টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফ সমিতি ইউএই’র নতুন কমিটি গঠিতঃ ড. সালাম সভাপতি -শাহ জাহান সম্পাদক বৌ পেটানো ঠিক মনে করেন এখানকার ৮৩ শতাংশ নারী ইউপি চেয়ারম্যান হলেন তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু টেকনাফে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৭ পরিবারের আর্তনাদ: সওতুলহেরা সোসাইটির ত্রান বিতরণ করোনা: শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কঠোর বিধি, জনসমাবেশ সীমিত করার সুপারিশ হেফাজত মহাসচিব লাইফ সাপোর্টে জাদিমোরার রফিক ৫ কোটি টাকার আইসসহ গ্রেপ্তার মিয়ানমার থেকে দীর্ঘদিন ধরে গবাদিপশু আমদানি বন্ধ: বিপাকে করিডোর ব্যবসায়ীরা টেকনাফ পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন যাঁরা বাহারছরা ইউপি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন যাঁরা

উষ্ণ হয়ে উঠছে শীতকাল

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০১৬
  • ৪৯৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
টেকনাফ নিউজ ডেস্ক []

আবহাওয়া অধিদপ্তরের কাছে এই ডিসেম্বরে গত ২৬ দিনের যে তাপমাত্রার তথ্য রয়েছে, তার চিত্র অন্য বছরের শীতের সঙ্গেও বেমানান। সংস্থাটির তথ্য বলছে, গত ৫০ বছরের হিসাবে ডিসেম্বরে দেশে গড় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কম ছিল। এবারের ডিসেম্বরে গতকাল পর্যন্ত সেই তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়েছে।

শীতকালে তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় একদিকে বাসাবাড়িতে বিদ্যুতের ব্যবহার যেমন বাড়ছে, তেমনি মাঠে শীতকালীন ফসলও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর ও নরওয়েজিয়ান মেটেরিওলজিক্যাল ইনস্টিটিউট যৌথভাবে গত আগস্টে বাংলাদেশের জলবায়ু নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, গত ৫০ বছরে ডিসেম্বরের গড় তাপমাত্রা ১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে।

ওই গবেষণায় যুক্ত ছিলেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, শীতকালে তাপমাত্রা বৃদ্ধির ধরনের সঙ্গে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ার মিল রয়েছে। তবে এখানে দ্রুত নগরায়ণ, জলাভূমি কমে যাওয়া ও পরিবেশ ধ্বংস হওয়ার সম্পর্ক রয়েছে।

সংস্থা দুটির প্রতিবেদনে আরও দেখা গেছে, শীতকাল উষ্ণ হয়ে ওঠার পাশাপাশি এই সময় ঘন কুয়াশা দীর্ঘস্থায়ী হচ্ছে। মাদারীপুর, মোংলা, ভোলা, ফেনী ও সাতক্ষীরায় বৃষ্টিপাত গড়ে ২৫ মিলিমিটার কমেছে। আবার টেকনাফ-খেপুপাড়া ও কক্সবাজারে বৃষ্টিপাত গড়ে ২৫ মিলিমিটার বেড়েছে। বৃষ্টি বেড়ে যাওয়া এলাকায় রবিশস্যের জন্য বাড়তি সেচ দিতে হচ্ছে না।

গত নভেম্বরে বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদপ্তর দেশের জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক একটি প্রতিবেদন জাতিসংঘের কাছে পাঠিয়েছে। বাংলাদেশ সেন্টার ফর অ্যাডভান্স স্টাডিজ (বিসিএএস) ওই প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে। তাতেও দেখা গেছে, শীতকালে গড় তাপমাত্রা ১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো বেড়েছে। শীতের সময়কালও গড়ে কমেছে ছয় দিন।

এ ব্যাপারে বিসিএএসের জ্যেষ্ঠ ফেলো আবু সৈয়দ প্রথম আলোকে বলেন, সিলেট ও উত্তরাঞ্চলে শীতকাল ১০ থেকে ১২ দিন দেরিতে আসছে। শীতকালীন ফসলের অন্যতম প্রধান এলাকা উত্তরাঞ্চলের জন্য এটি বেশি ক্ষতিকর হবে। কেননা, সেখানে এই সময়ে গম, আলু ও সবজি উৎপাদন হয়।

কৃষি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শীতকাল উষ্ণ হয়ে ওঠায় শীতকালীন বেশ কিছু সবজির উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। বিশেষ করে শীত সংবেদনশীল সবজিগুলোর মধ্যে আলু, গম, গাজর, স্ট্রবেরি, ব্রোকলি, শালগম, মুলার স্বাদ ও ফলন কমে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা করছেন তাঁরা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তোফাজ্জল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, সম্প্রতি স্ট্রবেরি, ব্রোকলিসহ বেশ কিছু সবজি এ দেশে সফলভাবে চাষ করা হচ্ছে। এই ফসলগুলো শীত যত বাড়তে, তত ভালো ফলন দেবে। শীত কমে গেলে ফলনও কমবে। যেভাবে শীতকালে তাপমাত্রা বাড়ছে তাতে শীতকালীন সবজি ব্যাপকভাবে হুমকিতে পড়তে পারে।

শীতকালে তাপমাত্রা ও কুয়াশার পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় বিভিন্ন শীতকালীন সবজিতে ব্যাকটেরিয়াজনিত রোগের পরিমাণও বাড়ছে। ফলে ফসলে ব্যাকটেরিয়ানাশকের ব্যবহারও বাড়ছে। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের ২০১৫ সালের গবেষণায় দেখা গেছে, দেশে বিষমুক্ত ফসলের চাষ বেড়ে যাওয়ায় কীটনাশকের ব্যবহার কমে যাচ্ছে। কিন্তু ব্যাকটেরিয়ানাশকের ব্যবহার বাড়ছে।

এ ব্যাপারে আবহাওয়া অধিদপ্তরের কৃষি আবহাওয়া বিভাগের আবহাওয়াবিদ শামিম আহসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘প্রায় প্রতিবছর আমরা বাংলাদেশ-ভারতসহ বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে একটি দীর্ঘ কুয়াশা দেখতে পাচ্ছি। বর্তমানে কুয়াশাটি ভারতের ওপর দিয়ে বাংলাদেশের দিকে আসছে। দু-এক দিনের মধ্যে তা বাংলাদেশে প্রবেশ করবে।’ কুয়াশা থেকে ফসল রক্ষা করতে হলে কৃষকদের নিয়মিত কৃষি আবহাওয়া বুলেটিন অনুসরণ করার পরামর্শ দেন এই আবহাওয়াবিদ।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT