টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ঈদগাঁও’র ছয় ইউনিয়নের শিক্ষার্থীরা চরম আতংকে ভুগছে স্পর্শকাতর স্থানে গতিরোধ স্থাপনের জোরদাবী শিক্ষাথী সমাজের

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৩
  • ১২৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও#### সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চলের সড়ক ও উপসড়কের নানা স্থান জুড়ে খন্দকে ভরপুর হয়ে উঠেছে। এতে করে বিশাল এলাকার শিক্ষার্থীরা যাতায়াতে চরম আতংকে ভুগছে। তাই অনতি বিলম্বে স্পর্শকাতর স্থানে গতিরোধ স্থাপনের জোর দাবী জানিয়েছেন শিক্ষার্থী সহ এলাকার সচেতন মহল। প্রাপ্ত তথ্যে প্রকাশ, বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা ৬ ইউনিয়ন জালালবাদ, ইসলামাবাদ, ইসলামপুর, পোকখালী, চৌফলদন্ডী ও ঈদগাঁওয়ের প্রধান সড়ক সহ গ্রামীণ উপ সড়কে নানা স্থান জুড়ে খন্ড খন্ড খন্দকে ভরে গেছে। এমনকি সামান্য হালকা বৃষ্টি হলেও ঐ গর্তে পানি জমে থাকে। যাতে করে দিনে বা রাত্রীকালীন সময়ে হরেক রকমের যানবাহন চলাচলে যেই কোন দূর্ঘটনার আশংকাও প্রকাশ করেন অনেকেই। এছাড়া বৃহত্তর ঈদগাঁওতে অবস্থিত ঈদগাঁও ফরিদ আহম্মদ ডিগ্রী কলেজ, ঈদগাঁও আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, ঈদগাঁও আদর্শ শিক্ষা নিকেতন, ঈদগাঁও জাহানারা ইসলাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ঈদগাঁও আলমাছিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসা, পোকখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, গোমাতলী উচ্চ বিদ্যালয়, নাপিতখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ঈদগাঁও শাহ্ জব্বারিয়া দাখিল মাদ্রাসা, চৌফলদন্ডী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, ইসলামাবাদ এজি লুৎফুর কবির আদর্শ দাখিল মাদ্রাসা সহ রাস্তা পার্শ্ববর্তী স্থানে গড়ে উঠা অসংখ্য সরকারী-বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে গতিরোধ (স্পীড ব্রেকার) স্থাপনের দাবী উঠছে জোরালো ভাবে। অন্যথায়, এসব শিক্ষাঙ্গনের শিক্ষার্থীরা যে কোন মুহুর্তে দূর্ঘটনায় অনেকে পঙ্গুত্ব হতে পারে। এদিকে ঈদগাঁও ফরিদ আহম্মদ ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থী আসমাউল হোসনা ও লুৎফা আহম্মেদ জানান, শিক্ষাঙ্গনে আসতে হয় অনেক ভয় ভীতি উপেক্ষা করে। ঈদগাঁও আদর্শ শিক্ষা নিকেতনের ছাত্র আবিদ ও আশিকের মতে, শিক্ষাঙ্গনে সামনে গতিরোধ ব্যবস্থা না থাকায় সাবধানে চলাচল করতে হচ্ছে। জেলার দ্বিতীয় বানিজ্যিক এলাকা বৃহত্তর ঈদগাঁও’র বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সম্মুখ স্থানে দ্রুততম সময়ে গতিরোধ ব্যবস্থার জোর দাবী জানিয়েছেন অসহায় শিক্ষার্থী সহ পথচারীরা। তাই তারা যোগাযোগমন্ত্রীর দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন। ===================================== ঈদগাঁওতে ঘন ঘন লোডশেডিং বাড়ছে: বিপাকে ব্যবসায়ীরা এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও তারিখঃ ২৬-০৮-১৩ ইং সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে ঘনঘন লোডশেডিংয়ের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ায় ব্যবসায়ী সহ সর্বশ্রেণীর লোকজনদের মাঝে নানান চাপাােপ বাড়ছে। জানা যায়, প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও চলতি মৌসুমে সদর উপজেলার গুরুত্ববহ এলাকা বৃহত্তর ঈদগাঁওতে পল্লী বিদ্যূতের ঘন ঘন লোড শেডিং যেন চোখে পড়ার মত। ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকা ঈদগাঁও বাজারে দৈনিক লাখ লাখ টাকার ব্যবসা বাণিজ্য হলেও এখানকার ব্যবসায়ীরা বিদ্যুৎ সমস্যা নিয়ে মহাটেনশনে ভুগছেন দিনের পর দিন। এই লোড শেডিং সমস্যা থেকে কবে মুক্তি পাবে ব্যবসায়ী সহ নানা শ্রেণীর লোকজন। এছাড়া এ সময়েও লোডশেডিং বৃদ্ধি পাওয়ায় বিপাকে পড়েছে ব্যবসায়ীরা। এই বিদ্যুতের লোড শেডিংয়ের কারণে কম্পিউটার, ফটোকপি, প্রিন্ট, নানা ব্যবসা বানিজ্য, স-মিল সহ নানা কলকারখানা একেবারেই বন্ধের পথে বললেই চলে। এমনকি হাসপাতাল ও কিনিকে গুরুত্বপূর্ণ মেশিনারী জিনিসপত্র বিদ্যুতের কারণে নানা সমস্যায় সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানা যায়। এলাকার সচেতন মহলের প্রশ্ন, সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা ৬ ইউনিয়নে এই চলতি মৌসুমে দারুণ আকার বিদ্যুৎ লোডশেডিং ফের চলছে। তারপর ও মরার উপর খাঁড়ার ঘা হিসাবে বিদ্যুৎ বিল নানা কারণে বেড়েছে বলেও একাধিক লোকজনের অভিযোগ। শিল্প নগরী খ্যাত ইসলামপুরে ঘন ঘন বিদ্যুৎ সমস্যা  দেখা না দিলেও ব্যস্ততম বাণিজ্যিক নগরী ঈদগাঁওতে লোড শেডিং নিয়ে দুঃচিন্তায় পড়েছে ব্যবসায়ী সহ সর্ব পেশার লোকজন। অনতিবিলম্বে এই লোড শেডিং বন্ধ করার আহবান বিশাল এলাকাবাসীর। এ ব্যাপারে  পল্লী বিদ্যুৎ ঈদগাঁও অফিসের নির্ধারিত মোবাইল নাম্বারে বহুবার যোগাযোগের চেষ্টা করলে ও  সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। ===========

