টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

আমি লজ্জিত কারণ আমার জন্ম টেকনাফে, আমি শংকিত কারণ আমি সন্তানের পিতা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১২৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

আলী আকবর। সাবরাং-মন্ডলপাড়া :::::01ইদানিং ইয়াবা নিয়ে বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় ও গনমাধ্যমে প্রচুর লেখালেখি ও প্রচার প্রচারণা হচ্ছে। কিন্তু ইয়াবার ব্যবসা বা ইহার ব্যবহার বন্ধ হচ্ছেনা বরং দিনদিন ইয়াবা ব্যবসা বা পাচার বৃদ্ধি পাচ্ছে। যেভাবে এই ঘৃণ্য মরণ নেশা আমাদের সমাজকে ( কিশোর থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত) ভয়াল থাবায় গ্রাস করতেছে জানিনা আগামী প্রজন্মের কি হবে। আমাদের প্রিয় সন্তানেরা এই মরণ নেশার ভয়াল ছোবলে অন্ধকারে তলিয়ে যাচ্ছে আর আমরা অসহায় পিতামাতা অসহায়তা নিয়ে তাকিয়ে তাকিয়ে দেখতেছি, কারণ আমরা অসহায়, করার কিছুই নেই(?)।আসলে কি করার কিছুই নেই???? হয়তো আছে কিন্তু কিছুই করবনা কারণ আমরা হয় ভীতু নাহয় আমরা লোভী। যতদিন না আমরা ভয় বা লোভ  পরিত্যাগ করতে নাপারি ততদিন আমরা কিছুই করতে পারবোনা।আমাদের চারপাশে যারা এই জঘন্য পেশায় জড়িত তাদেরকে কি সত্যিই আমরা চিনিনা? সাংবাদিক ভাইয়েরা অথবা প্রশসান কি অপরাধীদের নাম ঠিকানা সত্যিই জানেননা??? ২৪/৯/২০১৩ ইং তারিখে দৈনিক কক্সবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত আবু তাহের ভাইয়ের লেখা অল্পকথা গল্পকথা-ভয়ংকর বিপদ,আসুন কিছু একটা করি। লিখাটি আমি পড়েছি, সময়োপযোগি লেখার জন্য আবু তাহের ভাইকে অশেষধন্যবাদ।তিনি তাঁর লেখায় তিনটি ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন প্রতিটি ঘটনাই হ্নদয়বিদারক,মর্মান্তিক,বেদনাদায়ক ও ইয়াবা বা মাদক সেবনের সফলফসল!!!।লেখক আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই মরণ নেশা ব্যবসায়ি ও পাচারকারীদের প্রতিরোধ করার আহবান জানিয়েছেন যা হয়তো কখনও সম্ভব নয়, কারণ আমাদের মাঝে সেই কণ্ঠস্বর কোথায় (?) যার এক আহবানে যুদ্ধে (মাদক পাচারকারীদের বিরুদ্ধে) ঝাপিয়ে পড়বো? বাংলাদেশে প্রায় ১৬ কোঠি জনসংখ্যার মধ্যে কত জন এই ঘৃণ্য রাষ্ট্রদ্রোহী কর্মকান্ডে জড়িত? ১০,২০ বা ৩০ হাজারের বেশী নয় নিশ্চয়, তাহলে এই স্বল্পসংখ্যক অপরাধীকে কি আমরা ১৬ কোঠি মানুষ সম্মিলিতভাবে প্রতিহত করতে পারবোনা? আমরা এই জঘন্য অপরাধীদেরকে চিহ্নিত করে সব ধরনের আচার অনুষ্ঠানে সামাজিক ভাবে বর্জন করতে পারি। সাংবাদিক ভাইয়েরা যদি ঢালাওভাবে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের নামের তালিকা নাকরে যাচাই বাচাই করে সঠিক তথ্য দিয়ে প্রশাসনকে সহযোগীতা করেন এবং প্রশাসন যদি লোভের কাছে পরাজিত নাহয়ে আন্তরিকতার সহিত কাজ করেন তাহলে আমাদের দৃঢ়বিশ্বাস শতভাগ নাহলেও অনেকাংশে এই ঘৃণ্য অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। তবে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ অবশ্যই ঠেকাতে হবে। কারণ রোহিঙ্গা ও ইয়াবা একে অপরের পরিপূরক। আর এদেশের কিছু সুবিধাভোগী রোহিঙ্গাদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দাদাতের অবশ্যই আইনের আওতায় এনে শাস্তির বিধান করতে হবে।

* কিছু দিন আগে আমার ল্যাপটপ মেরামত করার জন্য আমি ঢাকা গিয়েছিলাম। ফকিরাপুল এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলের ম্যানেজার আমি টেকনাফ থেকে গেছি শুনে আমাকে রুম ভাড়া দিতে অস্বীকৃতি জানান।বলেন ভাই কিছু মনে করবেননা টেকনাফের লোককে রুমভাড়া দিয়ে বিপদে পড়তে চাইনা। তখন লজ্জায় মাথা হেট আসে। অপরাধী নাহয়েও অপরাধী। সত্যিই আমি লজ্জিত কারণ আমার জন্ম টেকনাফে। * আমার একটি মাতৃহারা সন্তান আছে,জন্মের পর থেকে যাকে আমি, মা ও বাবার আদর ¯েœহ দিয়ে লালনপালন করতেছি, তার বর্তমান বয়স সাড়ে সাত বছর। স্থানীয় একটি কেজি স্কুলে পড়ে। সে আমাকে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করে। জানতে চাই ইয়াবা কি? ইয়াবা খেলে কি হয়? পত্রিকাতে ইয়াবা নিয়ে এতো লেখালেখি হয় কেন? ইত্যাদি ইত্যাদি। আবার সে নাচুড় বান্দা, তার প্রশ্নের উত্তর অবশ্যই-ই দিতে হবে,যতক্ষণনা তার প্রশ্নের উত্তর নাপাবে ততক্ষণ সে একই প্রশ্ন বারবার করতে থাকবে। সত্যিই আমি শংকিত কারণ আমার প্রাণপ্রিয় সন্তান নাজানি কখন এই মরণ নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে, যে সন্তানকে বুকে নিয়ে রাতে ঘুমাই নাজানি কখন সে সন্তান আমারই ঘাতক হয়ে বুকে ছুরি বসিয়ে দেয়।মাঝে মাঝে রাতে ঘুমাতে পারিনা,দুঃস্বপ্ন দেখি। দেখি আমার আদরের সন্তানের মুখে সেই ভিলেনের মতো অট্রহাসি হাতে অস্ত্র আমার সামনে দাড়িঁয়ে বলছে ইয়াবা খাওয়ার জন্য টাকা দাও, নাহয় তোমাকে খুন করবো।ঘুম ভেঙ্গে যাই, চমকে উঠে দেখি আমার প্রাণের টুকরা আমারই পাশে ঘুমাচ্ছে। বুক চিড়ে কান্না আসে। অস্থিরতায় পায়চারি করতে থাকি। ভাবি এই মরণ নেশার ছোবল থেকে কে বাচাঁবে আমাদের ভবিষ্যৎ বংশধরদের? সত্যি-ই আমি সন্তানের ভবিষ্যৎ ভেবে আজ শংকিত, কারণ আমি যে সন্তানের পিতা।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT