অতি ভারী বৃষ্টি ও ভূমিধস হতে পারে. বন্দরে ৩ নম্বর সংকেত

প্রকাশ: ১৭ জুন, ২০২০ ৩:৫৯ : অপরাহ্ণ

দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৩ নম্বরস্থানীয় সতর্কসংকেত দেখাতে বলেছেআবহাওয়া অধিদফতর।

গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার প্রভাবেউপকূলে ঝড়ো হাওয়ার আশঙ্কায় এসতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রাসমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয়সতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরতসব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকেপরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলেরকাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচলকরতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া গভীরসাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

রাজধানীতে বুধবার সকালে ভারী বর্ষণহয়েছে। এ ছাড়া বৃষ্টির খবর পাওয়াগেছে দেশের আরও অনেক জেলাতে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে,উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্নএলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালাতৈরি হচ্ছে। এর প্রভাবে দেশেরউপকূলীয় অঞ্চল এবংসমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়োহাওয়া বয়ে যেতে পারে।

বুধবার ভোর ৫টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্তদেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোরজন্য পূর্বাভাসে বলা হয়েছে– রাজশাহী,রংপুর, দিনাজপুর, পাবনা, বগুড়া,টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর,যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল,পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা চট্টগ্রাম,কক্সবাজার ও সিলেট অঞ্চলের ওপরদিয়ে দক্ষিণ, দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকেঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগেবৃষ্টি ও বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বাঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১নম্বর নৌ সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলাহয়েছে।

বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগেরঅধিকাংশ জায়গায় এবং রাজশাহী,রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও খুলনাবিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীদমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারিধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতেপারে।

সেই সঙ্গে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রামবিভাগের কোথাও কোথাও ভারী থেকেঅতিভারী বর্ষণ হতে পারে। সারা দেশেদিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায়অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলরাজশাহীতে, ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.৬ডিগ্রি সেলসিয়াস। নীলফামারীরডিমলায় দেশের সর্বোচ্চ ৬০ মিলিমিটারবৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়াঅফিস।

 


সর্বশেষ সংবাদ