অসহায় যুবকদের স্বপ্ন যেন গুড়েবালি  অসাধু দালালদের খপ্পরে পড়ে মৃত্যু পথের যাত্রী হচ্ছেন স্বপ্ন প্রত্যাশী যুবকেরা   এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও তারিখ- ২৬-০৮-১৩ইং কক্সবাজার জেলার উপকূলীয় এলাকায় অসাধু দালালদের খপ্পরে পড়ে মৃত্যু পথের যাত্রী হচ্ছেন মালয়েশিয়াগামী স্বপ্ন প্রত্যাশী যুবকেরা। ভাগ্যক্রমে যারা বেঁচে যাচ্ছেন তাদের বরণ করতে হচ্ছে নানা নির্যাতন ও কারাবরণ। এমনিই বহু হতভাগ্য রয়েছে যারা আটকে পড়েছেন মালয়েশিয়া সহ বিভিন্ন দেশের কথিত দালাল চক্রের কাছে। একাধিক তথ্য সূত্রে প্রকাশ, কক্সবাজারের উপকূলীয় উপজেলা তথা টেকনাফ, উখিয়া, মহেশখালী, সদর উপজেলা, চকরিয়ার একাধিক আদম পাচারকারী নানা মৌসুমকে টার্গেট করে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। প্রতিনিয়ত সাগর পথে চোরাই ভাবে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে হরেক রকম উৎসাহ যোগিয়ে বেকার অসহায় যুবকদের মালয়েশিয়া পাঠানোর নামে গভীর সমুদ্রে ভাঙ্গা-চোরা ট্রলারে ভাসিয়ে দিচ্ছেন। এতে করে, দূর্গম সাগর পাড়ি দিতে গিয়ে নৌকা কিংবা ট্রলার ডুবিয়ে মারা গেছেন অনেকে। জেলার গুটিকয়েক দালাল মালয়েশিয়া পৌঁছানোর নামে ফাঁদে ফেলে তাদেরকে করছে ফতুর। এসব দালালদের খপ্পড়ে পড়ে পাসপোর্ট-ভিসা বিহীন মাত্র অল্প টাকায় বিনিময়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য বঙ্গোপসাগরের দূর্গম পথ পাড়ি দিচ্ছে উঠতি যুবকরা। উপকূলের টেকনাফ, উখিয়া, মহেশখালী, চকরিয়া এলাকা থেকে পাচারকারী চক্র এসব যুবকদের পাচার করছে। যাত্রা পথে গভীর সাগরে ট্রলার ডুবে ইঞ্জিন বিকল হয়ে অনেকের মৃত্যু হওয়ার একাধিক ঘটনাও ঘটেছে। আবার অনেকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তথা নিরাপত্তাকর্মীদের হাতে ধরা পড়ে  বহুজন বিভিন্ন দেশের কারাগারে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। অন্যদিকে, মালয়েশিয়ায় দালালদের কাছে বন্দি অবস্থায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন বহু লোকজন। এসব পরিবারে অনাহারে অর্ধাহারে চলছে তাদের স্ত্রী-ছেলে মেয়ের জীবন। নিখোঁজদের ঘরে চলছে শোকের মাতম। উল্লেখ্য- জেলার বিভিন্ন উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের অসহায় কিংবা গরীব পরিবারে জন্ম নেওয়া যুবক ও তরুণরা কতিপয় অতি উৎসাহী দালালদের মুহে পড়ে ভিটে-বাড়ী, স্বর্ণ বন্ধক ও মহাজনদের কাছ থেকে সুদের ধার করা টাকা নিয়ে সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার প্রত্যয়ে জীবনের ঝুঁিক নিয়ে পাড়ি দিচ্ছে চোরাই পথে মালেশিয়া সহ বহু দেশে। ঐসব দেশে যাওয়ার মাঝ পথে স্বপ্ন প্রত্যাশী যুবকদের স্বপ্ন যেন গুড়েবালি।

ÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑÑ

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT