টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ইসলামপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় মোটর সাইকেল উল্টে ছাত্রলীগ নেতা সহ আহত-২

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ৯৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

এম আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও:::কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় মোটর সাইকেল উল্টে ছাত্রলীগ নেতা সহ দু’জন গুরুত্বর আহত হয়েছে। জানা যায়, ইসলামপুর ইউনিয়নের ডুলাফকির মাজার সংলগ্ন টেকিং পয়েন্টে ২৯ সেপ্টেম্বর সকাল এগারটায় চকরিয়া যাওয়া পথে মোটর সাইকেল উল্টে ঈদগাঁও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক উত্তর মাইজ পাড়ার মোহাম্মদ হোসেনের পুত্র ইরফানুল করিম ইরফান (২০) এবং তার অপর বন্ধু ব্যবসায়ী দরগাহ পাড়ার নুরুল আজিমের পুত্র তোহা (২১)। দুজনেরই অবস্থা আশঙ্খা জনক। বর্তমানে তাদেরকে ঈদগাঁও মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এদিকে ছাত্র নেতা ইরফানের আরোগ্য মুক্তি কামনা করেন- ঈদগাঁও ২নং ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি ছুরুত আলম ও সাংবাদিক এম আবু হেনা সাগর।
ঈদগাঁও পুলিশের অভিযানে চেক প্রতারণা মামলার
আসামী সহ আটক-৩
এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও
তারিখঃ ২৯-০৯-১৩ ইং
সদর উপজেলা ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অভিযানে চেক প্রতারণা মামলার আসামী সহ তিনজনকে আটক করতে সম হয়েছে। জানা যায়, ২৮ সেপ্টেম্বর গভীর রাত্রে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এ.এস.আই ফারুক আহমদ গোমাতলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করে। আটককৃতরা হলেন- পোকখালী ইউনিয়নের গোমাতলী এলাকার তছিল আহমদের পুত্র সাইফুল ইসলাম সুমন (২৫), একই ইউনিয়নের মৃত মোহাম্মদ আলী পুত্র মিজানুর রহমান (৭০) ও ঈদগাঁও ইউনিয়নের ঈদগাঁও ইউনিয়নের আহমদ শরীফের পুত্র রুবেল (১৯)। এব্যাপারে এ.এস.আই ফারুকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, দু’জন চেক প্রতারণা মামলা ও একজন নির্যাতন মামলায় আটক করা হয়েছে।
—————————————-

বৃহত্তর ঈদগাঁওতে শতাধিক প্রতিবন্ধীদের জীবন চলে চরম দূর্ভোগে
এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও
তারিখঃ ২৯-০৯-১৩ ইং
কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁওতে শতাধিকেরও বেশী প্রতিবন্ধীদের জীবন চলে চরম দূর্ভোগে। অতচ তাদের খবরা-খবর ক’জনে বা রাখে। এমন প্রশ্নে ঘোরপাক খাচ্ছে সচেতন মহলে মাঝে। জানা যায়, বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা ৬ইউনিয়নের অশিা-কুসংস্কার সহ সমাজের পূর্বের ধ্যান ধারণা এবং অল্প বয়সে কিংবা বাল্য বিয়ের ফলে অধিক সন্তান নেয়ায় বহু শিশু প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম নিচ্ছে। এলাকা ভেদে বা জন্মগত ভাবে এসব শিশু নোংরা এবং অপোকৃত হত দরিদ্র পরিবারে বেড়েই উঠছে। এসব পরিবার একদিকে তাদের শিাদিার ভরন পোষণ করতে অম। অন্যদিকে প্রতিবন্ধী শিশুরা সমাজের বোঝা হয়ে দাড়িয়েছে। কেননা এ প্রতিবন্ধীরা শারীরিক বা মানসিক কিংবা অন্যকোন উপায়ে আয় উপার্জন করার মত কোন পথ নেই। এমনকি- সরকারী বে-সরকারীভাবে কোন স্বার্বিক ও আর্থিক সহযোগিতা না পাওয়ার ফলে তাদের জীবন যাত্রা বলতে গেলে অচল। উপকুলীয় এলাকা গোমাতলীর প্রতিবন্ধীর এক মায়ের সাথে কথা হলে তিনি জানান, এ পরিবারটি চরম দুঃখ দূর্দশার মধ্যে দিন কাটছে। এই পর্যন্ত কোন সরকারী-বেসরকারী উদ্যোক্তা এ পরিবারটি সহযোগিতা হাত বাড়ায়নি। অপরদিকে চৌফলদন্ডী পোকখালী প্রায় শতাধিক লোক কোননা কোনভাবে প্রতিবন্ধী। এসব প্রতিবন্ধী অনাহারে- অর্ধাহারে দিন কাটায়। ফলে অপুষ্টির শিকার হয়ে দিন দিন মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।
——————————
ঈদগাঁও’র ৩ শতাধিক শিক কর্মচারী যুগ যুগ ধরে নিদারুন কষ্ট পাচ্ছে: দেখার কেউ নেই
এম. আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও
তারিখঃ ২৯-০৯-১৩ ইং
কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁও’র সরকারী অনুদান ভূক্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কলেজ ও মাদ্রাসা এমপিওভুক্ত শিক কর্মচারীরা বেতন ভাতা উত্তোলন নিয়ে যুগ যুগ ধরে কষ্ট পাচ্ছে। তাদের সমস্যা সমাধানে দেখার কেউ নেই। বৃহত্তর ঈদগাঁও তথা বিশাল এলাকার নানা স্থানে ছড়িয়ে ছিড়িয়ে থাকা সরকারী এধরনের শিা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ১৮টি। তার মধ্যে একটি ডিগ্রি কলেজ, ৯টি মাধ্যমি বিদ্যালয় ও ৮টি মাদ্রাসা। শিক কর্মচারী মিলিয়ে এসব প্রতিষ্ঠানে প্রায় তিন শতাধিক জনবল রয়েছে বলে এক সূত্রে প্রকাশ। বিশাল এলাকা জুড়ে এসব শিা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক কর্মচারী সাথে আলাপ কালে জানা যায়, দীর্ঘ ব^ছর ধরে তারা ঈদগাঁও থেকে ৩২ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে জেলা সদরের জনতা ব্যাংক থেকে আজ পর্যন্তও বেতন ভাতা উত্তোলন করে আসছেন। এতে তাদের সময় ও অর্থের যেমন অপচয় হচ্ছে তেমনি ভোগান্তিও কম নয়। অথচ ঈদগাঁওতে রয়েছে- রাষ্ট্রীয় সোনালী, রূপালী ও কৃষি ব্যাংকের শাখা রয়েছে। এই এলাকার শিক কর্মচারীর দাবি-সরকার যদি ঈদগাঁও’র এই সরকারী তিন ব্যাংকের যে কোন শাখায় তাদের বেতন ভাতা উত্তোলনের সুবর্ণ সুযোগ সৃষ্টি করে দিলে, তাহলে মানুষ গড়ার কারিগর শিকেরা নানামুখি ভোগান্তি থেকে রেহাই পেত এবং নষ্ট হওয়া দিনটি তারা জাতীর কল্যাণে ব্যয় করতে পারতো।
———————————-

ফলোআপ
ঈদগাঁওতে ইয়াবা মৌলভী কলিম আত্মগোপনে!
এম আবুহেনা সাগর, ঈদগাঁও
২৯-০৯-২০১৩ইং
সদর উপজেলার ঈদগাঁওতে মসজিদের ইমামের রুমে ইয়াবা চালান আটকের ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হলেও কারা এই আলোচিত ইয়াবার গডফাদার তা এখনো প্রশাসন বের করতে পারেনি। এদিকে ২৯ সেপ্টেম্বর ঈদগাঁও পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে আই.সি ও টু আই.সি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনা পরপরই ঈমাম এলাকার ছেড়ে পালিয়ে গিয়ে আত্ম গোপনের রয়েছে বলে এক সূত্রে প্রকাশ। পাঁচ দিনেও কোন হদিস পায়নি। অন্যদিকে, স্থানীয় ঈমাম সমিতি উক্ত ঈমামের বিষয়ে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বলে জানা যায়। এ চাঞ্চল্যকর ঘটনাকে ঘিরে এলাকা জুড়ে ফের তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, ঈদগাঁও ইউনিয়নের মেহেরঘোনা ফরেষ্ট অফিস সংলগ্ন অবস্থিত জামে মসজিদের ইমাম মওলানা কলিম উলাহের রুমের আলমিরা থেকে ২৪সেপ্টম্বর স্থানীয় মেম্বার ও বেশ কয়েকজন যুবক এই ইয়াবার চালান আটক করে। এ নিয়ে দীর্ঘন গোপন বৈঠক চলার এক পর্যায়ে একটি কাগজে বিষয়টি আপোষ মিমাংশা করে ইয়াবা টেবলেট গুলো গায়েব করে দিয়েছে বলে জানান। তবে স্থানীয় লোকজনের ধারনা মতে, আটককৃত ইয়াবা চালানে প্রায় ৫ ল টাকা হতে পারে। প্রকৃত সংখ্যা এখনও জানা যায়নি। এদিকে ঘটনাটি সামাল দিতে কতিপয় যুবক পুলিশ- সাংবাদিক ম্যানেজ করার নামে ঐ মাওলানার কাছ থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এ ব্যপারে মেম্বার সেলিম উলাহের সাথে যোগাযোগ করা হলে জানান, তিনি নয়, কয়েকজন যুবক ইমামের রুম হতে মাত্র কয়েকটি ইয়াবা উদ্ধার করেছে। অন্যদিকে মাষ্টার সুলতান ঐ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এব্যাপারে জৈনক মৌলভীর সাথে যোগাযোগ চেষ্টা করেও সংযোগ না পাওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT