টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ঈদগাঁওতে চলছে জমজমাট ঈদবাজার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৩০ জুলাই, ২০১৩
  • ১৩৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

eid bazar copyএস. এম. তারেক, ঈদগাঁও, “ওমন রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশীর ঈদ”। দীর্ঘ এক মাসের  সংযম আর সিয়াম সাধনা শেষে আর ক’দিন বাদেই বিশ্ববাসী একযোগে উপভোগ করবে মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। আর খুশির এ দিনটিকে যাতে উপভোগ্য ও মধুময় করা যায় তার জন্য চলে অনেক আয়োজন। পবিত্র মন আর শুদ্ধ দেহে ঈদের দিনটিকে যথার্থরুপে রপায়িত করতে চাই নতুন নতুন পোশাক আশাক। সাথে সাজগোজের মহা আয়োজন। এই মহা আয়োজনকে সামনে রেখে কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে এখন চলছে জমজমাট ঈদবাজার। ক্রেতাদের চাহিদার প্রতি খেয়াল রেখে বিভিন্ন মার্কেট ও ডির্পামেন্টাল ষ্টোরের মালিকেরা দোকানগুলোকে সাজিয়েছেন একটু অন্যভাবে। অত্যন্ত সুদৃশ্য মনোরম এই মার্কেটগুলো সহজেই ক্রেতাদের নজর কেড়ে নিতে সক্ষম হয়েছে। কিন্তু আর্থিক অসংগতির কারনে  সব ক্রেতারা যেতে পারেনা এসব অভিজাত মার্কেট কিংবা ডির্পাটমেন্টাল ষ্টোর গুলোতে। আর তাই তাদের জন্য রয়েছে আলাদা মার্কেট। কি শিশু, কি কিশোর , যুবক, যুবতী,বৃদ্ধ সবাই এখন মার্কেটমুখী। বিশেষ করে ১৫ রোজার পর থেকে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড়ে গভীর রাত অবধি মার্কেটগুলো থাকছে সরগরম। ক্রেতারা নতুন জামাকাপড়ের পাশাপাশি স্যান্ডেল,সু,বেল্ট,ঘড়ি, চশমা, সুগন্ধী,কসমেটিক্্র, জুয়েলারী সামগ্রী,ঈদকার্ড, টুপি , ক্রোকারীজ ও ইলেকট্রনিক্্র সামগ্রী ইত্যাদিও কিনছে সমহারে। ঈদগাঁও বাজারের বিভিন্ন  মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, কেনাকাটায় সবচাইতে এগিয়ে  আছে হাল ফ্যাশনের তরুন তরুনীরা। এসব তরুন,তরণীদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে জিন্স প্যান্ট,গাভাডিং ও কট কাপড়ের শার্ট, প্যান্ট, গেন্জী , লেহেঙ্গা , ঘাঘড়া, ফতুয়া, শর্ট কামিছ , লং কামিছ , টুপিচ ,থ্রীপিচ্ , ওড়না , ক্যাপ , স্কীনটাইট শার্ট,লুজ ড্রেস, ফাট চপ্পল,সু,ক্যাডস , ব্লক-বাটিকের পোষাক, চুমকি-জরি পাথরের কাজ করা জামা প্রভৃতি তরুণ,তরুণীদের পোষাক বলে বিবেচিত হচ্ছে এবারের ঈদে। শাড়ীর দোকানগুলোতে দেশীয় শাড়ির পাশাপাশি বিক্রি হচ্ছে ভারতীয় শাড়ী। শাড়ীর মধ্যে সুতি, সিল্ক,জর্জেট,কাতান, বেনারশি,জামদানি, রাজশাহী সিল্ক প্রভৃতি। নতুন পোষাকের সাথে মানিয়ে কসমেটিক্্র না পরলে কেমন লাগে? তাই মহিলারা পোষাকের পর ভীড় জমাচ্ছে কসমেটিক্্র ও জুয়েলারীর দোকানসমুহে। ঈদের দিন নামাজে যাবার জন্য পায়জামা পাঞ্জাবীই হচ্ছে বিশেষ পোষাক। তাই সব বয়সের পুরুষেরাই এই পোষাকটি কিনছেন। প্রিয় জনের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে ঈদকার্ডের পরিবর্তে মুঠোফোনের বদৌলতে  শুরু হয়েছে এসএমএস বা ক্ষুদে বার্তা  পাঠানোর বিশেষ  প্রক্রিয়া। অন্যদিকে যারা প্রিয়জনকে মনের কথাটি  যারা লিখে কিংবা মুখে বলতে না পেরে হতাশায় ভূগছেন তারা ছুটছেন সিডির দোকানগুলোতে। পাশাপাশি বাড়ীর কর্তারা ঈদের দিন মেহমানদের  আপ্যায়নের জন্য খাদ্য সামগ্রী কিনতে ছুটছেন বিভিন্ন ফাস্টফুড ও জেনারেল সপের দোকানে। কিছুদিন আগে ভয়াবহ বন্যার কারনে মানুষের হাতে এখন আর আগের মত টাকাকড়ি না থাকায় লোকজন বেশ নাজুক পরিস্থিতিতে  রয়েছে। বেশ কয়েকজন ক্রেতার সাথে আলাপ করে এ তথ্য জানা গেছে। দিন দিন দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির কারণে সবচেয়ে বেশী বেকায়দায় পড়েছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশায় নিয়োজিত চাকুরিজীবিরা। বাজারের নিউ মার্কেট, বেদার মার্কেট, হাজী মার্কেট, মাতব্বর সুপার মার্কেট, নুর মার্কেটসহ আরো বেশ কয়েকটি মার্কেটের দোকানীর সাথে আলাপ করে জানা গেল দোকানগুলোতে বেচাবিক্রি আগের তুলনায় দিনদিন বাড়ছে। মসজিদ মার্কেটের দোতলায় এনাম কথ ষ্টোরে শাড়ী কিনতে আসা গৃহিনী সামিরা জানালেন, রুচি সম্মত সবকিছু মিলছে তবে, দামটা  অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেক বেশী। সবশেষে সকল গ্লানি দূর হয়ে ঈদ সবার জীবনে বয়ে আনবে অনাবিল আনন্দ, সহায়ক ভূমিকা রাখবে সুসভ্য সমাজ গঠনে , এমনটাই প্রার্থনা প্রতিজন ধর্মপ্রান মুসলমানের, পরম করুনাময়ের প্রতি। ঈদ মোবারক ।
৩০ জুলাই’১৩

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT