টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

উখিয়া থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশের ঘুষ ও চাঁদা বাণিজ্য

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ৪ আগস্ট, ২০১৩
  • ১৩৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

Ukhiya cox Picবিশেষ প্রতিবেদক :::::আগের ওসিরা এখানে কি করেছে সবাই জানে। ওনারা সাধারণ লোকজনের কাছে ছুফি সাজলেও মোটা দাগের টাকা ছাড়া কাজ করেনি। কিন্তু আমি সে পথে নেই। উখিয়ার গরীব লোকজন যা দেয় তা নিই। তা নিলে পাবলিক বিশ্বাস করেনা তাদের কাজ করব। তাছাড়া আমি প্রধানমন্ত্রীর এলাকা গোপালগঞ্জের কাশিয়ানির লোক হওয়ায় সবকিছু ভেবে চিন্তে কাজ করতে হয়। কথাগুলো বলেছেন কক্সবাজারের উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: গিয়াস উদ্দিন মিয়া।  রামু থানার ওসি থাকাকালে সাংবাদিক নোমানকে পিঠিয়ে ও মিথ্যা মামলা দিয়ে বিকর্ত জন্ম দেয়া ওসি গিয়াস উদ্দিন মিয়া হাইকোর্টের রায়ের মাধ্যমে উখিয়া থানায় যোগদানের পর থেকে চাদাঁবাজি ও ঘুষ বানিজ্যে নেমেছেন। টাকা ছাড়া উখিয়া থানায় মামলা রেকর্ড হয়না বলেই চলে।
সম্প্রতি উখিয়া থানার ওসির অফিস কক্ষে এক দরিদ্র মহিলা ফরিয়াদির মেয়ে সংক্রান্ত অভিযোগ পত্র নিয়ে জনৈক দারোগা (এএসআই) ওসির নিকট থেকে অভিযোগ পত্র তদন্তকারী কর্মকর্তাকে হাওলা করিয়ে নগদ ৫শ টাকা দেন। দারোগা চলে যাওয়ার পর ওসি গিয়াস উদ্দিন এ প্রতিনিধির নিকট উপরোক্ত অভিমত ব্যক্ত করেন। গত ১৯ জুলাই উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের ডিগলিয়াপালং গ্রামে দুই নিকট আত্মীয়ের মাঝে জায়গা জমি সংক্রান্ত বিরোধ দেখা দিলে এক পক্ষ খালেদ সাগরের কাছ থেকে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা লিপিবদ্ধ করার নামে ৫ হাজার টাকা নেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওসি প্রতিপক্ষের কাছ থেকে আরো বেশি টাকা নিয়ে মামলা লিপিবদ্ধ করেনি বলে খালেদ সাগর অভিযোগ করে জানান। গত ২২ জুলাই উখিয়ার রতœাপালং ইউনিয়নের দুই সতিনের ছেলেমেয়েদের জমি সংক্রান্ত বিষয়ে এক সতিন ও ছেলেরা অপর সতিনের মেয়ে ও স্বামীকে মারধর করে অপহরণ করার চেষ্টা চালায়। এতে স্বামী জীন কান্তি বড়–য়া সহ তিন জন আহত হয়। ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মিমাংশার জন্য গণ্যমান্য ব্যক্তি ও রাজনৈতিক নেতারা চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় ওসি’র একগুঁয়েমির কারণে। অবশেষে ২৩ জুলাই ৮ হাজার টাকার বিনিময়ে ওসি মামলা লিপিবদ্ধ করেন।
হলদিয়াপালং ইউনিয়নের মরিচ্যা এলাকার জমিলা বেগম মুন্নি জায়গা জমি নিয়ে আদালতে মামলা করলে আদালত থানাকে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন প্রেরণের নির্দেশ দেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসআই জয়নাল ওসির ইন্দনে বাদী মুন্নির কাছ থেকে ৮ হাজার টাকা নেওয়ার পরেও প্রতিপক্ষের কাছ থেকে অতিরিক্ত ঘুষ নিয়ে প্রতিবেদনটি আমার বিরুদ্ধে আদালতে প্রেরণ করে বলে মুন্নি জানান। গত ১৬ জুলাই উখিয়া থানার ক্যাশিয়ার নামধারী জনৈক পুলিশ কনষ্টেবল সরওয়ার স্থানীয় কয়েকজন সন্ত্রাসী সহ রংপুরের পীরগাছার গরু ব্যবসায়ী মোশারফ হোসেনকে উখিয়ার কোটবাজার থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। রাত ৯টার দিকে উক্ত গরু ব্যবসায়ীর কাছ থেকে নগদ ৩ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে উখিয়ার পালং গার্ডেন নামক এলাকায় ছেড়ে দেয়। এ ঘটনায় উক্ত ব্যবসায়ী পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ করলে উখিয়া থানার ওসি ও পরিদর্শক (তদন্ত) বখতেয়ার উদ্দিন চৌধুরী সহ সকলে উক্ত ছিনতাইকারী পুলিশ কনষ্টেবলকে রক্ষায় মরিয়া হয়ে উঠে।
গত ২৪ জুলাই ছিনতাইকারী দলের সদস্য উখিয়ার হিজলিয়া এলাকার জনৈক আব্দুল হাকিমকে (২৮) থানার এসআই মুহিত সোনারপাড়া থেকে আটক করে। নির্দিষ্ট অভিযোগে তাকে জেলে প্রেরণ না করে পুলিশ যোগসাজসে ৫৪ ধারায় চালান দেয়। গত ১৮ জুলাই উখিয়ার পূর্ব ডিগলিয়া গ্রামে জায়গা জমি সংক্রান্ত সংঘর্ষের ঘটনায় আদালতের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও বাদী আবু তাহেরের মামলা থানার ওসি প্রতিপক্ষের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে উল্টো বাদীর বিরুদ্ধে মামলা লিপিবদ্ধ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আদালত কেন নির্দেশ থাকা স্বত্ত্বেও তাদের আবেদন মামলা হিসাবে রেকর্ড করা হয়নি তা আজ রবিবার ২৮ জুলাই আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে উখিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও উখিয়া থানায় উচ্চ আদালতের বারন থাকা সত্ত্বেও থানার অফিসারগণ যে কোন অভিযোগ তদন্তের রীতিমত থানায় শালিশ বাণিজ্য চালাচ্ছে। থাকার কর্মকর্তারা নিজ সুবিধার্থে কথিত শালিসে বলে দেয় অমুখ তমুককে শালিশের দিন দালাল হিসাবে আনার জন্য। ওসি থেকে উপসহকারী পুলিশ পরিদর্শক পর্যন্ত সকলে সরকারী চাকরীবিধি ও নিয়মনীতি লঙ্ঘন করে নিজস্ব দালাল সৃষ্টি করে সুবিধাভোগী বলয় তৈরী করে সাধারণ নিরীহ ফরিয়াদিদের প্রতিনিয়ত হয়রানি করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এভাবে প্রতিনিয়ত হয়রানির শিকার হচ্ছে সাধারণ ন্যায় বিচার প্রত্যাশী নিরীহ ফরিয়াদিরা। অসংখ্য নিরীহ লোকজন উখিয়া থানা পুলিশের বর্তমান শালিশ বাণিজ্য, ঘুষ, দুর্নীতি থেকে রেহাই দিয়ে থানার শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আহ্বান জানিয়েছেন।
উখিয়া নিউজ ডটকম রিপোর্ট
উখিয়া

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT