টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
জাওয়াদে উত্তাল সমুদ্র: সেন্টমার্টিনে ৫ ও ৬ ডিসেম্বর পর্যটকবাহী জাহাজসহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ : প্রভাব বাংলাদেশে, ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত প্রবালদ্বীপের একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সালম ইন্তেকাল আজ সোমবার সূর্যগ্রহণ বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা ৭ মিনিট পর্যন্ত রোহিঙ্গারা ভাসানচর থেকে বেড়াতে কক্সবাজার কোন দিকে যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ? টেকনাফে আন্তর্জাতিক ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত বাঁকখালী নদী ও প্যারাবন ধ্বংস: পরিবেশ আইনে ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা টেকনাফে সাড়ে ৩ হাজার একর জমিতে লবণ উৎপাদনে চাষীরা এখন মাঠে এবার দুর্নীতিকে ‘লালকার্ড’ দেখাবে শিক্ষার্থীরা

কক্সবাজারের রামুতে তুচ্ছ ঘটনায় খুন

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১২
  • ২৪১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

 
আনোয়ার হোছাইন, ঈদগাঁও/


কক্সবাজারের রামুতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় নুরুল ইসলাম (৫০) নামের এক ব্যক্তি খুন হয়েছে। এছাড়া মোঃ শফিক (২০) নামে নিহতের এক পুত্রও আহত হয়। বর্তমানে সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। নিহত ব্যক্তি রামু উপজেলার রশিদ নগর ইউনিয়নের পূর্ব কাদেমর পাড়া এলাকার হাজী কবির আহমদের পুত্র। ২৫ নভেম্বর দুপুর আড়াই টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পর জনতার সহয়তায় পুলিশ খুনের ঘটনায় জড়িত ৪ ঘাতককে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হল- আবদুল্লাহ হাফেজ প্রকাশ হান্টা মলই (৪৫), তার স্ত্রী ফরিদা ইয়াসমিন (৩৫), কন্যা মায়মুনা আকতার (১৭) ও মেয়ে জামাই নাসির উদ্দিন (২৫)। নিহতের পরিবার সুত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন সকালে শ্রমিকরা ক্ষেত থেকে পাকা ধান বাড়িতে আনার কাজ করছিল। বাড়িস্থ শামশুল আলমের ভিটা সংলগ্ন চলাচলের রাস্তা দিয়ে শ্রমিকরা ধান আনার সময় উক্ত সন্ত্রাসীরা বাঁধা দেয়। এ  নিয়ে বাকবিতন্ডার এক  পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা শফিককে মারধর করলে সে পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে পিতা ছুটে এসে ঘটনার কারণ জানতে চাইলে সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন রকমের ধারালো অস্ত্র দিয়ে নুরুল ইসলামের শরীরের বিভিন্ন অংশে উপুর্যপুরি আঘাত করে। এতে সে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। তাদের শোর চিৎকারে প্রতিবেশী লোকজন এগিয়ে আসলে ধাওয়া খেয়ে খুনিরা ঘরের ভিতরে ডুকে পড়ে। জনতা চারদিক ঘেরাও করে থানায় অবহিত করলে পুলিশ দ্রুত  ঘটনাস্থলে পৌছে ঘরের ভিতর থেকে খুনিদের গ্রেফতার করে। এর মধ্যে ফরিদাকে রহস্য জনক ভাবে আহত অবস্থায় পাওয়া যায়। এসময় পুলিশ ঘটনায় ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র, বেশ কিছু মোবাইলসেট ও ব্যাটারী সহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করে বলে জানিয়েছে। ঘটনার পর পর র‌্যাব, পুলিশসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং নিহতের লাশ উদ্ধার পূর্বক ময়না তদন্ত সম্পন্ন করে ২৬ নভেম্বর বিকাল ৩ টায় দাফন সম্পন্ন করে। নিহতের পরিবারের দাবি খুনি আবদুল্লাহ  মিয়ানমারের নাগরিক এবং উক্ত খুনের ঘটনাকে ভিন্ন  খাতে প্রবাহিত করতে ঘটনার পর পর জনতার ধাওয়া খেয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে নিজ স্ত্রীকে মারধর পূর্বক আহত করে নিহতের পরিবারের উপর চাপিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। ঘটনার দিন রাতে নিহতের পুত্র আবু বকর  বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃতদের বিবাদী করে থানায় খুনের মামলা দায়ের করেছে(রামু থানার মামলা নং- ৩০-২৫/১১/২০১২ইং) তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই সোহেলের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন প্রাথমিক ভাবে রাস্তা দিয়ে হাঁটাকে কেন্দ্র করে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে শুনেছেন এবং তদন্ত পূর্বক প্রকৃত কারণ উদঘাটন করা হবে জানান। স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবদুল করিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।  এ ঘটনাতে  এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে এবং এলাকাবাসী খুনিদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবি জানিয়েছে।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT