টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফে ৪ প্রতিষ্ঠানকে অর্থদন্ড টেকনাফ হাসপাতালে ‘মাল্টিপারপাস হেলথ ভলান্টিয়ার প্রশিক্ষণ’ বান্দরবানে রোহিঙ্গা ‘ইয়াবা কারবারি বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত রামুতে পাহাড় ধসে ২ জনের মৃত্যু দেশের ১০ অঞ্চলে আজ ঝড়বৃষ্টি হতে পারে মাধ্যমিকে বার্ষিক পরীক্ষা হচ্ছে না: গ্রেডিং বিহীন সনদ পাবে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার্থীরা যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগে রোহিঙ্গা বিষয়ক বৈঠক বৃহস্পতিবার মেজর সিনহা হত্যা মামলা বাতিল চাওয়া আবেদনের শুনানি ১০ নভেম্বর মোবাইল ব্যাংকিংয়ে ক্যাশ আউট চার্জ কমানোর উদ্যোগঃ নগদ’এ ক্যাশ আউট হাজারে ৯.৯৯ টাকায় ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার স্ট্যান্ডার্ড ৮৫টি প্রশ্ন

আজ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৬৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৩ জুন, ২০১২
  • ১৫৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সোহরাব হোসেন চৌধুরী…  ২৩ জুন বাংলাদেশের সর্বত্র উদযাপিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৬৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। এ উপলক্ষ্যে কক্সবাজার জেলায় আওয়ামীলীগ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানা যায়।তবে জেলার তরুণ সমাজ এখনো জানেন না, কক্সবাজারে কখন  আওয়ামীলীগের কার্যক্রম শুরু হয় এবং প্রথম থেকে কারা কারা সভাপতি-সাধারন সম্পাদক ছিলেন ? এ বিষয়ে প্রবীণ রাজনীতিবিদ, শিক্ষানুরাগী, ক্রীড়াবীদ, সাংস্কৃতিকমনা, জেলা জয়বাংলা বাহিনীর প্রধান, বীর মুক্তিযুদ্ধা কামাল হোসেন চৌধুরীর স্মরনাপন্ন হলে তিনি জানান, যতদূর জানা যায়, দেশের এক সংকট কালে ১৯৫৬ সালের দিকে মরহুর মহিউদ্দিন মোক্তার (হারবাং) কে কনভেনার করে এবং নিম্মোক্ত ব্যক্তিবর্গ সদস্য হিসেবে দলীয় কাজ করেন, যেমন সাবেক কক্সবাজার পৌর চেয়ারম্যান আব্দুল সালাম ,সাবেক চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ সদস্য রসিদ আহমদ বিএ (মহেশখালী), সাবেক চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ সদস্য জালাল আহমদ চৌধুরী   (কুতুবদিয়া), মোক্তার বদিউর রহমান(উখিয়া),বাবু মিয়া (চকরিয়া) মোঃ সিকদার (ইনানী),সমসুদদ্দোহা (ঝিংলজা,পেতা সওদাগর পাড়া) সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আজিম,বাদশা মিয়া (পেশকার পাড়া) প্রমূখ।

তিনি আরো জানান, পরর্বতী সময়ে দেশের এক কালো অধ্যয়ে ১৯৫৮ সালে, এদের অনেকে আয়ূব খানের কনভেনশন মুসলিমলীগে চলে যায়।কিন্তু হাতে গোনা দু-চার জনকে দিয়ে মহিউদ্দিন মোক্তার দূঃসময়ে আওয়ামীলীগের হাল ধরে থাকেন। তাঁর অসুস্থার কারণে ষাঁটের দশকের প্রথম দিকে মরহুম আবছার কামাল চৌধুরীকে আহবায়ক করে আওয়ামীলীগের এক কমিটি গঠন করা হয় এবং ১৯৬৬ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও চট্টগ্রাম আজিজ মিয়ার  নেতৃত্বে সী-বীচ রেষ্ট হাউসের পাশে -১নং কটেজে পুনরায় আবছার কামাল চৌধুরীকে সভাপতি ও মরহুম এডভোকেট নুর আহমদ (এমএনএ)কে সাধারন সম্পাদক করে এক জেলা আওয়ামীলীগ কমিটি গঠিত হয়।১৯৭৪ সালে ডাঃ শামসু উদ্দিন কে সাধারন সম্পাদক করা হয়।পর্রবতী সময়ে এড. জহিরুল ইসলাম (এমসিএ) দীর্ঘ কয়েক বছর সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। আরও পরে মরহুম একেএম মোজাম্মেল হক কে সভাপতি ও এড. জহিরুল ইসলামকে সাধারন সম্পাদক করে জেলা কমিটি করা হয়।

বিশেষ গুরুত্বের সাথে বলা যায়, অতীতে কখনো কক্সবাজার থানা আওয়ামীলীগের কমিটি ছিলনা। মনে হয় ইহা যেন ‘‘চেরাগের নিচে আধাঁর”। স্বাধীনতা উত্তর কালে এহেন তীব্র সমস্যার নিরসন কল্পে; সদূর প্রসারী চিন্তাবিদ তরুন নেতা কামাল হোসেন চৌধুরীর অকৃথিম চেষ্ঠায় স্বয়ং প্রতিষ্টাতা-সভাপতি এবং যুগপৎ আব্দুল হাকিম এমএ কে সাধারন সম্পাদক করে এক শক্তিশালী প্রথম কক্সবাজার থানা আওয়ামীলীগ কমিটি গঠিত হয়।

পরম্পরায়, কামাল হোসেন চৌধুরী সভাপতি ও মমতাজুল হক এমএড ( সাবেক সুপার পিটিআাই) সাধারন সম্পাদক হন। এর পরে মরহুম ছৈয়দুল আলম চৌধুরী বিএড সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭২-১৯৭৭ সাল পর্যন্ত কামাল হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন থানা কমিটি বহাল থাকে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT