হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

প্রচ্ছদমাদক

আবারও এনজিও’র প্রাইভেট কার থেকে ২০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার: আটক ২

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::

আবারও এনজিও’র স্টিকার লাগানো প্রাইভেট কার থেকে ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে। কক্সবাজার শহরতলীর লিংক রোড এলাকায় র‌্যাব-১৫ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ওই প্রাইভেট কার থেকে ২০ হাজার ইয়াবাসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে। ধৃত ২ ইয়াবা পাচারকারী হলেন, চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানার চকবাজার এলাকার কামরুল ইসলাম ভূঁইয়ার ছেলে মোহাম্মদ দৌলত আজিম ভূঁইয়া (৩৯), যার স্থায়ী বাড়ি চট্টগ্রামের হাটহাজারী এলাকার কাতাল গঞ্জে। অন্যজন হলেন লক্ষীপুর জেলার লক্ষীপুর থানাধীন রামানন্দী এলাকার চাঁদখালীর আনোয়ার হোসেনের ছেলে রুবেল রানা (২২)।

প্রাইভেট কারটিতে ‘হিউম্যানিটি ফার্স্ট সার্ভিং ম্যানকাইন্ড’ এনজিও’র লোগো লাগানো রয়েছে। তবে র‌্যাব দাবি করেছে, গাড়িটি কোনো এনজিও’র নয়। ধৃতরা র‌্যাবকে জানিয়েছেন, গাড়ির রং উঠে যাওয়ায় স্টিকারটি লাগানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বিকাল ৩টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব এই অভিযান চালায়।

র‌্যাব-১৫ ব্যাটালিয়ানের অধিন কক্সবাজার কোম্পানীর কোম্পানী কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ মেহেদী হাসান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
মেজর মেহেদী হাসান জানান, কক্সবাজার শহরতলীর লিংক রোড এলাকা হয়ে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের দিকে একটি প্রাইভেট কারে ইয়াবা পাচার হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে র‌্যাবের রামুস্থ ১৫ ব্যাটালিয়নের একটি দল বিশেষ চেক পোষ্ট বসিয়ে তল্লাশি শুরু করেন। তল্লাশির এক পর্যায়ে ‘হিউম্যানিটি ফার্স্ট সার্ভিং ম্যানকাইন্ড’ এনজিও’র স্টিকার লাগানো একটি প্রাইভেট কারকে (চট্টমেট্টো-ক-০২-১৪৩৬) থামানোর সংকেত দিলেও গাড়ির চালক ও গাড়ীতে থাকা আরও একজন দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করে। সেই সময় র‌্যাব সদস্যরা তাদের হাতেনাতে ধরে ফেলেন।

মেজর মেহেদী হাসান জানান, ধৃত ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা স্বীকার করে গাড়িটিতে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় ইয়াবা রাখা আছে। র‌্যাব সদস্যরা তল্লাশি করে ২০ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করেন।

ধৃত ২ ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ কক্সবাজার এলাকা থেকে ইয়াবা কিনে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করে আসছে বলে দাবি করেছে র‌্যাব-১৫।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.