক্রম স্থগিত

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক :::

অনিয়মের অভিযোগে কক্সবাজার ডেভেলপমেন্ট অব ট্যুরিজম রিসোর্ট অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট ভিলেজ অ্যাট পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্সের নির্মাণ কার্যক্রম তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।আদালতের আদেশের কপি পাওয়ার পর সোমবার রিটকারী আইনজীবী বশির আহম্মেদ বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।বাংলাদেশ সিভিল এভিয়েশন ও ট্যুরিজম মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ প্রজেক্টের (পিপিপি) প্রধান নির্বাহী, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের জেনারেল ম্যানেজার এবং প্রকল্প পরিচালককে বিবাদী করা হয়েছে।

আইনজীবী বশির আহম্মেদ বলেন, পিপিপির আওতায় সরকার কক্সবাজারকে একটি আধুনিক পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে সৈকতের শৈবাল পয়েন্টে ১৩০ একর জমিতে হলিডে কমপ্লেক্স নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে। প্রকল্পটির নাম দেওয়া হয়েছে- ডেভেলপমেন্ট অব ট্যুরিজম রিসোর্ট অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট ভিলেজ অ্যাট পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্স। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে খরচ হবে ৮৫০ কোটি টাকা। চলতি বছরের ৩ মার্চ বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এই প্রকল্পের টেন্ডারে অংশ নেওয়ার জন্য আগ্রহী বিনিয়োগকারীদের চিঠি পাঠায়। পরবর্তী সময়ে চারটি কোম্পানিকে টেন্ডারে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এই প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- সিয়াম সিয়াম গ্রুপ, প্রিমিয়ার গ্রুপ, অরিয়ন গ্রুপ এবং ইন্টার এশিয়া। এর মধ্যে প্রিমিয়ার গ্রুপ ছাড়া বাকি তিনটি প্রতিষ্ঠান টেন্ডারে অংশ নেয়।

রিটকারী প্রতিষ্ঠানের আইনজীবীর দাবি, টেন্ডারের দিন সুকৌশলে সিয়াম সিয়াম গ্রুপকে কৌশলে সরিয়ে দুটি প্রতিষ্ঠানকে টেন্ডারে অংশ নিতে দেয়, যা ছিল টেন্ডারের নামে প্রহসন।তিনি আরো বলেন, টেন্ডার আহ্বান করার পর থেকে পর্যটন করপোরেশন  বারবার তারিখ পরিবর্তন করতে শুরু করে। সংস্থার কিছু অসাধু কর্মকর্তা কোনো নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে বারবার সময় এবং শর্ত পরিবর্তন করে তাদের মনোনীত কোম্পানিকে কাজ পাইয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে, এই অভিযোগে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়। রিটের শুনানি নিয়ে টেন্ডার কার্যক্রম তিন মাস স্থগিতের আদেশ  দেন আদালত।

 

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.