টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
মডেল মসজিদগুলোয় যোগ্য আলেম নিয়োগের পরামর্শ র্যাবের জালে ধরা পড়লেন টেকনাফ সাংবাদিক ফোরামের সদস্য ও ইয়াবা কারবারি বিপুল পরিমাণ টাকা ও ইয়াবা উদ্ধার রোহিঙ্গাদের তথ্য মিয়ানমারে পাচার করছে জাতিসংঘ: এইচআরডব্লিউ প্রশাসনে তিন লাখ ৮০ হাজার পদ শূন্য গোদারবিলের জামালিদা ও নাইট্যংপাড়ার ফয়েজ ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ গ্রেপ্তার পরীমনির কান্না অথবা নিখোঁজ ইসলামি বক্তা এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষার সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি দেখে : শিক্ষামন্ত্রী টেকনাফে পাহাড় ধ্বসে ৩৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যুর ট্রাজেডি আজ পড়ে আছে বিলাসবহুল বাড়ি,নেই দাবিদার শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ লম্বাবিলে বাস—সিএনজির মুখোমুখী সংঘর্ষে রোহিঙ্গাসহ ২ জন নিহত

উখিয়ায় প্রধানমন্ত্রী আগমন উপলঃে টেকনাফ এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় জাতীয় করণের দাবী

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩১ আগস্ট, ২০১৩
  • ১৭৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

মোঃ আশেক উলাহ ফারুকী, টেকনাফঃ   কক্সবাজার জেলার- ৪ সংসদীয় আসন উখিয়া টেকনাফ নির্বাচনী এলাকা প্রাকৃতিক সম্পদের ভরপুর। জেলার অন্যান্য নিবার্চনী আসনের চেয়ে উখিয়া টেকনাফ ভৌগলিক দিক থেকে শুরুত্বের দাবীদার। টেকনাফ বাংলাদেশের সর্বদনি সীমান্ত উপজেলা এবং এর পরিচয় দেশ-বিদেশে খ্যাত। এখানে মৌলক সমস্যার মধ্যে রয়েছে শিা। এখানে শিার হার মাত্র ১৫% শতাংশ। তৎমধ্যে নারী শিা একেবারে অবহেলিত। ১৯৮৫ সালে তৎকালীন এরশাদ সরকারের আমলে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসনের প্রাণ কেন্দ্রে অত্যান্ত মনোরম পরিবেশে টেকনাফ এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। এ প্রতিষ্টানের স্থপতি উখিয়া টেকনাফের সরকার দলীয় এমপি আলহাজ্ব আবদুর রহমান বদির প্রয়াত পিতা এজাহার মিয়া কোম্পানী। তার নামানুসারে এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি নামকবন করা হয়। প্রায় দেড় একর জমির উপর এ বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়। প্রতিষ্ঠালগ্ম হতে ৩৫ জন ছাত্রী নিয়ে এ প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুর হয়। এভাবে হাঁটি হাঁটি পা পা করে বর্তমানে পুর্ণাঙ্গ বিদ্যালয় হিসাবে রূপ নিয়েছে। বর্তমানে ছাত্রীর সংখ্যা ৫৩০ জন। বলতে গেলে নারী শিার জন্য একমাত্র অবদান রেখে আসছে, টেকনাফ এজাহার বালিকা উচচ বিদ্যালয়টি। প্রতি শিাবর্ষে এস,এস,সি ও জে,এসসি সার্টিফিকেট পরীায় শিার্থীরা কৃতিত্বের সাথে স্বার বহন করে আসছে। জেলার অন্যান্য উপজেলায় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় জাতীয়করণের আওতায় নিয়ে আসলেও উখিয়া টেকনাফ ও রামু উপজেলায় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সরকারী করনের আওতায় আনা হয়নি। যার প্রেেিত মেধাবী গরীব শিার্থীরা জেলা শহরে গিয়ে সরকারী প্রতিষ্টানে তাদের মেধার বিকাশ ঘটাতে পারেনা। যেহেতু জেলার অন্যান্য উপজেলার চেয়ে শিার হার সবচেয়ে নিম্ন টেকনাফ সীমান্ত উপজেলা। সেহেতু নারী শিার স্বার্থে এবং মা’ কে শিতি করতে টেকনাফের একমাত্র এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি জাতীয়করণ নিতান্ত প্রয়োজন বলে সীমান্ত এলাকার শিাবিদ ও সচেতন মহলেরা মনে করেন। আগামী ৩ রা সেপ্টম্বর মহাজোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উখিয়ায় আসছেন জেনে টেকনাফবাসীর মধ্যে আনন্দের জোয়ার বইছে। এ সুযোগে টেকনাফ সীমান্ত উপজেলার সর্বস্থরের জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উখিয়ায় আগমন উপলে তার দৃষ্টি কামনা করে নারী শিার দিক থেকে পিছিয়ে পড়া একমাত্র টেকনাফ এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি জাতীয় করণের এমন প্রত্যাশা সকলের। এদিকে গত ৩১ সেপ্টম্বর টেকনাফ এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিকিা শিউলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে শিক মিলনায়তনে উখিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগম উপলঃে এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় জাতীয়করণ সংক্রান্ত বিষয়ে শিক ও শিকিাদের নিয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সভার সভাপতি প্রধান শিকিা শিউলী চৌধুরীর, বক্তব্য রাখেন- সহকারী প্রধান শিক শব্বির আহমদ, সাহকারী শিক মিসেস জাহেরা বেগম, নুর জাহান বেগম, আজিজুলহক, বাবু লীহরিদে, দিলনেছা বেগম, শিখারানী পাল, সিদুল কান্তিদে, আবদুল মুজিব, জায়নাল আবেদীন। অনুষ্ঠান পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনায় ছিলেন সহকারী শিক মোঃ আশেকউল্লাহ ফারুকী। বক্তব্যে শিকেরা বলেন, টেকনাফের নারী শিার একমাত্র প্রতিক এজাহার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি সরকারীকরণের দেশ নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি করজোড়ে দৃষ্টি আকর্ষন পূর্বক জোরদারী জানান।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT