টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ঈদ ও পর্যটন মৌসুমকে সামনে রেখে টেকনাফের বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্ট থেকে আসছে মাদক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৩
  • ১০৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

এটিএন ফায়সাল,হ্নীলা::::Teknaf Pic 13-10-13ছোট বড় চিরুনী অভিযানসহ গড ফাদারের আটক আতংকের খবরে ইয়াবার লেনদেন কমলেও ঈদ এবং পর্যটন মৌসুমকে সামনে রেখে বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে আসছে ফেন্সিডিল, গাঁজা, হিরোইন, বিয়ারসহ হরেক রকম বিভিন্ন ব্রান্ডের মাদক।  অন্যান্য মৌসুমের তুলনায় ঈদ ও পর্যটন মৌসুমে মাদকের চাহিদা তুলনামূলকভাবে বেশী। তাই মাদক ব্যবসায়ীরা ইয়াবার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরণের মাদক আনতে শুরু করেছে।
তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়- ফেন্সিডিল ও গাঁজা ভারত হয়ে বাংলাদেশের কুমিল্লা বুড়িচং সীমান্ত হতে প্রবেশ করে বিভিন্ন চোরাই পথ দিয়ে রোহিঙ্গাকে বাহন হিসেবে ব্যবহার করে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে। চাহিদা বেশী থাকায় টেকনাফে প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলিয়ে দেখিয়ে মরিচ্যা, হোয়াইক্যং ও দমদমিয়া বিজিবি চেকপোষ্টকে এড়িয়ে টেকনাফে প্রবেশ করছে। আর কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট নিরাপত্তার জন্য এ ব্যবসা মহিলাদের মাধ্যমে দেদারসে চালিয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে মিয়ানমার থেকে টেকনাফের বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে বিয়ার (আন্দামান গোল্ড, বার পার্সেন্ট)রাম সহ নানা রকম নিষিদ্ধ মদ আসছে। এ মদ গুলো টেকনাফ অঞ্চল থেকে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ায় এ দেশের যুব সমাজ ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে উপনীত হচ্ছে বলে বিজ্ঞ মহল মনে করেন।
গত ১১ অক্টোবর শুক্রবার রাত ১০ টায় কোস্টগার্ড টেকনাফ ষ্টেশন কমান্ডার লেঃ দেওয়ান রফিকুল আওয়াল এর নেতৃত্বে পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকায় সিঙ্গার- শোরুমের পাশে আলমের (প্রকাশ জমিদার আলম) মাদক সম্পটে এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় ৫৪ পিচ ইয়াবা, ১২ বোতল ফেন্সিডিল ও ২শ গ্রাম গাঁজা সহ মাদক বিক্রেতা পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকার নুরুল আলমের স্ত্রী রেজিয়া (৫০), মৃত মোঃ আলমের ছেলে মোঃ ইনু (১৮) ও ক্রেতা কক্সবাজার গোদার পাড়ার মৃত মোঃ আলমের পুত্র মোঃ অলি উল্লাহ (৩৫) কে আটক করা হয়। ধৃতদের মাদকদ্রব্য আইনে মামলা রুজু করে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়। তাছাড়া ১২ অক্টোবর রাত ৮টায় ৩০ ক্যান আন্দামান গোল্ড বিয়ার ও ৮ বোল মিয়ানমারের রাম উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এ সময় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।
কোস্টগার্ড টেকনাফ ষ্টেশন কমান্ডার লে. দেওয়ান রফিকুল আউয়াল জানান- আমাদের অভিযান সার্বণিক চলতে থাকবে। ঈদ, পূজা ও পর্যটন মৌসুমকে কেন্দ্র করে আমরা চোরাচালান ও অবৈধ বিয়ার, ইয়াবা ও নেশাজাত দ্রব্য মিয়ানমার থেকে আসা বন্ধের জন্য সার্বণিক অভিযান অব্যাহত রেখেছি। ####

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT