টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ মাদক কারবারি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত সাংবাদিক আব্দুর রহমানের উদ্দেশ্যে কিছু কথা! ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা মোট জনসংখ্যার চেয়েও ১ কোটি বেশি জন্ম নিবন্ধন! বাড়তি নিবন্ধনকারীরা কারা?  বাহারছড়া শামলাপুর নয়াপাড়া গ্রামের “হাইসাওয়া” প্রকল্পের মাধ্যমে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও বার্তা প্রদান প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের

ঈদগাঁওয়ের সব খবর…

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৩
  • ১৬৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

injury-13ঈদগাঁওতে  প্রতিমা আনতে গিয়ে  ট্রাক ড্রাইভারকে বেধড়ক পিটিয়েছে দুবৃর্ত্তরা

এস. এম. তারেক, ঈদগাঁও, কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে প্রতিমা আনতে গিয়ে ট্রাক ঘোরানোকে কেন্দ্র করে একদল দুবৃর্ত্ত   চালককে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে। ১৪ অক্টোবর বেলা সাড়ে বারোটার দিকে ঈদগাঁও ইউনিয়নের ফরিদ আহমদ কলেজ সংলগ্ন  হাছিনা পাহাড়  এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত ট্রাক চালকের নাম মনজুর আলম (৪৩)। সে ঈদগাঁও ইউনিয়নের উত্তর মাইজপাড়া গ্রামের আবদুল মতলবের পুত্র।  প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে, জানা য্য়া, বৃহত্তর ঈদগাঁও ট্রাক চালক সমবায় সমিতির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার ট-১১০০০৯ নম্বরধারী ট্রাকের চালক ঘটনার দিন প্রতিমা আনার জন্য ভাদিতলা যাওয়ার পথে হাসিনা পাহাড় সংলগ্ন খালি জায়গায় ট্রাক ঘোরানোর চেষ্টাকালে ওই এলাকার শহর মুল্লুকের পুত্র আবু তাহের ও  আবুল কালাম বাধা দেয়। উভয়ের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক  পর্যায়ে তারা মনজুরকে ট্রাক থেকে নামিয়ে খন্তা দিয়ে বেধড়ক পিটায় এবং হিন্দুদের উদ্দেশ্য করে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল করতে করতে স্থান ত্যাগ করে। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় মনজুরকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ঈদগাঁও’র একটি কিনিকে চিকিৎসা দেয়া দেয়া হচ্ছে। মনজুরের মাথা, মুখমন্ডল ও শরীরের অন্যান্য স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। সংবাদ পেয়ে ঘটনার পরপরই ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের আইসি মনজুর কাদের ভূঁইয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। এদিকে ঘটনার প্রতিকার চেয়ে  মনজুর আলম ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনাটি তদন্ত কেন্দ্রের এস.আই রাজুর নিকট তদন্তাধীন রয়েছে। তিনি জানান, ঘটনার সাথে সম্পৃক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে । অপরদিকে  ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও সুষ্ঠু বিচার দাবী করে বিবৃতি প্রদান করেছেন বৃহত্তর ঈদগাঁও ট্রাক চালক সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ ইউছুপ ও সাধারণ সম্পাদক ছিদ্দিক আহমদ সহ অন্যান্যরা। তারা জানান, ১২ ঘন্টার মধ্যে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করা না হলে আজ ১৫ অক্টোবর থেকে কক্সবাজার চট্টগ্রাম মহাসড়ক অচল করে দেয়া হবে। এ  ব্যাপারে অভিযুক্ত তাহের ও কালামের সাথে বার বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

১৪ অক্টোবর’১৩

ইসলামাবাদে অপহৃত যুবতি অবশেষে উদ্ধার

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও,কক্সবাজার। মোবাইল- ০১৫৫৮-৪৩৪২২৮, ০১৮৩৫-৪১০১২৫। কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদে এক যুবতীকে রাতে অপহরণ করে সকালে ফেরত দেয়ার চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রে প্রকাশ, ১৪ অক্টোবর ভোররাতে বর্ণিত ইউনিয়নের টেকপাড়া নিবাসী ১৮ বছর বয়সী (সংগত কারণে নাম গোপন রাখা হল)  এক যুবতীকে নিজ বাড়ী থেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মিকরে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় সংঘবদ্ধ একদল দূর্বৃত্ত। অপহরণের সময় হট্টগোল সৃষ্টি হলে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে অপহরণকারীরা ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি করে। এসময় উক্ত যুবতী আত্মরক্ষার্থে বাড়ীর দমদমায় উঠে আত্মগোপন করলেও রেহাই পায়নি। জনতার সামনেই যুবতীকে চুলের মুঠি ধরে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে সকাল ৯ টায় এলাকাবাসী ও পুলিশ মিলে পূর্ব ইছাখালীর একটি বাড়ী থেকে অপহৃতা যুবতীকে উদ্ধার করে। স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীর প্রতিপালিত পেশাদার অপরাধী ও জেল ফেরৎ দূর্বৃত্তরা এর সাথে জড়িত বলে জানা গেছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় কোন প্রকার মামলা অথবা আইনী পদক্ষেপ না নেয়ার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল ভিকটিমের পরিবারকে বহুমূখী চাপের মধ্যে রেখেছে বলে জানা গেছে। তাদের ভয়ে অপহৃতা যুবতী ও অভিভাবকরা আইনের আশ্রয় নিতে পারছে না। সংঘটিত ঘটনার ব্যাপারে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মনজুর কাদের ভূঁইয়া জানান, এক প্রবাসীর সাথে বিয়েতে অমত করার ফলে উক্ত ঘটনা ঘটেছে। পরে ভিকটিমের আত্মীয়-স্বজন পুলিশের সহায়তায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে কেও কোন মামলা অথবা অভিযোগ করেনি বলে জানান তিনি। উক্ত ঘটনার জন্য দায়ী অপরাধী চক্র ও এদের স্থানীয় গডফাদারদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল। ইসলামাবাদে যুবতী অপহরণ ও উদ্ধার

আতিকুর রহমান মানিক, ঈদগাঁও। মোবাইল- ০১৮১৮-০০০২২০, তারিখ- ১৪-১০-২০১৩ ইং। কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদে এক যুবতীকে রাতে অপহরণ করে সকালে ফেরত দেয়ার চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রে প্রকাশ, ১৪ অক্টোবর ভোররাতে বর্ণিত ইউনিয়নের টেকপাড়া নিবাসী ১৮ বছর বয়সী (সংগত কারণে নাম গোপন রাখা হল)  এক যুবতীকে নিজ বাড়ী থেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মিকরে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায় সংঘবদ্ধ একদল দূর্বৃত্ত। অপহরণের সময় হট্টগোল সৃষ্টি হলে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে অপহরণকারীরা ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি করে। এসময় উক্ত যুবতী আত্মরক্ষার্থে বাড়ীর দমদমায় উঠে আত্মগোপন করলেও রেহাই পায়নি। জনতার সামনেই যুবতীকে চুলের মুঠি ধরে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে সকাল ৯ টায় এলাকাবাসী ও পুলিশ মিলে পূর্ব ইছাখালীর একটি বাড়ী থেকে অপহৃতা যুবতীকে উদ্ধার করে। স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীর প্রতিপালিত পেশাদার অপরাধী ও জেল ফেরৎ দূর্বৃত্তরা এর সাথে জড়িত বলে জানা গেছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় কোন প্রকার মামলা অথবা আইনী পদক্ষেপ না নেয়ার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল ভিকটিমের পরিবারকে বহুমূখী চাপের মধ্যে রেখেছে বলে জানা গেছে। তাদের ভয়ে অপহৃতা যুবতী ও অভিভাবকরা আইনের আশ্রয় নিতে পারছে না। সংঘটিত ঘটনার ব্যাপারে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মনজুর কাদের ভূঁইয়া জানান, এক প্রবাসীর সাথে বিয়েতে অমত করার ফলে উক্ত ঘটনা ঘটেছে। পরে ভিকটিমের আত্মীয়-স্বজন পুলিশের সহায়তায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে কেও কোন মামলা অথবা অভিযোগ করেনি বলে জানান তিনি। উক্ত ঘটনার জন্য দায়ী অপরাধী চক্র ও এদের স্থানীয় গডফাদারদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল। ইসলামপুরের সাবেক মেম্বার নুরুল আমিনের ইন্তেকাল- দাফন সম্পন্ন এম. আরমান জাহান, ঈদগাঁও প্রতিনিধি মোবাইল- ০১৮১৫-০২০০০৭,০১৭৬১-৬০৩৬০২ সদরের ইসলামপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড থেকে একাধিকবার নির্বাচিত ইউপি  সদস্য নাপিতখালী ভিলেজার পাড়ার বাসিন্দা আলহাজ্ব নুরুল আমিন (৬৫) আর নেই। তিনি গতকাল সোমবার ভোর রাত সাড়ে ৪টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন( ইন্নালিল্লাহি……………..রাজেউন)। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নানা জটিল রোগে ভুগছিলেন। গতকাল অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে ঈদগাঁওয়ের এক হাসপাতালে পরে রাতে জরুরী ভিত্তিতে  চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করলে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, পুত্র সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। একই দিন দুপুর ২টায় স্থানীয় কৈলাশঘোনা জামে মসজিদ মাঠে মরহুমের ভাতিজা ব্যাংকার মাওলানা মিজানুর রহমানের ইমামতিতে জানাযা শেষে স্থানীয় কবর স্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়। জানাযায় বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামপুর চেয়ারম্যান মাষ্টার আবদুল কাদের, সাবেক চেয়ারম্যান মনজুর আলম, অছিউর রহমান, ইসলামপুর প্যানেল চেয়ারম্যান আবুল কালাম, কৈলাশঘোনা জামে মসজিদের খতিব মাওলানা ছাবের আহমদ আল কাদেরী, নতুন অফিস জামে মসজিদের খতিব মাওলানা বজল আহমদ, বাঁশকাটা জামে মসজিদের খতিব মাওলানা কবির আহমদসহ পরিষদের সকল ইউপি সদস্যবৃন্দ।

বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থান ও ঈদগাও-ঈদগড় বাইশারীসড়কে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন দাবী ঈদে আইন শৃংখলার চরম অবনতির আশংকা এম , আরমান জাহান ,ঈদগাঁও প্রতিনিধি-                                                                                                                                  মোবাইল নাম্বার ০১৮১৫-০২০০০৭ আসন্ন ঈদুল আযহার পূর্বরাত তথা আজকের রজনীতেই কক্সবাজার সদরের বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের বিভিন্ন পয়েন্টে ডাকাতির আশংকা রয়েছে। এ রাতেই প্রতিবছরের ন্যায় এবার ও আইনশৃংখলার চরম অবনতি ঘটার আশংকায় ভূগছে এলাকাবাসী। বৃহত্তর এ এলাকার ঈদগাঁওয়ের ভাদীতলা সড়ক ,ঝন্ডুল মাছুয়াখালী সড়ক , ঘোনা পাড়া , বলীখেলার পুকুর সংলগ্ন সড়ক , মেহেরগুনা সড়ক, ইসলামাবাদের বোয়ালখালীসড়ক , ইউছুপেরখীল সড়ক , চৌফলদন্ডীর নদী সংলগ্ন সড়ক , চৌফলদন্ডী সড়ক, জালালাবাদের ফরাজী পাড়া সড়ক , পোকখালী ও গোমাতলী বাজার , ঈষাখালী সড়কসহ ঈদগাঁও-ঈদগড়-বাইশারী সড়কগুলো চরম ডাকাতির ঝুঁকিতে রয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রে প্রকাশ। অনুসন্ধানে আরো লণীয় , আইন শৃংখলা বাহিনীর অধিকাংশ সদস্য ঈদে ছুটিতে যাওয়ায় ও গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পর্যাপ্ত পুলিশের টহল না থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বছরের এ দিনে ডাকাতরা বড় ধরনের ডাকাতির পরিকল্পনায় মেতে উঠে। এতে ঈদের মালামাল নিতে আসা ও ঈদ পণ্য নিয়ে বাড়ী ফেরার পথে ডাকাতদলের খপ্পরে পড়ে নিঃস্ব হয়ে ঘরে ফিরতে হয় বাজার করতে আসা মানুষদের। শুধু তাই নয় , অধিকাংশ সময় সওদা করতে আসা লোকজনকে ডাকাত দল কর্তৃক আহত ও নিহত  হয়ে ও বাড়ী ফিরতে হয়েছে। অন্যদিকে দণি চট্টলার বৃহত্তর ও জেলার বাণিজ্যিক বাজার নামে পরিচিত ঈদগাঁও বাজারের  শফিংমলগুলোতে ও ঈদের পূর্ব রাতে বড় ধরনের ডাকাতির সদৃশ দুর্দষ চুরির ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য এসব স্পর্শকাতর জয়গাগুলোতে পর্যাপ্ত পুলিশের টহল জোরদার করার জন্য বৃহত্তর এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তপে কামনা করছে। ====================================== বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ে টমটম , মাহিন্দ্রা ও অটোর রাজত্বে রিকশাচালকদের করুণ দশা এম আরমান জাহান ঈদগাঁও প্রতিনিধি-                                                                                                    মোবাইল নাম্বার -০১৮১৫-০২০০০৭ বৃহত্তর ঈদগাঁওর টমটম , মাহিন্দ্রা ও অটো চালকদের রাজত্বে দিনমজুর রিক্সা চালকরা করুণ দশায় পতিত হয়েছে। বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের ৬টি ইউনিয়ন তথা ঈদগাঁও , জালালাবাদ , ইসলামাবাদ , ইসলামপুর , পোকখালী , চৌফলদন্ডী ইউনিয়নে ১ হাজার থেকে ২ হাজার রিক্সা চালকরা  বিভিন্ন সড়ক উপসসড়কে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অবধি অভাবের তাড়নায় বউ ছেলে সন্তানদের মুখে একমুটো ভাত তুলে দিতে প্রচন্ড রোদে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে , বর্ষার সময় মুষলধারের বৃষ্টিতে ভেজে জীবিকার তাড়নায় একস্থান হতে আরেক স্থানে যাত্রীদের নিয়ে যায়। সম্প্রতি টমটম , মাাহিন্দ্রা ও অটো গাড়ী আমাদের দেশে প্রতিটি এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে পডায় আগের মত তারা যাত্রী না পেয়ে পূর্বের মত আয় করতে পারছেনা। এতে রিক্সা চালকরা তাদের সংসার চালাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে। অধিকাংশ রিক্সা চালক এ পেশা ত্যাগ করে পাহাড়ে গিয়ে কাঠ সংগ্রহ করে , অনেকে  জাল নিয়ে , কেউ বড়শি নিয়ে বিভিন্ন খালে মাছ ধরে ঈদগাঁও বাজারে এনে বিক্রি করছে। আগে একসময় গরিব মানুষেরা রিক্সা চালিয়ে সুখে শান্তিতে জীবন চালাতে পারতো। এমনকি অনেকে রিক্সা চালিয়ে টাকা জমিয়ে টেকসি অথবা অন্য গাড়ী কিনে স্বচ্ছল হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে এ চিত্রের বিপরীত করুণ চিত্রটাই ফুঁটে উঠেছে। জালালাবাদ ইউনিয়নের রিকশাচালক কালু মিয়া করুণভাবে অভিযোগের সুরে এ প্রতিবেদককে জানান ,আমরা যেখানে ৩০টাকা ভাড়া নিই। সেখানে মাহিন্দ্রা , টমটম ও অটো চালকরা নিচ্ছে ১০ টাকা। এতে যাত্রীরা রিক্সায় না উঠে টমটম , মাহিন্দ্রা ও অটো গাড়ীতে উঠে যাতায়ত করছে। আগে আমরা সর্বনি¤œ ১দিনে ২০০-৩০০ টাকা পেতাম । আজ ১দিনে সর্বোচ্ছ সেই ২০০ টাকা পেতে আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় এই টাকা দিয়ে কি চাল কিনব ? নাকি মাছ কিনব? নাকি তরকারী কিনব?। অন্যদিকে মাহিন্দ্রা , টমটম ও অটো গাড়ী কম দুরত্বের যাত্রী তোলার কারণে আমরা কোন যাত্রী পাচ্ছিনা। একসময় রিক্সা চালিয়ে আমরা সুখে শান্তিতে ছিলাম । এখন সুখের বদলে দুঃখের মালা আমাদেরকে পরতে হচ্ছে। তাকে অন্য কাজ করতে উদ্বুদ্ধ করলে সে করুণসুরে বলে এই রিক্সাটা যদি বিক্রি করতে পারতাম, তাহলে সেই টাকা দিয়ে অন্য কাজ করতাম । কিন্তু কেউ এখন রিক্সা কিনতে চাইনা। সস্তায় দিলে ও নিতে চায়না। এতে এই রিক্সাটাই আমার জন্য বিষফোঁড়ায় পরিণত হয়েছে। তাই  এ ব্যবস্থা চলতে থাকলে গরুর গাড়ীর মত একসময় বৃহত্তর ঈদগাঁওতে রিক্সা নামক গাড়ীর অস্তিত্ব কালের গভীর গর্তের অতল তলে হারিয়ে যাবে।

ঈদগাঁওতে শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে কোরবানীর পশুর হাট: লাখো মানুষের ঢল এম.আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও ১৪/১০/২০১৩ইং কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আযহার কোরবানীর পশুর হাট শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে। এতে দেশীয় গরু মহিষের সয়লাব দেখা গেলেও দাম কম। কিন্তু ক্রেতাদের প্রচুর সমাগম ঘটেছে। গত বছরের তুলনায় চলতি বছর ৭/৮ হাজার টাকা কম দামে বিক্রি হচ্ছে গরু মহিষ। তবে এবারের কোরবানের পশুর হাটে গরুর দাম হাকা হয়েছিল বিগত বাজারে আড়াই ল টাকা। এদিকে উৎসবের দিন প্রায় ঘনিয়ে এলেও এখনো ঈদগাঁও বাসষ্টেশন সংলগ্ন পশুর হাটে বেচাকেনা এবার জমে উঠেছে। এতে করে, ঈদগাঁও বাস স্টেশনস্থ পশুর হাটে লাখো মানুষের ঢল নেমেছে। তাছাড়াও দীর্ঘ দিন ধরে গ্রাম গঞ্চের লোকজন আসার বুকবেধে গরু-মহিষ লালন পালন করে আসছে এই কোরবানির পশুর হাঁটে বিক্রয় করার ল্েয। জানা যায়, প্রতিবছর ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের সাধ্যমত কোরবানীর পশু কেনার তোড়জোড় শুরু হয়। চলতি বছর পশুর হাটে বেচাকেনা জমে উঠলেও প্রায় কোরবানী দাতা  অনানুষ্টানিক ভাবে গরু মহেশ কেনার ব্যাপারে প্রাথমিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। আর এসব আলোচনায় উঠে আসছে পশুর বিভিন্ন রকম দামের কথাও। তবে প্রতিবছরের মতো ছোট ও বড় গরুর চেয়ে মাঝারী সাইজের গরুর দামে তেমন হেরফের হবেনা বলে একাধিক গরু ব্যবসায়ী সূত্রে জানা যায়। এরপরও গতকাল ঈদগাঁও বাসষ্টেশন সংলগ্ন পশুর হাটে গরু-মহিষে  দাম দেখে বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা ৬ ইউনিয়নের প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চলের বহুলোকজন নানা মন্তব্য করতে দেখা যায়। অপরদিকে এবারের পশুর হাঁটে কোরবানের গরু মহিষ মোটাতাজাকরণ করে হাঁটে আনা হয়েছে বলে ক্রেতা সুএে জানা যায়। এছাড়াও জেলার দ্বিতীয়তম ঈদগাঁওয়ের বিশাল পশুরহাঁটে গরু-মহিষ বিক্রেতারা জাল টাকা ও পকেট মারদের  আতঙ্কে রয়েছেন। অন্যদিকে এই পশুর হাঁটে কতিপয় দালাল চক্রের দৌরাত্বে জিম্মী হয়ে পড়েছে ক্রেতা-বিক্রেতারা। আবার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দূর দুরান্ত থেকে আসা ক্রেতাদের মতে, এই বৃহত্তম পশুর হাঁটে ত্রিমুখী সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পুলিশ টহলের দাবি জানিয়েছেন অনেকে। কোরবানীর পশু কিনতে আসা অনেকে এই প্রতিনিধিকে জানান, পছন্দের গরু দেখছি, কিন্তু দাম নিয়ে টেনশন ভোগ করছি। আমার মত অনেক ক্রেতা সাধারণ একই অবস্থায় পড়তে দেখা গেছে।

অবৈধ দখল বাণিজ্যে অস্তিত্ব সংকটে ঈদগাঁও’র ফুলেশ্বরী নদী! এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও ১৪-১০-১৩ ইং অতি দূষন ও অবৈধ দখল বাণিজ্যে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে ঐহিত্যবাহী ঈদগাঁও’র ফুলেশ্বরী নদীটি। এ নদীকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে বৃহত্তর ঈদগাঁও এলাকার জনবসতি ও বাজার। যার বিস্তীর্ণ দু’পারে শত শত ফসলী জমি ও সবজি তে। জানা যায়, নদী নির্ভর এ অঞ্চলের ৩ লাধিক জনগোষ্টি খাদ্য যোগাতে কৃষি সেচ ঈদগাঁও নদীই একমাত্র অবলম্বন। অথচ অবৈধ দখলদার ও ভূমিদস্যুদের গ্রামে বিপন্ন এ নদীটি। দেখা যায়, ঈদগাঁও বাজারের সুপারি গলির শেষ পয়েন্টে বাজার রাবাঁধের পাশ ঘেষে ঈদগাঁও বাসষ্টেশন পর্যন্ত দীর্ঘ ১ কিলোমিটার এলাকায় নদীর চড়ে গড়ে উঠেছে অবৈধ বসতী, দোকান পাট ও শত শত ঝুলন্ত খোলা পায়খানা। একদিকে নদী যখন ও অন্যদিকে ঝূলন্ত পায়খানার বর্জ নদীর পানি দূষণ ও পরিবেশ বিপর্যয়ের পাশাপাশি জনস্বাস্থ্য আশংকা জনক ভাবে হুমকি সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় বাজার এলাকার বাসিন্দা ও ব্যবসায়ী নেতা প্রতিনিধিকে জানান, ঝুলন্ত পায়খানা নির্মাণের বিষয়ে জৈনক অবৈধ দখলদারকে অভিযোগ করলেও কোন প্রকার ইতিবাচক ছাড়া পাওয়া যায়নি।

ছবি আছে ইসলামাবাদে গণপিটুনীতে নিহতের ঘটনায় ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অপচেষ্টা: তীব্র নিন্দা এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাও ১৪/১০/১৩ ইং কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদে জনতার গণপিটুনীতে যুবক নিহতের ঘটনায় ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দিদারুল ইসলামকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে কতিপয় মহল। এছাড়া পুরো ইউনিয়নের একাধিক শিার্থীরাও জড়িয়ে যাচ্ছে এঘটনায়। যুব সমাজের প্রিয়মুখ দিদারুল ইসলামকে মামলায় ফাঁসানোর অপচেষ্টার খবরে ইউনিয়ন যুবলীগের তৃণমূল নেতা কর্মীদের মাঝে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মূহুর্তে আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষণার কথা এবং এঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করেন যুবলীগের নেতা কর্মীরা। এব্যাপারে ইসলামাবাদ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি এম. নাছির উদ্দীন জয়ের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি, আমার জানামতে ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ঐ ঘটনায় সম্পূর্ণ নির্দোশ। তবে ঐ নিহতের ঘটনার সাথে ষড়যন্ত্র মূলক ভাবে তাকে হয়রানী করার ল্েয মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অপচেষ্টায় চলছে। প্রকৃত পে যারা অপরাধী তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানায়। অন্যথায় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দিদারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা মামলার অপচেষ্টা বন্ধ না হলে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষণা করার কথা উল্লেখ করে। উল্লেখ্য, ইসলামাবাদ ইউনিয়নের ইউছুপেরখীল এলাকায় ছৈয়দ করিমের বাড়ী থেকে দশ অক্টোবর ভোর চারটার দিকে গরু চুরি করে যাওয়ার সময় স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে ধাওয়া করে পশ্চিম ইউছুপেরখীল বিলের মাঝ নামক স্থান থেকে আটক করে ইসলামপুরের ভিলেজার পাড়ার মোহাম্মদ শফির পুত্র আহমদ উল্লাহকে। পরে বিভিন্ন এলাকার লোকজন একত্রিত হয়ে তাকে ব্যাপক গণপিটুনী প্রদান করে। একই দিন সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তার শারীরিক অবস্থা বেগতিক দেখা দিলে, তাকে দ্রুত ঈদগাঁও’র একটি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা প্রদান কালে তার মৃত্যু ঘটে। ইউসুফেরখীল এলাকার সচেতন লোকজনের মতে, প্রকৃত ঘটনার তদন্তের জোর দাবীর কথাও এই প্রতিনিধিকে জানান।

 

 

 

ঈদগাঁওতে কোরবানীর ঈদের দিন জমবে চামড়া বিকিকিনির বিশাল হাট

আতিকুর রহমান মানিক, ইজিএন : মোবাইল- ০১৮১৮-০০০২২০, তারিখ- ১৪-১০-২০১৩ ইং। কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও কোরবানীর দিন জমে উঠবে কোরবানী পশুর চামড়া বিকিকিনির বিশাল বাজার। ঈদগাঁও বাজারের প্রধান সড়কস্থ তেলীপাড়া রোড়ের মাথা থেকে শুরু হয়ে উত্তরে ভূমি অফিস গেইট ও দক্ষিণে চৌফলদন্ডী জীপ ষ্টেশন পর্যন্ত প্রায় ১ কিলোমিটার এলাকায় প্রতিবছর কোরবানীর ঈদের দুপুর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে চামড়ার জমজমাট বিকিকিনি। বৃহত্তর ঈদগাঁওর ৬/৭ ইউনিয়নসহ রামুর ঈদগড়, রশিদ নগর ও পার্বত্য বাইশারীসহ বিস্তির্ণ এলাকা থেকে হাজার হাজার চামড়া বিক্রির জন্য ঈদগাঁও বাজারে নিয়ে আসেন ব্যবসায়ীরা। ঈদের দিন দুপুর থেকেই ট্রাক, পিকআপ, জীপ ও রিক্সা ভ্যানসহ বিভিন্ন প্রকারের যানবাহনযোগে বিপুল পরিমাণ চামড়া আসতে শুরু করে। বিকালের মধ্যেই ডিসি রোডের বিভিন্ন পয়েন্টে স্তুপ হয়ে যায় হাজার হাজার চামড়া। এসব চামড়া কিনতে স্থানীয়রা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ব্যবসায়ীরা ঈদগাঁওতে চলে আসেন। গভীর রাত পর্যন্ত ব্যাস্ত থাকে এ চামড়ার বাজার। এবারেও ঈদের দিন জমে উঠবে বিভিন্ন প্রকার কোরবানী পশুর চামড়ার বিকিকিনি। চামড়ার ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে প্রকৃত ব্যবসায়ীদেরকে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন ধর্মপ্রাণ মুসলিমগণ। একই সাথে আইন শৃঙ্খলা রক্ষার্থে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানানো হয়েছে। ================= ঈদগাঁওতে ঈদে গলাকাটা ভাড়া আদায় করতে দফায় দফায় বৈঠক

আতিকুর রহমান মানিক, ইজিএন : মোবাইল- ০১৮১৮-০০০২২০, তারিখ- ১৪-১০-২০১৩ ইং। আসন্ন কোরবানীর ঈদকে পূঁজি করে বৃহত্তর ঈদগাঁওর বিভিন্ন সড়ক-উপ-সড়কে চলাচলকারী যানবাহনের চালকরা পরিবহন ভাড়া বাড়ানোর জন্য দফায় দফায় বৈঠক করেছে বলে জানা গেছে। ঈদের দিন থেকে শুরু করে পরবর্তী ৪/৫ দিন পর্যন্ত যাত্রী সাধারণকে জিম্মি করে নির্র্ধারিত রেটের চাইতে বেশী হারে গলাকাটা ভাড়া আদায় করার জন্য নানামূখী তোড়জোড়  আরম্ভ করেছে। ঈদগাঁও-ফরাজীপাড়া-পোকখালী সড়ক, চৌফলদন্ডী সড়ক, গোমাতলী সড়ক, ইসলামপুর সড়ক ও ঈদগড়-বাইশারী সড়কসহ অপরাপর রাস্তায় চলাচলকারী সিএনজি টেক্সী, মাহিন্দ্রা, টমটম, জীপ সার্ভিস ও বেটারী চালিত অটোরিক্সাসহ অপরাপর যানবাহন চালকরা গত ঈদুল ফিতরের সময় কোন কারণ ছাড়াই হঠাৎকরে ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছিল। এসময় ৪/৫ দিন ব্যাপী নির্ধারিত দরের চেয়ে দেড়-দু’গুণ ভাড়া আদায়ে বাধ্য করা হয়েছিল যাত্রীদেরকে। আসন্ন কোরবানীর ঈদেও পূর্বের মতো গলাকাটা ভাড়া আদায়ের প্রস্তুতি নিয়েছে যানবাহনের অসাধু চালকরা। মুসলিমদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় অনুসঙ্গ ঈদের সময় বিভিন্ন এলাকার আত্মীয়-স্বজনের বাসায় বেড়াতে যাওয়া ও শুভেচ্ছা বিনিময়ের রীতি সুপ্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে। বিশেষ করে কোরবানীর ঈদে বাসায় রান্না করা গোস্তের তরকারী ও অপরাপর নাস্তা আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে বিনিময় করা হয়। এ যাতায়াতের জন্য প্রয়োজন পড়ে যানবাহনে চড়ার। যাত্রী সাধারণের এ প্রয়োজনকে পূঁজি করে প্রতি ঈদে কোন কারণ ছাড়াই ভাড়া বাড়িয়ে দেয় অসাধু চালকগণ। আগামী কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে আগের মতো ভাড়া বাড়ানোর গলাকাটা বাণিজ্য শুরু হতে পারে। অসাধু চালকদের বিরুদ্ধে এ ব্যাপারে আগাম ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবী জানিয়েছেন বৃহত্তর ঈদগাঁওর সচেতন নাগরিকগণ।

 

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT