টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ঈদের মার্কেটে বখাটেদের উৎপাত

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৩
  • ১৪৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

CSC_0183-

কক্সবাজার রিপোর্ট: সন্ধ্যা হলেই বখাটেদের নগরীতে পরিণত হচ্ছে কক্সবাজার শহর। বখাটেদের উৎপাতে অতিষ্ট হয়ে পড়েছে ঈদের কেনাকাটার জন্য মার্কেটে যাওয়া নারী ও তরুণীরা। তাদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেনা তরুণী থেকে শুরু করে ৫০ বছরের মধ্য বয়সী নারীরাও। প্রতিদিন বখাটেদের দ্বারা লাঞ্চিত হচ্ছে অনেক নারী। ঈদের কেনা কাটা করতে গিয়ে বখাটেদের উৎপাতের কথা লজ্জায় কাউকে বলতেও পারছেন না। ফলে দিনদিন আরো ব্যাপরোয়া হয়ে উঠছে এসব বখাটেরা। ঈদ মার্কেটে অল্প সংখ্যক পুলিশ মোতায়ন করা হলেও তা কোন কাজে আসছেনা। উল্টো মার্কেটে আগত বখাটেদের সাথে পুলিশের দহরম-মহরম সম্পর্ক দেখা যাচ্ছে। ঈদ উপলক্ষে বছরের এ সময়টিতেই নারীরা সবচেয়ে বেশি কেনাকাটার জন্য মার্কেটে আসে। এ সুযোগটিকে কাজে লাগিয়ে শহরের কিছু চিহ্নিত পয়েন্টে বখাটেদের উৎপাত বেড়ে গেছে। শহরের মার্কেটগুলোর সামনে ও  মহিলাদের টেইলার্সের সামনে ও কয়েকেটি মোড়ে বখাটেদের উৎপাত সবচেয়ে বেশি দেখা যাচ্ছে। এ ছাড়াও বেআইনী মটর সাইকেল নিয়ে এক শ্রেণির উশৃংখল যুবক কেনাকাটা করতে আসা নারীদের পিছু নিয়ে উত্ত্যক্ত করছে।  বখাটেরা ঐ সব চিহ্নিত স্পট গুলোর সামনে দাঁড়িয়ে নারীদেরকে উত্ত্যক্ত করার পাশাপাশি লাঞ্চিত ও করছে। বখাটে তরুণরা  মার্কেটে কেনাকাটা করতে আসা নারী ও তরুণীদের থামিয়ে জোর করে নিজেদের মোবাইল নাম্বার ধরিয়ে দি্েছ। এ সময় কোন নারী বা তরুণী বখাটের নাম্বার নিতে না চাইলে তারা সেই নারীর পিছু নিয়ে বাড়ি পর্যন্ত চলে যাচ্ছে। শহরের পানবাজার রোডের রাজস্থান, ফিরোজা শপিং সেন্টার, সমবায় সুপার মার্কেট, এ সালাম মার্কেট, ফজল মার্কেট, সি কুইন মার্কেট, কোরাল রিফ প্লাজা, বার্মিজ মার্কেট এলাকার বাঙ্গালী বাবু ও আবু সেন্টার এলাকায় বখাটেদের উৎপাত সবচেয়ে বেশি দেখা যাচ্ছে। এ ছাড়াও শহরের বৌদ্ধ মন্দির সড়ক, টেকপাড়া, তারাবনিয়ারছড়া ও বাহারছড়ায় কয়েকেটি মেয়েদের প্রসিদ্ধ টেইলার্সের সামনে বখাটেদের উৎপাত অনেক বেড়ে গেছে। পানবাজার সড়কের একটি অভিজাত দোকানের কর্মকর্তা জানিয়েছেন ১০ রোজার পর থেকে মার্কেটে বখাটেদেরে উৎপাত অনেক বেড়ে গেছে। বখাটেরা মার্কেটে আসা মেয়েদের পিছুনিয়ে দোকানের ভেতর ঢুকে যাচ্ছে। বখাটেদের কারনে ব্যাবসায় অনেক সমস্যা হচ্ছে। ফিরোজা শপিংয়ের এক ব্যাবসায়ী জানিয়েছেন, ঈদের কেনা কাটা শুরুর পর থেকে মটর সাইকেল করে বিভিন্ন বয়সী তরুণেরা মার্কেটের পার্কিংয়ের জায়গা দখল করে বসে থাকে। এর ফলে মার্কেটের সামনে ভয়াবহ যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। এতে করে ক্রেতাদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। মটরসাইকেলে করে বখাটেদের উৎপাতের একই অভিযোগ করেছেন, সমবায় সুপার মার্কেট, এ সালাম মার্কেট ও নিউ মার্কেটের ব্যাবসায়ীরা। এ সালাম মার্কেটে শপিংয়ে আসা এক তরুণি অভিযোগ করেছেন, মার্কেটে ২টি ছেলে তার কাছে মোবাইল নাম্বার চায়। কিন্তু সে মোবাইল নাম্বার নাদিলে ছেলে দুটো মটর সাইকেল করে তার পিছু নেয়। বাঙ্গালী বাবুতে ছোট বোনকে নিয়ে  ঈদের শপিংয়ে আসা এক তরুণী জানিয়েছেন , বাঙ্গালী বাবুতে ঢুুকার দুটি প্রবেশ পথই বখাটেরা বসে আছে। বখাটেদের মাঝদিয়ে মার্কেটে ঢুকতে অনেক হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। তবে কোন ধরনের হয়রানি তা বলতে তিনি রাজি হননি। বৌদ্ধ মন্দির রোডে টেইলার্সে মেয়েকে নিয়ে  কাপড় সেলাই করতে আসা এক মহিলা জানিয়েছেন, বখাটেরা টেইলার্সের সামনে দাঁড়িয়ে তাকে ও তার মেয়েকে দীর্ঘ সময় বিভিন্ন ধরনের সাউন্ড দিয়েছেন। এ বয়সে এ সব সাউন্ড শুনে তিনি বিব্রত বোধ করে কাপড় সেলাই না করেই  বাড়িতে চলে এসেছেন। ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, আইন শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতা কমে যাওয়ায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বখাটেরা। আবার প্রায় সময় আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের সাথেও এ সব বখাটেদের দহরম মহরম ভাব দেখা যায়। ফলে এ সব বখাটেদের অত্যাচার নিরবে সহ্য করতে হচ্ছে। সন্ধ্যার পর ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হলে এ সব বখাটের উৎপাত অনেক কমে যেতো বলে মত দিয়েছেন সচেতন মহল। এ দিকে সন্ধ্যার পর মোবাইল কোর্ট পরিচালনার ব্যাপারে কিছু সমস্যা রয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এক কর্মকর্তা। তবে এ সমস্যা নিরসন করে দু এক দিনের মধ্যে সন্ধ্যার পর বখাটেদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে বলে জানিয়েছেন ওই কর্মকর্তা।

– See more at: http://www.dainikcoxsbazar.net/?p=3116#sthash.B3MFdgcs.dpuf

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT