টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
রোহিঙ্গাদের এনআইডি কেলেঙ্কারি : নির্বাচন কমিশনের পরিচালকের বিরুদ্ধে দুপুরে মামলা, বিকালে দুদক কর্মকর্তা বদলি সড়কের কাজ শেষ হতে না হতেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং! আপনি বুদ্ধিমান কি না জেনে নিন ৫ লক্ষণে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি ভোটার: নিবন্ধিত রোহিঙ্গাও ভোটার! ইসি পরিচালকসহ ১১ জন আসামি হ’ত্যার পর মায়ের মাংস খায় ছেলে ব্যাংকে লেনদেন এখন সাড়ে ৩টা পর্যন্ত আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন বাড়ল মডেল মসজিদগুলোয় যোগ্য আলেম নিয়োগের পরামর্শ র্যাবের জালে ধরা পড়লেন টেকনাফ সাংবাদিক ফোরামের সদস্য ও ইয়াবা কারবারি বিপুল পরিমাণ টাকা ও ইয়াবা উদ্ধার রোহিঙ্গাদের তথ্য মিয়ানমারে পাচার করছে জাতিসংঘ: এইচআরডব্লিউ

উখিয়ায় মাদ্রাসার দেয়াল নির্মাণকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১১৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক:::: উখিয়ার জালিয়াপালং মোহাম্মদ শফির বিলের এবতেদায়ী মাদ্রাসার দেয়াল নির্মাণের জন্য উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের অনুদানের টাকা আতœসাত ও চুরি করে ব্যক্তি মালিকানাধিন কঙ্কর কাজে লাগানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনার প্রতিবাদ করায় ওই মাদ্রাসার দুর্নীতিবাজ কয়েকজন সদস্য আবুল মঞ্জুর নামের এক যুবককে মার ধর করে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়াগেছে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করতে থাকায় যে কোন সময় আরো অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। বিষয়টি উপজেলা চেয়াম্যান এড.শাহজালাল চৌধুরী, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট মহলে জানানো হলেও এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত কোন সুরাহা হয়নি বলে জানাগেছে। স্থানীয় এলাকাবাসী বিষয়টি উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এড. শাহজালাল চৌধুরীর মধ্যস্থতায় সমাধানের দাবী জানিয়েছেন। আহত যুবক আবুল মঞ্জুর ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, উখিয়ার জালিয়াপালং ইউপির মোহাম্মদ শফির বিলের এবতেদায়ী মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন মরহুম আলহাজ্ব এখলাছুর রহমান। তাঁর ইন্তেকালের আগে ওই মাদ্রাসার জন্য তিনি এক একর অতিমূল্যবান জমি ওয়াকফ করে গেছেন। যে জমির দাম আজকের বাজার মূল্যে প্রায় তিন কোটি টাকা। সেই সূত্রে ওই মাদ্রাসার পরিচালক বা সভাপতি ছিলেন মরহুম আলহাজ্ব একলাছুর রহমানের সুযোগ্য বড় সন্তান হারুনুর রশীদ। মাদ্রাসা কমিটির কয়েকজন সদস্য যথাক্রমে সাহাব উদ্দিন, আজিজুর রহমানের সাথে আবু ছিদ্দিক, বেলাল উদ্দিন, মঞ্জুর আলম, শাহজাহান ও শাহাব উদ্দিন মিলে মাদ্রাসার নামে বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী দপ্তর, সংস্থা ও ব্যক্তি থেকে মাদ্রাসার বিভিন্ন কাজের জন্য লাখ লাখ টাকার অনুদান সংগ্রহ করে নিজেরা ভাগ বাটোয়ারা করে নিজেরা আতœসাত করার অবিযোগ পাওয়া গেছে। এনিয়ে তাদের সাথে মাদ্রাসা পরিচালক হারুনুর রশীদের সাথে প্রায় সময় বাকবিত-ার  ঘটনা ঘটতো বলেও জানাগেছে। সম্প্রতি উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এড. শাহজালাল চৌধুরী ওই মাদ্রাসার একটি দেয়াল নির্মানের জন্য ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেন। একইভাবে স্থানীয় চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন এবং মেম্বার কবির আহমদ পঁিচশ হাজার টাকা করে আরো ৫০ হাজার টাকা আনুদান দেন। কিন্তু মাদ্রাসা কমিটির সদস্যদের ওই সি-িকেট দেয়াল নির্মাণ না করে ওই টাকা তারা নিজেরা ভাগ বাটোয়ারা করে আতœসাত করে। পাশপাশি তারা দক্ষিণ মোহাম্মদ শফির বিলের যুবক মঞ্জুর আলমের নিজের বাড়ির জন্য জমা করা সাতশত ফুট কঙ্কর চুরি করে নিয়ে আসে এবং ওই চুরি করা কঙ্কর দিয়ে মাদ্রাসার দেয়াল নির্মাণ কাজে লাগানো হয়। এই দু’টি বিসয়ে প্রতিবাদ করায় মাদ্রাসার টাকা আতœসাতকারী সিন্ডিকেট সদস্য যথাক্রমে আজিজুল ইসলাম, আবু ছিদ্দিক, নূরুল ইসলাম, মঞ্জুর আলম, বেলাল উদ্দিন, সেলিম ও শামসুদ্দিন মঞ্জুর আলম নামের ওই যুবককে মারধর করে আহত করে। এসময় মঞ্জুর আলম মারাতœকভাবে আহত হয়। বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হলেও এপর্যন্ত এর কোন সুরাহা হয়নি বলে জানাগেছে। এভাবে মাদ্রাসার অনুদানের আরো অনেক টাকা ওই সিন্ডিকেট সদস্যরা আতœসাত করে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এভাবে মাদ্রাসাটি এখন যেন তাদের আয় ইনকামের জন্য ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে। এ কারণে মাদ্রাসাটির কোন উন্য়ন হচ্ছেন বলে জানান এলাকাবাসী।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT