টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

এবারের ইজতেমায় মুসল্লিদের জন্য বাড়তি সুবিধা থাকছে…

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১২
  • ২২০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

তুরাগ তীরে জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠেয় মুসলিম বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত ইজতেমার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। দুই পর্বের এ আয়োজনে দেশি-বিদেশি মুসল্লি ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পর্যাপ্ত সদস্য মোতায়েনের পাশাপাশি থাকবে হেলিকপ্টার টহলের ব্যবস্থাও। অন্য বছরের চেয়ে এবার মুসল্লিদের জন্য পানি সরবরাহ বাড়বে দৈনিক আট লাখ গ্যালন। এ ছাড়া একটি দ্বিতল টয়লেট ও দুটি অজুখানার স্লট বাড়বে। মুসল্লিদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য সংযোগ সড়কের আশপাশে গড়ে ওঠা বস্তি, অবৈধ দোকান ও স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। তবে তা সাময়িকভাবে। আগামী ১১-১৩ জানুয়ারি প্রথম পর্ব ও ১৮-২০ জানুয়ারি দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা অনুষ্ঠিত হব
ইজতেমার সার্বিক নিরাপত্তাসহ প্রাসঙ্গিক বিষয়গুলো চূড়ান্ত করতে ১২ ডিসেম্বর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীরের সভাপতিত্বে একটি বৈঠক হয়েছে। সার্বিক প্রস্তুতি ও করণীয় ঠিক হয়েছে ওই বৈঠকেই। সভায় তাবলিগ জামাতের মুরব্বি মো. ইরশাদুল হক, টঙ্গী পেৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট মো. আজমত উল্লাহসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভার সদ্ধিান্ত অনুযায়ী, ইজতেমায় যাতায়াত সহজ করতে নারায়ণগঞ্জ, জামালপুর, আখাউড়া ও লাকসাম থেকে বিশেষ ট্রেন চলবে। ইজতেমা চলাকালে প্রগতি সরণি থেকে আশুলিয়া বাইপাস এবং গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত যান চলাচল বন্ধ থাকবে। মুসল্লিদের ইজতেমা স্থলে পৌঁছানোর জন্য শাটল সার্ভিস থাকবে। আর আখেরি মোনাজাতের দিন টঙ্গী রেলগেটের ইন্টারলক সিস্টেম তুলে দেওয়া হবে। ওই দিন যানজট নিরসনে ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কের টঙ্গী-ঢাকা অংশে যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, অন্যবারের চেয়ে এবছর ইজতেমার নিরাপত্তার বিষয়টিতে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। বিশেষ করে বিদেশি মেহমান ও ভিআইপিদের নিরাপত্তার বিষয়টি পাচ্ছে সর্বোচ্চ গুরুত্ব। এছাড়া মুসল্লীদের সার্বিক নিরাপত্তার পাশাপাশি ইজতেমাস্থলে যাতায়াত, থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাসহ অন্যান্য বিষয়েও প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। ইজতেমা চলাকালীন টঙ্গী এলাকার সিনেমা হল বন্ধ রাখার পাশাপাশি পোস্টার সরিয়ে ফেলার নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে গাজীপুরের জেলা প্রশাসককে।

সভার কার্যবিবরণী অনুযায়ী, প্রতিবছর জনস্বাস্থ্য প্রকেৌশল অধিদপ্তরের আটটি ও ওয়াসার তিনটি গভীর নলকূপ এবং একটি ওভারহেড ট্যাংকের মাধ্যমে ৭০ লাখ গ্যালন পানি সরবরাহ করা হতো। এবছর জনস্বাস্থ্য প্রকেৌশল অধিদপ্তর আরো একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করায় ৭৮ লাখ গ্যালন পানি সরবরাহ করা সম্ভব হবে। তুরাগ নদীর পানি ব্যবহারোপযোগী ও বিশুদ্ধকরণে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ সহায়তা দেবে। ইজতেমাস্থলে মুসলি্লদের যাতায়াত সহজ করতে বিদ্যমান ব্যবস্থার বাইরেও ঢাকা শহর রক্ষা বঁাধ থেকে তুরাগ নদীর ওপর আটটি পল্টুন ব্রিজ নির্মাণ করবে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ।

ইজতেমা চলাকালীন পুরো টঙ্গী এলাকায় যাতে লোডশেডিং না হয়, সেজন্য বিদু্যত্ বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। এর বাইরেও প্রয়োজনীয় সংখ্যক জেনারেটর থাকবে। বিদেশি মেহমানদের তাবুতে গ্যাস সরবরাহ করার জন্য জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। প্যান্ডেলের ভেতরে রান্না বা আগুন জ্বালানো যাবে না।

ইজতেমায় আগত মুসলি্লদের চিকিত্সার ব্যাপারেও সদ্ধিান্ত চূড়ান্ত করা হয়েছে। পর্যাপ্ত ওরস্যালাইন, ওষুধপত্র ও উপকরণসহ পুরুষ এবং মহিলা ডাক্তারের সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় সংখ্যক মেডিকেল টিম ২৪ ঘন্টা কাজ করবে। এর বাইরে র্যাব ও ডিএমপি (ঢাকা মহানগর পুলিশ) এর পক্ষ থেকে আলাদা মেডিকেল সেন্টার থাকবে।

ইজতেমায় আগত বিদেশি মেহমানদের সর্বোচ্চ ৩০ দিনের ভিসা দেওয়ার সদ্ধিান্ত দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। যেসব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের সরাসরি কূটনৈতিক যোগাযোগ নেই, সেসব দেশের মুসলি্লদের শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কোনরকম ফি ছাড়াই �অন এরাইভাল ভিসা\’ পাওয়ার সুবিধা থাকছে। এজন্য বিমানবন্দরে একটি বিশেষ সেল গঠন করা হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT