টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে সিএনজি চালক খুন তালিকা দিন, আমি তাঁদের নিয়ে জেলে চলে যাব: একজন পুলিশও পাঠাতে হবে না: বাবুনগরী টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উদ্যোগে মানসিক রোগিদের মধ্যে খাবার বিতরণ বাংলাদেশে নারীর গড় আয়ু ৭৫, পুরুষের ৭১: ইউএনএফপিএ ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার দেশের ৮০ ভাগ পুরুষ স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার’ এ বছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা, সর্বোচ্চ ২৩১০ হেফাজতের বর্তমান কমিটি ভেঙে দিতে পারে: মামলায় গ্রেফতার ৪৭০ জন মৃত্যু রহস্য : তিমি দুটি স্বামী – স্ত্রী : শোকে স্ত্রী তিমির আত্মহত্যাঃ ধারণা বিজ্ঞানীর দেশে নতুন করে দরিদ্র হয়েছে ২ কোটি ৪৫ লাখ মানুষ

উখিয়ার বরের বাপ সইতে পারলেও কনের বাপ সইতে পারছে না

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৩
  • ১০১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

উখিয়ার সংবাদ::::উখিয়া উপজেলার সোনারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দুই শিার্থীর পিতা মাতা-মিলে অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছেলে-মেয়েদের জোরপূর্বক বাল্য বিবাহ দেওয়ার তোর জোর চলছে বলে এক চাঞ্চল্যকর খবর পাওয়া গেছে। ঘটনার বিবরণ জানা যায় গত ১০জুলাই মোহাম্মদ বদিউল আলমের ছেলে নাজির হোসাইন (১৭) জে.এস.সি. অকৃতকার্য হয় স্থানীয় সৈয়দ কাসেমের মেয়ে সায়েরা আক্তার লাকী (১৩)কে নিয়ে অটোরিক্সা যোগে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি দেওয়ার সময় রেজু ব্রীজ সংলগ্ন বিশেষ চেকপোষ্টে ধরা পড়ে। কর্তব্যরত পুলিশ স্থানীয় সোনারপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক সৈয়দ কাসেম জিম্মায় দুজনকে ছেড়ে দেন। তিনি স্থানীয় ভাবে সমাধান করার জন্য অভিভাবকদের নিকট তাদের পোষ্যকে অর্পন করেন। বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে সায়েরা আক্তার লাকীর পিতা-মাতা মেয়েকে বিয়ে ছাড়া বাড়ী ফেরৎ দিতে অস্বীকৃতি জানালে সোনারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিকের নিকট স্থানীয় জনগণ বিচারের জন্য সমর্পন করেন। উক্ত বিদ্যালয়ের অধ্যায়নরত ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সায়েরার অভিভাবক বিয়ে ছাড়া কোন বিচার মানবে না বলে সাফ সাফ জানিয়ে দেন। এ বিষয়ে প্রধান শিক জনাব শফিউল করিম সাহেবের নিকট মোবাইল ফোনে (০১৮১৮৯৮৪৪৫৮) যোগাযোগ করা হলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং গত ১৩ জুলাই তার অফিসে বিচার কার্য চলাকালে সায়েরার পিতা-মাতার দাবীর পরিপ্রেেিত আগামী ২০ জুলাই পুনরায় বিচারে দিন ধার্য্য করা হয় বলে জানা গেছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের হৈমন্তি গল্পের বৈপরিত্যে বলা যায় বরের বাপ সইতে পারলেও কনের বাপ সইতে পারছে না।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT