হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

প্রচ্ছদরাজনীতি

আগামী নির্বাচনে আ. লীগের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত : হানিফ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁও ইসলামিক ফাউন্ডেশনে ইমামদের রিফ্রেশার্স প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।
মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, তফসিল ঘোষণার পরেই মনোনয়ন কারা পাচ্ছে তা চূড়ান্তভাবে বলা যাবে। আওয়ামী লীগ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত আছে। ইতিমধ্যে প্রত্যেকটি নির্বাচনী এলাকা থেকে তৃণমূলের তথ্য, উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দলের সভানেত্রী বিভিন্ন উইংস থেকে তথ্য, উপাত্ত সংগ্রহ করছেন। এসব তথ্য, উপাত্তের ভিত্তিতে সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। এই তালিকাও মোটামুটি প্রস্তুত আছে, আওয়ামী লীগ আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য প্রার্থীতা প্রায় চূড়ান্ত করে ফেলেছে।
নির্বাচনের আগে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ সরকার গঠন নিয়ে বিএনপির দাবির বিষয়ে হানিফ বলেন, বিএনপি কী করবে, কী করবে না এটা তাদের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের ব্যাপার। বিএনপি খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার বিষয়ে যে দাবিটা করেছে, এটা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক দাবি।
তিনি আরও বলেন, আদালতের রায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত কোনো কয়েদিকে রাজনৈতিকভাবে মুক্তি করার কোনো সুযোগ নেই। একমাত্র রাষ্ট্রপতিই পারেন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে।
খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে হানিফ বলেন, খালেদা জিয়াকে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। তাহলে রাষ্ট্রপতি হয়তো বিবেচনা করতে পারেন। এর বাইরে রাজনৈতিকভাবে তাকে মুক্ত করার কোনো সুযোগ নেই। খালেদা জিয়াকে আইনের মাধ্যমেই মুক্ত করে আনতে হবে।
বিএনপির দাবির বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির এই দাবির মধ্যে একটি বিষয় জাতির সামনে পরিষ্কার হয়ে উঠেছে, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া টাকা আত্মসাৎ করেছিলেন এই ব্যাপারে তার দলের নেতারা সুনিশ্চিত। সুনিশ্চিত হয়েই বিএনপি ধরে নিয়েছে তারা আদালতে খালেদা জিয়াকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পারবে না, তাই রাজনৈতিকভাবে মুক্তির চেষ্টা করছে।
তিনি বলেন, রাজপথের আন্দোলনের হুমকির মধ্য দিয়ে বিএনপির নেত্রীর দুর্নীতি ও অপকর্মকে আড়াল করার চেষ্টা করা হয়েছে এবং খালেদা জিয়ার অপরাধ তারা স্বীকার করে নিয়েছে।
নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয়ে বিএনপির দাবির প্রতিক্রিয়ায় হানিফ বলেন, ‘আমরা পরিষ্কারভাবে বলেছি, যেকোনো রাজনৈতিক দলের ইচ্ছা, অনিচ্ছার ওপর সব কর্মকাণ্ড হয় না। সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে রাষ্ট্রপতি বৈঠক করে, সবার পরামর্শের ভিত্তিতেই নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। সেই নির্বাচন কমিশন কারও ব্যক্তি ইচ্ছা, অনিচ্ছায় যখন তখন ভেঙে দেওয়া বা পুনর্গঠন করা এই ধরনের দাবিটা যৌক্তিক নয়।’

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.