টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ইয়াবা অভিযানে হোয়াইক্যং ফাঁড়ির আইসির লাগামহীন অত্যাচারে অতিষ্ঠ মানুষ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৩
  • ১০৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

শামসুল আলম শারেক,টেকনাফ::::হোয়াইক্যং ফাঁড়ির আইসির গুপ্তচরের মত ৬/৭জন সাদা পোশাকে ইয়াবা অভিযানের নামে বিনানুমতিতে বাড়িতে ঢুকে ভয়ভীতি প্রদর্শন, দীর্ঘণ তল্লাশী চালিয়ে ইয়াবা না পেয়ে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটপাটের অভিযোগ এনেছেন এক গৃহবধূ। অভিযুক্ত পুলিশ অস্বীকার করলেও বিষয়টি তদন্ত স্বাপে প্রকৃত সত্য উদঘাটনের জন্য পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপরে দ্রুত হস্তপে কামনা করেছেন।
ভূক্তভোগী পরিবারের গৃহবধূ অভিযোগ করে সংবাদকর্মীদের জানান-২৬জুলাই ভোররাত প্রায় ৩টারদিকে হোয়াইক্যং ফাঁড়ির আইসি মাশরুল হক ৬/৭জন সাদা পোশাক পরিহিত লোক নিয়ে টেকনাফস্থ হ্নীলার লেদা ৮নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি জাফর আলমের বাড়িতে অভিযানে যায়। কোন চৌকিদার-দফাদার ছাড়া বাড়িতে অনাধিকারে প্রবেশ করে বিভিন্ন ক ইয়াবার নামে তছনছ করে ফেলে। এক পর্যায়ে উক্ত আইসি বাড়ির খাস-কামরায় গিয়ে কিছু না পেয়ে মালিক কোথায় জানতে চায়! আমি বাড়িতে নেই বলার পর আমাকে বলে আলমিরা খুল। আলমিরা খুলে দেওয়ার পর এদিক-ওদিক দেখে নিচের ড্রয়ার খুলে টাকার বান্ডিল দেখতে পায়। সাথে সাথে ইয়াবা কোথায় আছে দেখিয়ে দিতে বলে। ইয়াবা কি আমি চিনিনা বলার পরে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এরপর অলংকার রাখার ড্রয়ার খুলে আমাকে বলে একটু বাহিরে যাও। আমি রোমের বাহিরে যাওয়ার ভান করে রুমের পাশে দাড়িয়েছি ঠিক তখনই ঐ পুলিশ অফিসার টাকার বান্ডেল পকেটে ও গেঞ্জির ভেতর ঢুকিয়ে ফেলে এবং স্বর্ণালংকারের বাক্স রেখে স্বর্ণ নিয়ে যায়। উক্ত পুলিশ কর্তা নগদ ৭লাখ ৪০হাজার টাকা এবং আমার ব্যবহার্য ৮ভরি স্বর্ণের অলংকার ও একটি চেক নিয়ে যায়। আমার টাকা ও স্বর্ণ কেন নিয়ে যাচ্ছ জানতে চাইলে জবাবে বলেন- এগুলো ইয়াবা বিক্রির টাকায় কিনেছি বলে অভিযোগের নামে নিয়ে যায়। উক্ত মহিলা আরো জানান পুলিশ এর আগেও দু‘ দু‘বার আমার বাড়িতে এলেও তারা তো ভদ্রভাবে দেখে চলে গেছে। কোনদিন লুটপাট করেনি। এই হোয়াইক্যং ফাঁড়ির আইসি বাহারছড়া এলাকা হতে গাড়িসহ ঢাকার এক লোককে আটক করেন। একটি বিশেষ মহলের প্ররোচনায় আমার স্বামীকে পিতার নাম অজ্ঞাত করে উক্ত মামলায় আসামী করে দেন। অভিযান পরিচালনাকারী অভিযুক্ত আইসি বলেন-বাড়ির মহিলার অভিযোগ বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। ইয়াবা তল্লাশীর নামে আমার নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার ফেরত পেতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপরে দ্রুত হস্তপে কামনা করেছেন। #########

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT