হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয়প্রচ্ছদ

আরও দুইদিন তাপদাহের পর ঝড়বৃষ্টির আভাস

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক:: বৈশাখের প্রথমার্ধে দেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে বয়ে যাচ্ছে তাপপ্রবাহ । চার বিভাগের পাশাপাশি ঢাকা অঞ্চলের অনেক এলাকায় গরমের তীব্রতা বেড়েছে।

বুধবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এসময় ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

চলতি মৌসুমে কালবৈশাখী, বজ্র ঝড়বৃষ্টির পর তাপদাহ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে খুলনা, যশোর, পটুয়াখালী ও ভোলা অঞ্চলসহ চট্টগ্রাম বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যায়।

বুধবার জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, “চলমান তাপপ্রবাহের বিস্তার বেড়েছে; আরও দু’দিন তা অব্যাহত থাকতে পারে বিভিন্ন অঞ্চলে। শনিবার থেকে ঝড়বৃষ্টি বাড়লে তাপপ্রবাহও কমে আসবে।”

পূর্বাচলের জলাশয়ে গোসলে মেতেছে শহুরে কয়েক যুবক। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, রাজশাহী, পাবনা ও সৈয়দপুর অঞ্চলসহ চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা ও সিলেট বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।থার্মোমিটারের পারদ চড়তে চড়তে যদি ৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ওঠে, আবহাওয়াবিদরা তাকে মৃদু তাপপ্রবাহ বলেন।

উষ্ণতা বেড়ে ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলে তাকে বলা হয় মাঝারি তাপপ্রবাহ। আর তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়ে গেলে তাকে তীব্র তাপপ্রবাহ হিসেবে বিবেচনা করে আবহাওয়া অফিস।

এ মৌসুমে প্রতিদিন বিকালেই কালবৈশাখীর আশঙ্কা রয়েছে জানিয়ে সাবধানতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

এপ্রিল-মে মাসের উষ্ণ আবহাওয়ায় কালবৈশাখী, বজ্রঝড়ের অনুকূল পরিবেশ থাকে। বিশেষ করে উত্তর-উত্তর পশ্চিম এবং দক্ষিণ-পশ্চিমে কালবৈশাখীর দাপট বেশি। এমন সময়ে ঘণ্টাখানেকের মধ্যে বিদ্যুৎ চমকানো ও ঘন ঘন বজ্রপাতের মত পরিস্থিতি তৈরি হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়।

রাজধানীর পূর্বাচলে এখনও তেমন বসতি গড়ে ওঠেনি, কিছু জলাশয়ও রয়েছে। ছবি: মাহমুদ জামান অভি

কালবৈশাখীর মৌসুমে বজ্রঝড় বেশি হয়। বাংলাদেশে প্রতি বছর বজ্রপাতে গড়ে দুই থেকে তিনশ মানুষের প্রাণহানি ঘটে।এপ্রিলের দীর্ঘমেয়াদী আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এ মাসে সাগরে এক থেকে দুটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। এর মধ্যে একটি নিতে পারে ঘূর্ণিঝড়ের রূপ।

এদিকে মে মাসের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বঙ্গোপসাগরে দুই-একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে জানিয়ে বলা হয়েছে এরমধ্যে একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে।

উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে ২-৩ দিন মাঝারি /তীব্র কালবৈশাখী ও দেশের অন্যত্র ৩-৪ দিন মাঝারি কালবৈশাখী হতে পারে।

তবে মে মাসে দুয়েকটি তীব্র ও ২-৩টি মৃদু তাপপ্রবাহও বয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.